BREAKING NEWS

১৫ মাঘ  ১৪২৯  সোমবার ৩০ জানুয়ারি ২০২৩ 

READ IN APP

Advertisement

মহিলাদের চুল উধাও, উপত্যকায় বিপাকে সেনাবাহিনী

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: October 7, 2017 4:16 am|    Updated: October 7, 2017 4:18 am

Kashmir: Braid chopping incidents concern for intelligence agencies

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিচ্ছিন্নতাবাদী নেতাদের অধিকাংশই পুলিশের জালে, না হলে গৃহবন্দি। ছক বদল করে জম্মু-কাশ্মীরের সম্প্রতি বেশ কিছু জঙ্গিকে নিকেশ সেনাবাহিনী করেছে। এই সাফল্যের মধ্যে আচমকা ব্যাকফুটে সেনারা। গত কয়েক দিনে উপত্যকার মহিলাদের বিনুনি থেকে আচমকা চুল উধাও হয়ে যাচ্ছে। এই ঘটনায় নিরাপত্তাবাহিনী বেজায় বিপাকে পড়েছে। বাড়ছে গণপিটুনির ঘটনা। আর পরিস্থিতি সামলাতে না পারায় ক্ষোভ গিয়ে পড়েছে বাহিনীর উপর।

[নজরে চিন, পানাগড়ে শুরু রাত যুদ্ধের মহড়া]

সেনা সূত্রে খবর, বিচ্ছিন্নতাবাদীরা পরিকল্পিতভাবে এই ঘটনা ঘটাচ্ছে। তাদের একাংশ মহিলাদের চুল কেটে নিচ্ছে। অধিকাংশ ঘটনার কিনারা করতে না পারায় ক্ষোভ বাড়ছে মানুষের। প্রকৃত অপরাধীকে ধরতে না পেরে নিরীহদের উপর গণপ্রহারে ঘটনা উত্তরোত্তর বেড়েই চলেছে। সেনার লাগাতার অভিযানে এখন পাথর ছোড়ার পরিমান কমেছে। তরুণ প্রজন্মদের মধ্যে যাদেরকে পাথর ছোড়ানোর কাজে ব্যবহার করা হত তাদের দিয়ে পুলিশ-সেনাকে জব্দ করার এই ছক নেওয়া হয়েছে। মানুষের ক্ষোভকে কাজে লাগিয়ে অনেক জায়গাতেই সেনাকে ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না। এর ফলে জঙ্গিরা সেই সব এলাকায় নতুন করে ঘাঁটি গাড়ছে। জম্মু কাশ্মীর পুলিশের আইজি মুনির আহমেদ খানের গলাতেও সেই উদ্বেগ ধরা পড়েছে। তাঁর বক্তব্য, সন্ত্রাসবাদীরা এই পরিস্থিতি কৃত্রিমভাবে তৈরি করেছে। যার ফলে সেনাবাহিনীর কাজটা বেশ কঠিন হয়ে যাচ্ছে। জঙ্গিবিরোধী অভিযান চালাতে নানাভাবে বাধা আসছে। সাধারণ মানুষ আতঙ্কিত হয়ে পড়ছেন। তারা যত দোষ দেখছেন সেনা ও পুলিশের। তবে কাশ্মীরের অন্তত ৪০টি চুল কাটার ঘটনা ঘটলেও মহিলাদের সঙ্গে কোনওরকম অশালীন আচরণের অভিযোগ আসেনি।

[গান্ধী হত্যার আদৌ কি তদন্তের প্রয়োজন? খতিয়ে দেখবে সুপ্রিম কোর্ট]

চলতি বছরের আগস্ট মাস নাগাদ দিল্লি, গুরুগ্রাম এবং রাজস্থানের একাংশে মহিলাদের চুল কেটে নেওয়ার ঘটনা সামনে এসেছিল। তারপর দেশের আরও কয়েকটি রাজ্যে এধরনের ঘটনার কথা জানা যায়। তবে অধিকাংশ ক্ষেত্রে আতঙ্ক এবং তার সুযোগ নিয়ে সমাজবিরোধীরা এমন কাণ্ড ঘটায় বলে অভিযোগ আসে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে