BREAKING NEWS

৭ মাঘ  ১৪২৮  শুক্রবার ২১ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

ত্রিপুরায় খান খান লেনিনের মূর্তি, টুইট করে বিতর্কে রাজ্যপাল তথাগত রায়

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: March 6, 2018 1:44 pm|    Updated: March 6, 2018 1:44 pm

Lenin statue demolition: Guv Tathagata Roy's tweet courts row

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: লাল নয় ত্রিপুরায় নয়া রং গেরুয়া। তাই ‘লাল নিশান‘ থেকে শুরু করে ‘লাল মতবাদ’ সমস্তই মুছে ফেলতে হবে। পট পরিবর্তনের পর ‘বিষবৃক্ষে’র শেষ চারাটাকেও উপড়ে ফেলতে হবে। পালটে ফেলতে হবে ইতিহাস। বিজেপি শিবিরের অনেকেই এমনটাই মনে করছেন বলে মত বিদ্বজনের। তাই নির্বাচন জয়ের পরই ভেঙে গুঁড়িয়ে দেওয়া হল কমিউনিস্টদের প্রাণপুরুষ ভ্লাদিমির ইলিচ লেনিনের মূর্তি। এবার সেই ঘটনায় বিতর্কিত মন্তব্য করে শোরগোল ফেলে দিলেন ত্রিপুরার রাজ্যপাল তথাগত রায়।

“ক্ষমতায় এলে এক গণতান্ত্রিক সরকার যা পদক্ষেপ করে পরবর্তী সরকার সেটা পালটে ফেলতেই পারে। এবং এটা দু’দিকেই প্রযোজ্য।” সোমবার লেনিনের মূর্তি ভাঙার পর টুইটারে এমনটাই পোস্ট করেন রাজ্যপাল তথাগত রায়। তারপর শুরু হয় প্রবল বিতর্ক। সাংবিধানিক পদে থেকেই এই নিন্দনীয় ঘটনাকে সমর্থন দিচ্ছেন রাজ্যপাল। উঠে আসে এমন অভিযোগ। তবে সমস্ত অভিযোগ খণ্ডন করে তিনি দাবি করেন। তাঁর বয়ানের ভুল ব্যাখ্যা করা হচ্ছে। একই সঙ্গে তিনি সাফ জানিয়ে দেন, তিন আরএসএস কর্মী হত্যা মামলায় তিনি কোনও হস্তক্ষেপ করেননি। নিয়মমাফিক তদন্ত চালাবে সরকার। এদিন রাজ্য বিজেপির সভাপতি তথা মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবের প্রশংসা করেন রাজ্যপাল। বিরোধীদের অভিযোগ, বিজেপি নেতার মতোই আচরণ করেন তথাগত রায়।

উল্লেখ্য, সোমবার রাজধানী আগরতলা থেকে ৯০ কিলোমিটার দূরে বেলোনিয়ায় গুঁড়িয়ে দেওয়া হয় লেনিনের মূর্তি। তারপরই রাজ্য জুড়ে শুরু হয় প্রবল হিংসা। অভিযোগ, পালা বদলের পরই আগরতলার সিটু অফিস দখল করে নিয়েছে বিজেপি সমর্থকরা। রাজ্য জুড়ে সিপিএম কর্মীদের উপর হামলা চালাচ্ছে গেরুয়া দলবল। ইতিমধ্যে পরিস্থিতি সামাল দিতে আসরে নেমেছে বিশাল পুলিশ বাহিনী। সংবেদনশীল এলাকাগুলিতে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে।

[ত্রিপুরায় পদ্ম ফোটানোর নেপথ্য কারিগর তিনিই, কে এই সুনীল দেওধর?]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে