BREAKING NEWS

০৯ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  বুধবার ২৫ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

মন্দির চত্বরে মদ বিলি বিজেপি বিধায়কের, বাদ যায়নি নাবালকরাও

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: January 8, 2019 10:42 am|    Updated: January 8, 2019 10:42 am

Liquors served in BJP leader's temple event

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মন্দির চত্বরে আয়োজন করা হয়েছিল বিজেপির মিটিং। দলীয় কর্মীদের নিয়ে বৈঠকের আয়োজন করেছিলেন বিজেপি বিধায়ক নীতীন আগরওয়াল। আগত কর্মীদের জন্য ব্যবস্থা করা হয়েছিল টিফিনের। সেই টিফিনের বাক্সের মধ্যেই মিলল মদের বোতল। অভিযোগ, খাবারের প্যাকেটে মদের বোতল রেখে আসলে কর্মীদের গোপন উপহার দিয়েছেন বিজেপি বিধায়ক।

[লোকসভার আগেই রিজার্ভ ব্যাংকের সঞ্চিত টাকা ঢুকবে কেন্দ্রীয় কোষাগারে!]

ঘটনাচক্রে এই নীতীন আগরওয়াল আবার উত্তরপ্রদেশের প্রভাবশালী বিজেপি নেতা নরেশ আগরওয়ালের ছেলে। মন্দির চত্বরে আয়োজিত এই বৈঠকে হাজির ছিলেন নরেশ নিজেও। কিছুদিন আগেই সমাজবাদী পার্টি থেকে গেরুয়া শিবিরে নাম লিখিয়েছেন উত্তরপ্রদেশের প্রাক্তন মন্ত্রী। তাঁর নিজের এলাকা হারদোই-এই কাণ্ডটি ঘটেছে। নরেশের ছেলে নীতীন আগরওয়াল স্থানীয় বিধায়ক। তিনি নিজের বিধানসভা কেন্দ্রে বিভিন্ন এলাকার কর্মীদের নিয়ে একটি বৈঠকের আয়োজন করেন। বৈঠকটি আয়োজিত হয় শ্রবণাদেবী মন্দিরে। বৈঠক শেষে বিলি করা হয় টিফিন বক্স। তাতে দেখা গিয়েছে অন্যান্য খাবারের পাশাপাশি ছোট ছোট বোতলে দেওয়া হয়েছে মদও। উপস্থিত কয়েকশো কর্মী পেয়েছেন এই উপহার। বাদ যায়নি নাবালকরাও।

[লোকসভার আগে ফের ধাক্কা, বিজেপির সঙ্গ ছাড়ল অসম গণ পরিষদ]

স্থানীয় বিজেপি নেতৃত্বও এই অভিযোগ স্বীকার করে নিয়েছেন। হারদোই-এর বর্তমান সাংসদ অনুশুল বর্মা জানিয়েছেন, “এটা একটা দুর্ভাগ্যজনক ঘটনা। নরেশ আগরওয়াল ও তাঁর ছেলে খুব সম্প্রতি বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। ধর্মস্থানে মদ আনা বিজেপি সমর্থন করেনা। বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্বকে নতুন করে ভাবতে হবে। আমরা যে সমস্ত শিশুদের হাতে কলম তুলে দি, তাদের হাতে মদের বোতল তুলে দেওয়া হয়েছে। আমরা আবগারি দপ্তরকেও জানিয়েছি, এত বেশি পরিমাণ মদ কোথা থেকে এল তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে।” সাংসদের বক্তব্য থেকেই পরিষ্কার বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্ব এই ঘটনার দায় ঝেড়ে ফেলার চেষ্টা করছেন। এখনও এ বিষয়ে নরেশ আগরওয়াল বা তাঁর ছেলে কোনও মন্তব্য করেননি।

 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে