১৩ মাঘ  ১৪২৮  বৃহস্পতিবার ২৭ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

শিশুচোর সন্দেহে গণপিটুনি, ত্রিপুরায় মৃত্যু যুবকের

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: June 29, 2018 12:43 pm|    Updated: June 29, 2018 12:43 pm

Man lynched on suspicion of child lifting in Tripura

ফাইল ছবি।

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিজেপি শাসিত রাজ্যে আবারও গণপিটুনিতে মৃত্যু৷ নৃশংস এই ঘটনার সাক্ষী ত্রিপুরা৷ শিশুচোর সন্দেহে মারধর করা হয় চারজনকে৷ তাঁদের মধ্যে মৃত্যু হয় একজনের৷ বাকি তিনজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক৷ স্থানীয় হাসপাতালে ভরতি রয়েছেন তাঁরা৷ ঘটনায় স্বতঃপ্রণোদিত মামলা রুজু করেছে পুলিশ৷ শান্তিশৃঙ্খলা যাতে বিঘ্নিত না হয় তাই আটচল্লিশ ঘণ্টার জন্য ওই এলাকার ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধ রাখা হয়েছে৷

[শিক্ষিকার আচরণে মেজাজ হারালেন মুখ্যমন্ত্রী, গ্রেপ্তারির নির্দেশে বিতর্ক]

শিশুচোর সন্দেহে গণপিটুনির ঘটনায় দিনকয়েক ধরে চাপা উত্তেজনা রয়েছে ত্রিপুরায়৷ এরই মাঝে বৃহস্পতিবার সকালে আবারও শিশুচোর সন্দেহে গণপিটুনিতে মৃত্যু হল একজনের৷ এদিন গাড়ি করে তিনজন ত্রিপুরার উরাবাড়িতে যান৷ গাড়িতে থাকা প্রত্যেকেই উত্তরপ্রদেশের বাসিন্দা৷ প্রায় কুড়ি বছর ধরে জামাকাপড়ের ব্যবসায় যুক্ত তাঁরা৷ ব্যবসার কাজেই উরাবাড়িতে গিয়েছিলেন ওই তিনজন৷ আচমকাই প্রায় তিনশো লোক ওই গাড়িটি ঘিরে ধরে৷ শিশুচোর সন্দেহে শুরু হয় ব্যাপক মারধর৷ খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে পৌঁছয় পুলিশ৷ রাষ্ট্রীয় রাইফেলস বাহিনী ঘটনাস্থলে পৌঁছানোর আগেই পুলিশ লাঠিচার্জ শুরু করে৷ পরিস্থিতি সামাল দিতে কাঁদানে গ্যাস ছোড়া হয়৷ শূন্যে বেশ কয়েক রাউন্ড গুলিও চালায় পুলিশ৷ তিনজনের অবস্থা অত্যন্ত আশঙ্কাজনক৷ জখম স্বপন মিঞার অভিযোগ, ড্রাইভিং লাইসেন্স, আধার-সহ অন্যান্য পরিচয়পত্র দেখালেও তাদের ওপর হামলা চালানো হয়৷ আহতরা প্রত্যেকেই স্থানীয় হাসপাতালে ভরতি রয়েছেন৷

[‘যোগীকে সঙ্গে নিয়েই তাজমহল ভাঙতে যাব’, বিতর্কিত মন্তব্য মুসলিম নেতার]

ওই একই দিনে দ্বিতীয় ঘটনাটি ঘটে কালাচেরিতে৷ প্রশাসনের তরফে গণপিটুনির বিরোধিতায় প্রচার চালাচ্ছিলেন সুকান্ত চক্রবর্তী নামে এক ব্যক্তি৷ কিন্তু আচমকাই রটে যায়, শিশুচুরির ঘটনায় যোগ রয়েছে তাঁর৷ স্থানীয় গাড়িচালকরাই বেধড়ক মারধর করতে শুরু করে তাঁকে৷ ঘটনাস্থলেই মারা যান সুকান্ত৷

পুলিশের দাবি, বেশ কয়েকজন এলাকায় শিশু চুরির গুজব রটিয়ে আতঙ্ক ছড়াচ্ছে৷ গোটা বিষয়টি খতিয়ে দেখছেন তদন্তকারীরা৷ বৃহস্পতিবার দুটি ঘটনায় স্বতঃপ্রণোদিত মামলা রুজু করে তদন্তে নেমেছে পুলিশ৷ এখনও কাউকে গ্রেপ্তার করা যায়নি৷ শান্তিশৃঙ্খলার কথা মাথায় রেখে আগামী আটচল্লিশ ঘণ্টা ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধ রাখা হয়েছে৷

 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে