BREAKING NEWS

২৬  শ্রাবণ  ১৪২৯  সোমবার ১৫ আগস্ট ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

সংসদ অচল, তবে সাংসদ ভাতা বাড়াতে সরকারকে ‘পূর্ণ সমর্থন’ বিরোধীদের

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: March 23, 2018 1:04 pm|    Updated: July 30, 2019 6:43 pm

No end to Parliament stalemate but MPs get pay hike

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সংসদ অচল। শাসক-বিরোধী লড়াই তুঙ্গে। বিরোধীদের দাবি, কেন্দ্র নাকি বঞ্চনা করছে ‘আম আদমির সঙ্গে’। তাই কোনওমতেই সংসদ চলতে দেওয়া যাবে না। ফলে চালাও ‘অসহযোগিতা আন্দোলন’। ‘আম আদমি’র স্বার্থে না হয় তাঁদের পকেট থেকে আরও কিছু কর আদায় করে নেওয়া যাবে।

[বহুতলের ব্যালকনিতে খেলার ঝোঁকেই সর্বনাশ, পা পিছলে পড়ে মৃত্যু শিশুর]

যাই হোক ভাতার কথা উঠতেই ‘ অল কোয়ায়েট অন দ্য ওয়েস্টার্ন ফ্রন্ট’। তখন সরকার-বিরোধী ‘ভাই-ভাই’। প্রায় ১৪ দিন হয়ে গেল, সংসদে কোনও কাজ হচ্ছে না। অথচ সাংসদেরাই বৃহস্পতিবার নিজেদের ভাতা বাড়িয়ে নিলেন। হইহল্লার জেরে ১০ মিনিটের বেশি কোনওদিনই সংসদ চলছে না। সরকারও এই বিষয়ে উদ্যোগী হচ্ছে না। যদিও সংসদীয় মন্ত্রী বিজয় গোয়েল বিরোধীদের সঙ্গে বৈঠক করে অচলাবস্থা কাটানোর কথা বলেন। কিন্তু বিরোধীদের বক্তব্য, সরকারের শরিক দলরাই রোজ হাঙ্গামা করে সংসদ অচল রাখছেন। তার জেরে অনাস্থা প্রস্তাব নিয়ে প্রায় রোজ টালবাহানা করছেন স্পিকার সুমিত্রা মহাজন। এরই মধ্যে বেতন ও ভাতা নির্ধারণ করতে যৌথ কমিটি সাংসদদের বর্ধিত ভাতা মঞ্জুর করল।

গত বাজেটেই অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি সাংসদদের বেতন দ্বিগুণ বাড়ানোর কথা ঘোষণা করেছিলেন। গত মাসের শেষে সাংসদদের অন্যান্য ভাতা-বৃদ্ধিরও সিদ্ধান্ত নেয় মোদি মন্ত্রিসভা। নির্বাচনী ভাতা বাড়ানো হয়েছে ৪৫ হাজার টাকা থেকে ৭০ হাজার টাকা, অফিস খরচের জন্য ৪৫ হাজার টাকা বাড়িয়ে ৬০ হাজার টাকা করা হয়েছে। সেটিই এদিন কমিটি অনুমোদন করে বলে কমিটি সূত্রের খবর।

[তথ্য চুরির ডামাডোলে মসুল থেকে নজর ঘোরাচ্ছে সরকার, দাবি রাহুলের]

সংসদের অধিবেশন চালাতে প্রতি ঘণ্টায় আম জনতার ২ লক্ষ টাকা খরচ হয়। অথচ অধিবেশন কার্যত অচল থাকার পরেও সাংসদরা নিজেদের ভাতা বাড়াতে এত তৎপর কেন? রাজনৈতিক  লড়াইয়ে ‘গণতন্ত্রের ধ্বজাধারীরা’ আখের গুছিয়ে নিচ্ছেন আর বোঝা বইছে আম জনতা। উঠছে এমন অভিযোগ। মসুলে মৃত ৩৯ জন ভারতীয় নাগরিকদের জন্য যাঁদের দু’মিনিট উঠে দাঁড়াবার সময় নেই। তাঁরাই একযোগে বেতন বৃদ্ধির পক্ষে সায় দিয়েছেন। ফলে জনতা জনার্দনের চেয়ে মা লক্ষীর প্রতি যে তাঁদের আগ্রহ বেশি তা স্পষ্ট।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে