BREAKING NEWS

১৪ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

বিয়ের পর ধর্ম বদলায় না মহিলাদের, সাফ জানাল সুপ্রিম কোর্ট

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: December 8, 2017 8:29 am|    Updated: September 20, 2019 4:17 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: একজন পুরুষ অন্য কোনও ধর্মের মহিলাকে বিয়ে করতে পারে। তারপরও নিজের ধর্মবিশ্বাসে অটুট থাকতে পারে। অন্যদিকে মহিলাদের বিয়ের পর স্বামীর ধর্মকেই নিজের করে নিতে হয়। কোনও এক অলিখিত নিয়মে এটাই যেন দস্তুর। কিন্তু দেশের সর্বোচ্চ আদালত জানিয়ে দিল, এরকম কোনও আইন নেই। নেই বাধ্যবাধকতা। বিয়ের পর স্বামীর ধর্মকেই শিরোধার্য করতে হবে না মহিলাদের। তাঁর নিজের ধর্মবিশ্বাস নিয়েই থাকতে পারেন তিনি।

শহরে জন্ম রূপকথার ‘মৎস্যকন্যা’র, বিস্মিত চিকিৎসকমহল ]

এক বিশেষ মামলার সূত্রে এই রায় সুপ্রিম কোর্টের। একজন পারসি মহিলা বিয়ে করেছিলেন এক হিন্দু পুরুষকে। এরপরও কি তিনি তাঁর পিতা-মাতার পারলৌকিক ক্রিয়ায় অংশ নিতে পারেন? এ প্রশ্ন গিয়ে পৌঁছায় প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্রর নেতৃত্বাধীন এক বেঞ্চের সামনে। সবদিক খতিয়ে দেখেই এই সিদ্ধান্ত সর্বোচ্চ আদালতের। আদালত জানাচ্ছে, এরকম কোনও আইন নেই। কোথাও বলা নেই যে, বিয়ের পর স্বামীর ধর্মকেই মেনে নিতে হবে। বরং স্পেশাল ম্যারেজ অ্যাক্ট অনুযায়ী, দু’জন সাবালক নর-নারী বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েও, তাঁদের নিজেদের ধর্মবিশ্বাসে অনড় থাকতে পারেন। তাতে কোনও বাধা নেই।

‘ছোটলোক’ বলে আক্রমণ মণিশঙ্করের, পালটা জবাব মোদির ]

জনৈক পারসি মহিলাকে তাঁর বাবার পারলৌকিক ক্রিয়ায় অংশ নেওয়া থেকে বাধা দেওয়া হয়েছিল। অভিযোগ, হিন্দু পুরুষকে বিয়ে করে তিনি হিন্দু ধর্মই গ্রহণ করেছেন। সুতরাং পারসিদের প্রথাতে অংশ নেওয়ার আর তাঁর কোনও অধিকার নেই। গুজরাট হাই কোর্টও তাতে সায় দিয়েছিল। চ্যালেঞ্জ জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হন মহিলা। মহিলার পক্ষে বর্ষীয়ান আইনজীবী ইন্দি জেয়সিং ‘কমন ল ডকট্রিন’-এর যৌক্তিকতা নিয়েই প্রশ্ন তোলেন। যার জেরে মহিলাদের ধর্ম স্বাভাবিকভাবেই স্বামীর ধর্মে পরিণত হয়। সওয়াল-জবাব শেষে সুপ্রিম কোর্ট জানায়, একজন পুরুষ তো অন্য ধর্মের মহিলাকে বিয়ে করেও নিজের ধর্মবিশ্বাসে থাকতে পারেন। তাহলে একজন মহিলার ক্ষেত্রে সে নিয়ম আলাদ হবে কী করে? কোনওভাবেই একজন মহিলাকে তা করতে বাধ্য করা যায় না।

ফের একদফা আধার সংযুক্তির মেয়াদ বাড়াচ্ছে কেন্দ্র ]

আদালতের এই পর্যবেক্ষণের সারমর্ম এই যে, বিয়ের পরেই যে মহিলাদের ধর্মান্তরিত হতে হবে এরকম কোনও বাধ্যবাধকতা নেই। বিশেষ মামলার সূত্র ধরেই সর্বোচ্চ আদালত জানিয়ে দিল, কোনও মহিলা চাইলে বিয়ের পরও তাঁর নিজের ধর্মেই থাকতে পারেন। অংশ নিতে পারেন সেই ধর্মের বিভিন্ন প্রথায়।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement