BREAKING NEWS

১৫ মাঘ  ১৪২৮  শনিবার ২৯ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

প্রবীণ ও প্রতিবন্ধীদের বাড়িতে গিয়ে পরিষেবা দিন, ব্যাঙ্কগুলিকে নির্দেশ রিজার্ভ ব্যাঙ্কের

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: November 10, 2017 6:09 am|    Updated: September 25, 2019 2:06 pm

Offer doorstep services to people above 70, differently-abled: RBI to banks

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অ্যাকাউন্টে আধার সংযোগের জন্য চূড়ান্ত সময়সীমা বেঁধে দিয়েছে ব্যাঙ্কগুলি। ব্যাঙ্কে গিয়ে বায়োমেট্রিকের মাধ্যমে গ্রাহকের তথ্য মিলিয়ে নেওয়া হবে। এর জন্য ব্যাঙ্কের শাখায় যেতে হবে গ্রাহকদের। কিন্তু অনেক সময় নানা কারণে অনেকেই ব্যাঙ্কে যেতে পারেন না। বয়স ও শারীরিক সমস্যা এক্ষেত্রে কারণ হয়ে দাঁড়ায়। এই সমস্ত নাগরিকদের জন্য ব্যাঙ্কগুলিকে নির্দেশ দিয়েছে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক।

[‘ইচ্ছেমতো অরুণাচলে যাবেন আমাদের নেতানেত্রীরা’, চিনকে বেনজির বার্তা ভারতের]

সেখানে বলা হয়েছে প্রবীণ নাগরিক যাদের বয়স সত্তরের বেশি এবং যারা শারীরিকভাবে অক্ষম তাদের বাড়িতে পৌঁছে দিতে হবে ব্যাঙ্কিং পরিষেবা। একেবারে ডোর স্টেপ সার্ভিস। এই মর্মে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক ইন্ডিয়া ব্যাঙ্কগুলিকে নির্দেশ দিয়েছে। এবছরের ডিসেম্বর মাসের মধ্যে তা চালু করতে হবে। দেশের শীর্ষ ব্যাঙ্ক বলছে টাকা জমা, তোলা, চেকবই, ডিমান্ড ড্রাফটের মতো পরিষেবা এই সমস্ত মানুষদের দরজায় পৌঁছে দিতে হবে। দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্কের পর্যবেক্ষণ এধরনের গ্রাহকদের ক্ষেত্রে ব্যাঙ্ক তেমন উৎসাহ দেখায় না। তাদের এই মনোভাব বদলাতে এমন নির্দেশিকা। পাশাপাশি রিজার্ভ ব্যাঙ্ক জানিয়েছে সেভিংস অ্যাকাউন্টের জন্য গ্রাহককে চেক বই দেওয়া হয় তা প্রতি বছর বিনামূল্যে দিতে হবে। এই চেকবইয়ের নেওয়ার ব্যাপারে গ্রাহককেই আসতে হবে এমন যেন চাপ না দেওয়া হয়। এই সমস্ত পরিষেবার পাশাপাশি প্রবীণ এবং প্রতিবন্ধী গ্রাহকদের জন্য ১৫জি/এইচ ফর্ম প্রতিবছর ব্যাঙ্ক দায়িত্ব নিয়ে করাবে।

[যে কোনও পরিস্থিতিতে ২০১৮-র মধ্যেই হবে রাম মন্দির, ঘোষণা VHP-র]

তবে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক এই নির্দেশ দিলেও কতটা তা কার্যকর হবে তা নিয়ে প্রশ্ন রয়েছে ব্যাঙ্ক কর্মচারী সংগঠনগুলির মধ্যে। তাদের বক্তব্য, নোটবাতিলের পর্ব থেকে কর্মীদের  উপর প্রচুর চাপ রয়েছে। কর্মী কম থাকায় সাধারণ পরিষেবা দিতেই তারা নাজেহাল। এই পরিকাঠামোয় কীভাবে প্রবীণ নাগরিক এবং শারীরিকভাবে অক্ষমদের তাদের বাড়িতে গিয়ে এই পরিষেবা চালু হবে তা নিয়ে সংশয়ে রয়েছে সংগঠনগুলি।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে