৭  আশ্বিন  ১৪২৯  রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

পণ্য পরিবহণের ক্ষেত্রে আরও গুরুত্ব পাচ্ছে ডানকুনি, তৈরি হচ্ছে বিশেষ করিডোর

Published by: Kumaresh Halder |    Posted: August 26, 2018 5:02 pm|    Updated: August 26, 2018 5:02 pm

Over 100 'specially designed' stations to be set up soon as part of Railways' Rs 81,459

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:  রেলের পণ্য পরিবহণের মানচিত্রে আরও কদর বাড়ছে ডানকুনি স্টেশনের৷ দেশের ১০০ রেল স্টেশনকে বিশেষ ভাবে সাজিয়ে তুলতে ইতিমধ্যেই ৮১ হাজার কোটি টাকা খরচে নয়া প্রকল্প হাতে নিয়েছে ভারতীয় রেল৷ ২০২০-২১ সালের মধ্যে দু’টি ধাপে পূর্ব ও পশ্চিম ভারতের মধ্যে পণ্য পরিবহণে বিশেষ করিডোর নির্মাণের লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে ঝাঁপাতে চলেছে পীযূষ গোয়েলের মন্ত্রক৷

[কাশ্মীরে বড় সাফল্য সেনার, গ্রেপ্তার সদ্য জঙ্গি সংগঠনে নাম লেখানো চার যুবক]

সংবাদসংস্থা আইএএনএসের তরফে জানানো হয়েছে, দেশের ১০০টি স্টেশনকে ঢেলা সাজানোর পাশাপাশি টার্মিনাল নির্মাণের লক্ষ্যমাত্রা নেওয়া হয়েছে৷ একই সঙ্গে পূর্ব ও পশ্চিমের সঙ্গে যোগাযোগ আরও দৃঢ় করে শুধুমাত্র পণ্য পরিবহণের জন্য পৃথক ৩ হাজার ৩৬০ কিলোমিটার দীর্ঘ রেল পথ নির্মাণের পরিকল্পনাও নেওয়া হয়েছে৷ নয়া এই প্রকল্পের মাধ্যমে শুধুমাত্র মালগাড়ি যাতায়াতের জন্য ২০২০-২১ সালের মধ্যে বেশ কিছু টার্মিনাল, ১৫টি প্রাইভেট সাইডিং ও ১০টি পণ্য রাখার শেড নির্মাণ করা হবে৷ এর ফলে, ৩০০ মিলিয়ন টন পণ্য পূর্ব-পশ্চিমের মধ্যে আদানপ্রদান করা সম্ভব হবে বলে রেল সূত্রে জানানো হয়েছে৷ পূর্ব-পশ্চিমের নয় রাজ্যের বুকে পাতা হবে পণ্য পরিবহণের জন্য বিশেষ এই রেল পথ৷ দেশের ৬০টি জেলার ৪৮টি স্টেশনে পণ্য ওঠানো-নামানোর ব্যবস্থা রাখা হচ্ছে বলেও রেল সূত্রে খবর৷

[উত্তরপ্রদেশের এই অখ্যাত গ্রামের ভোটার তালিকায় সানি লিওন, জানেনই না অভিনেত্রী!]

পৃথক দু’টি রুটে হবে পণ্য পরিবহণের কাজ৷ প্রথমে নেভি মুম্বই থেকে উত্তর প্রদেশের দাদরি পর্যন্ত ১ হাজার ৫০৪ কিলোমিটার রেল পথ নির্মাণ করা হবে৷ পূর্বে পাঞ্জাবের লুধিয়ানা থেকে বিহার-ঝাড়খণ্ড ছুঁয়ে ডানকুনি পর্যন্ত ১ হাজার ৮৫৬ কিলোমিটার মালগাড়ি যাতাযাতের করিডোর নির্মাণের পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে৷ রেল পথে পণ্য পরিবহণে গুরুত্ব বাড়াতে ইতিমধ্যেই একাধিক বেসরকারি পরিবহণ সংস্থার সঙ্গে বৈঠক করেছে রেল মন্ত্রক৷ রেল কর্তৃপক্ষের এই প্রস্তাবে সাড়া দিয়েছে দেশের একাধিক বহুজাতিক সংস্থা৷ মূলত, দেশের অভ্যন্তরে পণ্য পরিবহণের খবর কমাতে ও যোগাযোগ বৃদ্ধির লক্ষ্যে রেল এই পদক্ষেপ৷ তবে, শুধু যোগাযোগ বৃদ্ধিই নয়, পণ্য পরিবহণে আয়ের মাত্রা কয়েক গুণ বাড়াতে রেল কর্তৃপক্ষের এই সিদ্ধান্ত বলে জানা গিয়েছে৷ নয়া এই প্রকল্প রূপায়নের সৌজন্যে সংশ্লিষ্ট স্টেশনগুলিকে ঢেলা সাজানোরও পরিকল্পনা গৃহীত হয়েছে৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে