১৩ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  বুধবার ৩০ নভেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

এনআরসি ইস্যুতে মুখ খুলতেই মমতার বিরুদ্ধে খড়্গহস্ত মোদি

Published by: Tanujit Das |    Posted: August 12, 2018 11:51 am|    Updated: August 12, 2018 11:51 am

Prime Minister Narendra Modi launched a scathing attack on West Bengal Chief Minister Mamata Banerjee

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অসমের জাতীয় নাগরিকপঞ্জি ইস্যুতে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নজিরবিহীন আক্রমণ শানালেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি৷ মুখ্যমন্ত্রীর করা ‘গৃহযুদ্ধ’ মন্তব্যকে হাতিয়ার করেই তাঁর বিরুদ্ধে সমালোচনার সুর চড়ালেন প্রধানমন্ত্রী৷ নাম না করে বললেন, যাঁদের সঙ্গে দেশেরে নাড়ির সম্পর্ক নেই৷ যারা দেশ থেকে বিচ্ছিন্ন৷ তাঁরাই কেবল এমন মন্তব্য করতে পারেন৷

শনিবার সংবাদ সংস্থা এএনআই-কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে বিরোধীদের কার্যত একহাত নেন মোদি৷ তাঁর সুর থেকেই স্পষ্ট, এনআরসি ইস্যুতে তৃণমূল কংগ্রেসের আক্রমণে যথেষ্ট চাপে রয়েছে কেন্দ্রের বিজেপি সরকার৷ প্রথমে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নাম না করে প্রধানমন্ত্রী মোদিকে বলতে শোনা যায়, ”যাঁরা ‘গৃহযুদ্ধ’, ‘রক্ত স্নান’, ‘দেশ ভাগ’ ইত্যাদি শব্দ বন্ধ ব্যবহার করেন, তাঁরা আসলে নিজের উপর থেকে বিশ্বাস হারিয়ে ফেলেছেন৷ দেশের নাড়ির সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন হয়েছে তাঁদের৷ মানুষ তাঁদের বিশ্বাস করেন না৷” এরপরই নাম করে মুখ্যমন্ত্রীকে আক্রমণে শানান তিনি৷ বলেন এনআরসি ইস্যুতে দ্বৈতনীতি ছেড়ে, অবস্থান স্পষ্ট করুক তৃণমূল সুপ্রিমো৷ মনে করিয়ে দেন, জাতীয় নাগরিকপঞ্জি বিষয়ে ২০০৫-তে মুখ্যমন্ত্রীর করা মন্তব্যকে৷ কটাক্ষের সুরে প্রশ্ন করেন, “তখনকার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সত্য, নাকি এখনকার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়?”

[ট্রেন তিন ঘণ্টা লেটে যাত্রা বাতিল, টাকা ফেরাবে রেল]

৩১ জুলাই অসমের জাতীয় নাগরিকপঞ্জি প্রকাশ হওয়ার পরেই কেন্দ্রের বিরুদ্ধে কার্যত যুদ্ধ ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও তৃণমূল কংগ্রেস৷ রাজ্য থেকে শুরু করে জাতীয় স্তরে বিরোধিতায় প্রধান ভূমিকা পালন করেন তিনি৷ বিজেপির সমালোচনা করে বলেন, দেশ ভাগাভাগির রাজনীতি করছে গেরুয়া শিবির৷ মানুষে মানুষে বিভেদ তৈরি করার উদ্দেশ্যে ও ভোটব্যাংকের স্বার্থে নাগরিকদের দেশছাড়া করতে চাইছেন তাঁরা৷ শনিবারের সাক্ষাৎকারে মুখ্যমন্ত্রীর সমস্ত অভিযোগে সম্পূর্ণ উড়িয়ে দেন প্রধানমন্ত্রী মোদি৷ জানান, কোনও নাগরিককে দেশছাড়া করা হবে না৷ যারা বৈধ নথি দেখাতে পারবে না, তাঁদের একাধিক সুযোগ দেবে কেন্দ্রীয় সরকার৷ পালটা সমালোচনার সুরে বলেন, রাজনৈতিক স্বার্থে এনআরসি ইস্যুকে ব্যবহার করছে বিরোধীরা৷

[স্বাধীনতা দিবসে বলতে হবে ‘ভারত মাতা কি জয়’, নিদান শিয়া ওয়াকফ বোর্ডের]

এছাড়া, ২০১৯-এর লক্ষ্যে তৈরি হওয়া মহাজোটকেও একহাত নেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি৷ জানান, ক্ষমতার লোভে এক ছাতার তলায় আসতে চাইছে বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলি৷ মানুষের চেয়েও তাঁদের কাছে ক্ষমতা বেশি প্রিয়৷ মুখ খোলেন, সন্ত্রাসবাদ ও গণপিটুনির ঘটনায়৷ দুটিকেই প্রতিহত করতে সরকার যে বদ্ধ পরিকর তা স্পষ্ট ভাষায় তা জানিয়ে দেন৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে