BREAKING NEWS

১২ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘সাংবাদিক নয়, গ্রেপ্তার করা উচিত আধার কর্তৃপক্ষকে’

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: January 9, 2018 12:18 pm|    Updated: January 12, 2018 6:16 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দিন যত গড়াচ্ছে আধার তথ্য ফাঁসের ঘটনা নিয়ে বিতর্কে বাড়ছে বই কমছে না। এ সংক্রান্ত খবর করায় ইতিমধ্যে দ্য ট্রিবিউনের এক সাংবাদিকের বিরুদ্ধে দায়ের হয়েছে এফআইআর। কিন্তু খবর করার জন্য সাংবাদিক নয়, এফআইআর দায়ের করা উচিত ছিল ইউআইডিএআই কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে। এমনটাই মনে করছেন এডওয়ার্ড স্নোডেন। টুইট করে আধার বিতর্কে মুখ খুলেছেন তিনি।

[শালবনিতে চালু হচ্ছে জিন্দালদের সিমেন্ট কারখানা, ১৫ জানুয়ারি উদ্বোধন মুখ্যমন্ত্রীর]

বর্তমানে রাশিয়ার আশ্রয়ে থাকা স্নোডেন নিজে একসময় মার্কিন গুপ্তচর সংস্থার একাধিক তথ্য ফাঁস করেছেন। বিভিন্ন দেশের রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গের ফোন যে সিআইএ আড়ি পাতে সেটাও জানিয়েছিলেন তিনি। আর সে কারণেই আমেরিকার চক্ষুশূল তিনি। বহু নাটকের পর অবশেষে রাশিয়ার আশ্রয় লাভ করেছেন তিনি। এহেন স্নোডেনই এবার আধার তথ্য ফাঁস কেলেঙ্কারিতে মুখ খুললেন। সওয়াল করলেন ‘দ্য ট্রিবিউন’-এর সাংবাদিকের পক্ষেই। টুইট করে স্নোডেন লেখেন, ‘যে সাংবাদিক এই খবরটি করেছেন তাঁর বিরুদ্ধে মামলা না চালিয়ে, তাঁকে পুরস্কার দেওয়া উচিত। সরকার যদি সত্যিই সুবিচারের পক্ষপাতী হয়, তাহলে যাতে কোটি কোটি ভারতবাসীর গোপনীয়তা ফাঁস না হয় সেজন্য নিজেদের নীতি বদলাবে। এই মুহূর্তে এই কাজের জন্য যাঁরা দায়ী সেই ইউআইডিএআই-কে গ্রেপ্তার করা উচিত।’ এদিকে, এই ঘটনায় কিছুটা হলেও পিছু হটল কেন্দ্র। সোমবার কেন্দ্রীয় তথ্য ও প্রযুক্তি মন্ত্রী রবিশংকর প্রসাদ বলেন, সরকার সংবাদমাধ্যমের বাকস্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ করতে চায় না। আর এফআইআর দায়ের করা হয়েছে অজ্ঞাত পরিচয় ব্যক্তির নামে।

[প্রেমিককে বাঁচাতে বাবাকে মেরে ফেলল যুবতী! কেন?]

এক পরিচয়ে বাঁধা পড়ছে গোটা দেশ। ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট থেকে ফোন নম্বর- জরুরি হচ্ছে আধার। সেই আধারেরই তথ্য কিনা ফাঁস হচ্ছে হোয়্যাটসঅ্যাপের খোলা বাজারে। সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যম দ্য ট্রিবিউন-এ খবর প্রকাশিত হওয়ার পরই হইচই পড়েছিল গোটা দেশে। এরপরই ওই সংবাদপত্র ও সাংবাদিকের নামে এফআইআর দায়ের করে ইউআইডিএআই। তারই প্রেক্ষিতে স্নোডেনের এই মন্তব্য।

[অহিন্দু যুবকদের সঙ্গে ঘোরা মানা হিন্দু তরুণীদের, ফতোয়া বজরঙ্গ দলের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement