৮ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ২৩ মে ২০১৯ 

Menu Logo নির্বাচন ‘১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করদাতাদের টাকায় রাজনেতাদের বিলাস নতুন কিছু নয়। আকছারই শুনতে পাওয়া যায় এমন ঘটনা। তবে এবার শিরোনামে খোদ কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। দুবাইয়ের পাঁচতারা হোটেলে দেড় হাজার পাউন্ড খরচ করে ব্রেকফাস্ট করেছেন রাহুল, তাও গোমাংস সহযোগে। ছবি-সহ এই ভুয়ো খবর ছড়িয়ে পড়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়া ছবিতে দেখা যাচ্ছে, দুবাইয়ের শিল্পপতি সানি ভার্কের সঙ্গে প্রাতরাশ করছেন রাহুল। সঙ্গে রয়েছেন কংগ্রেসের অন্যতম উপদেষ্টা তথা প্রবাসে কংগ্রেসের চেয়ারম্যান স্যাম পিত্রোদা। দুবাই বলে কথা! তাঁদের সামনে থরে থরে সাজানো রয়েছেন বিপুল খাদ্যসম্ভার| জানা গিয়েছে, হিল্টন হোটেল নয়, এই আয়োজন করা হয়েছিল শিল্পপতি ভার্কের বাড়িতে। সেখানে দুবাইয়ের আরও অনেক শিল্পপতি উপস্থিত ছিলেন। ঋষি বাগড়ি এই ভুয়ো খবরটি টুইট করেছেন বলে জানা গিয়েছে। তাঁর দাবি, লোভনীয় খবর খেতে-খেতে ‘দারিদ্র্য দূরীকরণ’ নিয়ে আলোচনা করেন রাহুল| ইতিমধ্যে বাগড়ির টুইটে রি-টুইট হয়েছে দু’হাজারেরও বেশি। ‘লাইক’ পড়েছে তিন হাজারেরও বেশি। উল্লেখ্য, এই টুইটার অ্যাকাউন্টটি ফলো করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহও। টুইটারের পাশাপাশি ফেসবুকেও এই ছবি ও খবর ভাইরাল হয়েছে। খাবার টেবিলে রাখা পাতলা করে কাটা মাংসের টুকরোকে গোমাংস বলে দাবি করা হয়েছে।

কিন্তু প্রশ্ন উঠেছে, সংযুক্ত আরব আমিরশাহির মুদ্রা যেখানে দিরহাম, সেখানে পাঁচতারা হোটেলে মাথাপিছু ব্রেকফাস্টের জন্য দেড় হাজার পাউন্ড যা ভারতীয় মুদ্রায় প্রায় ১ লক্ষ ৩৫ হাজার টাকা, গুণতে হবে কেন? প্রসঙ্গত, দু’দিনের সফরে সংযুক্ত আরব আমিরশাহিতে গিয়েছিলেন রাহল। সেখানে তিনি ভারতীয় শ্রমিকদের পাশাপাশি স্থানীয় শিল্পপতি এবং আরব আমিরশাহির প্রধানমন্ত্রী, ভাইস প্রেসিডেন্ট এবং অন্য মন্ত্রীদের সঙ্গে দেখা করেন। এদিকে কংগ্রেসের তরফে জানানো হয়েছে, সকালের এই বৈঠকটি হয়েছিল ভার্কের বাড়িতে, কোনও পাঁচতারা হোটেলে নয়। আর তাঁরা সেখানে খেয়েছেন ডিমের পোচ ও কমলালেবুর রস।

[‘বিতর্কিত’ কবিতা লিখে অসমে হিন্দুত্ববাদীদের রোষের মুখে শ্রীজাত]

ট্রেন্ডিং