BREAKING NEWS

১৩  আষাঢ়  ১৪২৯  মঙ্গলবার ২৮ জুন ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

বাল গঙ্গাধর তিলক ‘সন্ত্রাসবাদের জনক’! অষ্টম শ্রেণির সহায়িকা বই ঘিরে বিতর্ক

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: May 11, 2018 11:56 am|    Updated: May 11, 2018 11:56 am

Rajasthan schoolbook calls Bal Gangadhar Tilak ‘father of terrorism’

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: তিনি লোকমান্য। দেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের পথ যাঁর হাত ধরে খুলে গিয়েছিল। সেই বাল গঙ্গাধর তিলককেই পেতে হল সন্ত্রসবাদীর তকমা। সৌজন্যে রাজস্থানের একটি স্কুলের সোশ্যাল স্টাডিজের সহায়ক বই। সেখানে তিলককে ‘ফাদার অফ টেররিজম’ বা সন্ত্রাসের জনক হিসেবেই ব্যাখ্যা করা হয়েছে।

[  খাবারের মান যাচাইয়ে নয়া পদক্ষেপ, এবার রোবট কিনছে রেল ]

মথুরার একটি প্রকাশনা সংস্থা থেকে বইটি প্রকাশিত হয়েছে। একটি ইংরেজি মাধ্যম স্কুলে সেটি পড়ানো হচ্ছে। যদিও রাজস্থান বোর্ড অফ সেকেন্ডারি এডুকেশনের অনুমোদনেই বইটি সহায়ক হিসেবে রাখা হয়েছে। কিন্তু এমন কথা বলা হল তিলক সম্পর্কে। বইটির বাইশ নম্বর অধ্যায়ে দেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের পাঠ দেওয়া হচ্ছিল পড়ুযাদের। সেখানে তিলককে সম্মান জানিয়েই বলা হয়, জাতীয়তাবাদী আন্দোলনের পথ খুলে দেন তিনি। সেই নিরিখে তাঁকে টেররিজম বা সন্ত্রাসের জনক বলে অভিহিত করা হয়। লেখা হয়েছে, তিলক ব্রিটিশের কাছে আবেদন-নিবেদনে বিশ্বাস করতেন না। তাতে যে কিছু হবে না তা তিনি বুঝতেন। তাই গণপতি পুজো ও শিবাজি উৎসবের মাধ্যমে গোটা দেশে জাতীয়তাবাদ জাগিয়ে তুলেছিলেন। পুরো অংশ থেকে কোথাও যে তিলককে অসম্মান করার উদ্দেশ্য ছিল তা মনে হয় না। সম্ভবত সশস্ত্র বিপ্লবের কথা বলতে গিয়েই ভুল শব্দ চয়ন হয়েছে। তার জেরেই এই বিভ্রান্তি।

[  উন্নাওয়ে ধর্ষণ করেছিল বিজেপি বিধায়ক, নিশ্চিত করল সিবিআই ]

প্রকাশকের বক্তব্য, বোর্ডের নির্দেশিকা অনুযায়ীই বই লেখা হয়েছে। কোথাও সে নির্দেশিকা থেকে বিচ্যুতি নেই। অন্যদিকে অন্য বই না পাওয়ায় একাধিক ইংরেজি মাধ্যম স্কুলে তা পড়ানো হচ্ছে। যদিও এরকম একটি স্কুলের প্রিন্সিপাল জানাচ্ছেন, বিষয়টি তাঁর গোচরে নেই, কারণ তিনি সদ্য দায়িত্ব নিয়েছেন। তবে ভুল শব্দের কারণেই তিলককে এভাবে ব্যাখ্যা করা হয়েছে বলেই মনে করছেন অনেকে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে