BREAKING NEWS

৭ কার্তিক  ১৪২৮  সোমবার ২৫ অক্টোবর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

সাজাপ্রাপ্তদের ভোটে লড়ার ব্যাপারে কেন্দ্রের পরামর্শ চাইল সুপ্রিম কোর্ট

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: March 24, 2017 9:53 am|    Updated: March 24, 2017 9:53 am

SC asks Centre's opinion on banning convicts from contesting polls

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: জেল খেটেছেন অথবা একাধিক মামলা রয়েছে। তবুও ভোটে লড়ছেন এমনকী জিতেও যাচ্ছেন রাজনৈতিক নেতারা। আর এই নিয়ে সাধারণ মানুষের অভিযোগ বহুদিনের। অবশেষে সেই প্রথা বন্ধে উদ্যোগ নিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। ২ বছর বা তার বেশি সাজাপ্রাপ্ত কোনও ব্যক্তি আজীবন ভোটে লড়তে পারবে না। সুপ্রিম কোর্টের এই সুপারিশে দিন কয়েক আগেই সম্মতি জানিয়েছিল কেন্দ্রীয় নির্বাচন কমিশন। এবার শীর্ষ আদালত এই প্রসঙ্গে কেন্দ্রের মতামত জানতে চেয়েছে। এজন্য কেন্দ্রকে সাতদিনের সময়সীমা দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। এই সময়ের মধ্যেই কেন্দ্রকে তার মতামত জানাতে হবে। আগামী ১৮ এপ্রিল এই মামলার পরবর্তী শুনানি হবে।

[জাতপাত নয়, আর্থ-সামাজিক মানদণ্ডেই হবে সংরক্ষণ]

জনস্বার্থ এই মামলা দায়ের করেছিলেন অশ্বিনীকুমার উপাধ্যায়৷ দিল্লি বিজেপির মুখপাত্র তিনি৷ দেশের রাজনীতিতে দুর্নীতি ও ক্রিমিনাল কেসে অভিযুক্তদের সংখ্যা বেড়ে যাওয়া নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন তিনি৷ এর প্রতিকার চেয়েই আদালতে পিটিশন দাখিল করেছিলেন৷ বর্তমানে সাজাপ্রাপ্ত ব্যক্তিরা ছয় বছরের নির্বাসনের পর ফের রাজনীতিতে ফিরতে পারেন৷ কোনও দলের প্রতিনিধিত্ব করে কিংবা দল গঠন করে নির্বাচনে লড়তেও পারেন৷ কিন্তু এই নিয়মে পরিবর্তন চেয়েছেন অশ্বিনী কুমার৷ সাজাপ্রাপ্তদের আজীবন রাজনীতি থেকে নির্বাসন চান তিনি৷

[আজিনামোটো, ধাতব রং ব্যবহার করায় চায়না টাউনে সতর্কিত ৩০ রেস্তোরাঁ]

সূত্র থেকে জানা গিয়েছে, দেশের প্রায় ৩৪ শতাংশ সাংসদই একাধিক অপরাধে অভিযুক্ত৷ যার মধ্যে ২৫ শতাংশের বিরুদ্ধেই আবার খুন, ধর্ষণ, রাহাজানির মতো মামলা রয়েছে৷ সেই কারণেই এ বিষয়ে কমিশন ও সরকারের মতামত জানতে চায় শীর্ষ আদালত৷ নির্বাচন কমিশন নিষেধাজ্ঞার পক্ষে মতামত জানালেও কেন্দ্রের সিদ্ধান্ত এখনও জানা যায়নি৷

[ফের পরমাণু বোমা পরীক্ষা করতে পারেন কিম, আশঙ্কা দক্ষিণ কোরিয়ার]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement