BREAKING NEWS

১২ কার্তিক  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২৯ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

আচমকা ফড়ণবিসের সঙ্গে দেখা শিব সেনা নেতা সঞ্জয় রাউতের, জল্পনা রাজনৈতিক মহলে

Published by: Paramita Paul |    Posted: September 27, 2020 5:36 pm|    Updated: October 1, 2020 2:27 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সুশান্ত-কঙ্গনা বিতর্কের জেরে শিব সেনার (Shiv Sena) সঙ্গে বিজেপির আপাতত সাপে-নেউলে সম্পর্ক। এমন পরিস্থিতিতেই মহারাষ্ট্রের বিরোধী দলনেতা তথা বিজেপি নেতা দেবেন্দ্র ফড়ণবিসের সঙ্গে দেখা করলেন শিব সেনার অন্যতম মুখ সঞ্জয় রাউত। যা নিয়ে ইতিমধ্যে নানারকম জল্পনা তৈরি হয়েছে। তবে দুজনই সেই বিতর্কে জল ঢেলে দাবি করেছেন, তাঁদের সাক্ষাতের সঙ্গে রাজনীতির কোনও যোগ নেই।

গত বছর বিধানসভা নির্বাচনের পরই ফড়ণবিসকে (Devendra Fadanavis) দুষে জোট ভেঙেছিল শিব সেনা। কংগ্রেস-এনসিপির সমর্থনে মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রীর কুরসিতে বসেছেন উদ্ধব ঠাকরে। এরপর থেকেই এককালের জোটসঙ্গী শিব সেনা বিজেপির বিরুদ্ধে ক্রমাগত আক্রমণ শানিয়েছে। পিছিয়ে নেই গেরুয়া শিবিরও। তবে কঙ্গনা ও সুশান্তের ইস্যুতে পরিস্থিতি আরও জটিল হয়ছে। এমন পরিস্থিতিতে শনিবার মুম্বইয়ের একটি বিলাসবহুল হোটেল দেখা করেন শিব সেনার সঞ্জয় রাউত ও বিজেপির দেবেন্দ্র ফড়ণবিস। দুজনের মধ্যে প্রায় দু’ঘণ্টার বৈঠকও হয়। এরপর থেকে মহারাষ্ট্রে নতুন রাজনৈতিক সমীকরণের জল্পনা মাথাচাড়া দিয়েছে।

[আরও পড়ুন : পুলিশের বড় পদ ছেড়ে সোজা রাজনীতি, নীতীশের দলে যোগ দিলেন বিহারের প্রাক্তন DGP]

যদিও শিবসেনার মুখপাত্র সমনার কার্যনির্বাহী সম্পাদক তথা শিব সেনা সাংসদ সঞ্জয় রাউত সমস্ত জল্পনা উড়িয়ে বলেন, “কয়েকটি বিষয় নিয়ে আলোচনার জন্য দেবেন্দ্র ফড়ণবিসের সঙ্গে দেখা করেছিলাম। উনি প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী, উনি বিরোধী দলনেতা এবং বিহার নির্বাচনে বিজেপির দায়িত্বে আছেন। মতাদর্শ নিয়ে আমাদের মধ্যে বিভেদ থাকতে পারে। তবে আমরা শত্রু নই।” একইসঙ্গে তাঁর প্রশ্ন, “ফড়ণবিসের সঙ্গে দেখা করা কি কোনও অপরাধ?” তিনি আরও জানান, “যখন শরদ পাওয়ারের সাক্ষাৎকার নিয়েছিলাম, তখনই ঘোষণা করেছিলাম যে আমি ফড়ণবিস, রাহুল গান্ধী এবং অমিত শাহের সাক্ষাৎকারের পরিকল্পনা করেছি।”

[আরও পড়ুন : শ্রীকৃষ্ণ জন্মভূমি বিতর্কের তো সমাধান হয়ে গিয়েছে, আবার কেন উত্থাপন? প্রশ্ন ওয়েইসির]

একই দাবি করেছেন বিজেপি নেতা ফড়ণবিসও। বলেন, “শিবসেনার মুখপত্র সামনার জন্য সঞ্জয় রাউত আমার সাক্ষাৎকার নিতে চেয়েছিলেন। সেই বিষয়ে বৈঠক হয়েছে। কোনও রাজনৈতিক আলোচনা হয়নি।” প্রসঙ্গত, বিভিন্ন ইস্যুতে জোট শরিকদের সঙ্গে দূরত্ব বাড়ছে বিজেপির। কৃষি বিল ইস্যুতে দু’দশকের পুরনো জোট ভেঙেছে অকালি দল। এমন পরিস্থিতিতে কি ফের পুরনো সঙ্গীকে পাশে চাইছে বিজেপি? এদিনের বৈঠকের পর তা নিয়ে তীব্র জল্পনা শুরু হয়েছে। মজার কথা হল লোকসভায় এই কৃষি বিলগুলিকে সমর্থন করেছিল শিব সেনা। 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement