৩০ আশ্বিন  ১৪২৬  শুক্রবার ১৮ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পেরিয়ে গিয়েছে রোড ডে, প্রমিস ডে, প্রোপোজ ডে। তো কী হয়েছে? ভ্যালেন্টাইন ডে-তেই পাকাপাকি বন্ধুত্ব তৈরির বার্তা দিতে চলেছেন বুয়া-ভাতিজা। কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়াঙ্কা গান্ধীকে দিতে চলা এই ভ্যালেন্টাইন বার্তা আগামী দিনে উত্তরপ্রদেশ তথা ভারতের রাজনীতিতে নয়া সমীকরণের সূচনা করতে চলেছে বলে রাজনৈতিক মহলের মত। সূত্রের খবর, কংগ্রেসের সঙ্গে ‘মহাজোট’ গড়তে চেয়ে ফের ‘প্রস্তাব’ পাঠাতে চলেছে সমাজবাদী পার্টি-বহুজন সমাজ পার্টি। সেক্ষেত্রে ভ্যালেন্টাইনস ডে-র মতো ভালবাসার পবিত্র দিনটিকেই ‘ঘনিষ্ঠ বন্ধুত্বে’র প্রস্তাব পাঠানোর দিন হিসাবে বেছে নিতে পারেন বুয়া-ভাতিজা জুটি।

লোকসভা ভোটে কংগ্রেসকে কিছুতেই জোটে নেওয়া হবে না বলেই আলাদা জোট গড়েছিলেন মায়াবতী-অখিলেশরা। কিন্তু সোমবার প্রিয়াঙ্কার রোড শোর পর বয়কটের সিদ্ধান্ত থেকে ১৮০ ডিগ্রি ঘুরে গিয়ে কংগ্রেসকে মহাজোটে শামিল হওয়ার প্রস্তাব দিতে চলেছে সপা-বসপা। সোমবার লখনউতে রীতিমতো চমক দিলেন প্রিয়াঙ্কা। অতি বড় কংগ্রেস সমর্থকরাও ভাবেননি ইন্দিরার নাতনি এসে এমন চমক দিতে পারেন। ফলে কংগ্রেস সমর্থকরা যখন উত্তরপ্রদেশে ঘুরে দাঁড়ানোর আশায় বুক বাঁধছেন তখন ‘অন্য অঙ্ক’ শুরু হয়ে যায় বিজেপি বিরোধী শিবিরে।

[“এই ইভিএমে ভোট হলে লন্ডনেও ফুটবে পদ্ম”, শিব সেনার নয়া কটাক্ষ]

প্রায় ৩০ কিমি দীর্ঘ রোড শো দিয়েই তাঁর রাজনৈতিক ক্যারিয়ারের জনসংযোগ শুরু করলেন প্রিয়াঙ্কা। একই দিনে আত্মপ্রকাশ করলেন টুইটারেও। সোমবার কয়েক পা এগোতে না এগোতেই অস্বাভাবিক ভিড়ে অবরুদ্ধ হয়ে পড়ে রোড শো। কারণ তাতে যোগ দিতে আছড়ে পড়েন লক্ষাধিক উদ্বেলিত জনতা। সবাই একবারের জন্য প্রিয়াঙ্কার হাত ছুঁতে চান। একবার তাঁকে দেখতে চান। এককথায় রোড শো ছিল সুপারহিট। প্রিয়াঙ্কার রোড শোয়ে লক্ষ লক্ষ মানুষের ভিড় আছড়ে পড়তেই বিজেপি বিরোধী জোট ‘সপা-বসপা’ আশার আলো দেখতে শুরু করেছে। তাদের চিন্তায় এখন মহাজোটের ভাবনা। প্রিয়াঙ্কার প্রতি জনতার এই ভালবাসা, এই জনপ্রিয়তা ও ভিড়কে ইভিএমে বিজেপির বিরুদ্ধে আনতে পারলেই ধূলিসাৎ করে দেওয়া যাবে গেরুয়া শিবিরের দুর্গ।

[টুইটারে ভারতের দ্রুততম ট্রেনের ‘নকল’ ভিডিও পোস্ট, বিতর্কে রেলমন্ত্রী]

ভাতিজা (ভাইপো) ও বুয়া (পিসি) শিবিরের বক্তব্য হল, ‘হাত’ ধরেই ‘হাতি’ ‘সাইকেল’ চালাক। তৈরি হোক মহাজোট। উপড়ে ফেলুক ‘পদ্ম’কে। প্রিয়াঙ্কার রোড শো দেখেই চাঙ্গা হয় দুই শিবির। বিজেপিকে উত্তরপ্রদেশ থেকে উৎখাত করার জন্য মহাজোটের ভাবনা ছড়িয়ে পড়ে অখিলেশ এবং মায়াবতীর দলে। সেইমতো সক্রিয় হন দুই শিবিরেরই শীর্ষ নেতৃত্ব। সূত্রের খবর, খুব শীঘ্রই কংগ্রেসের কাছে ‘বিজেপি বিরোধী মহাজোট’ গঠনের প্রস্তাব পাঠাতে চলেছে সপা-বসপা। আগে যেখানে কংগ্রেসের জন্য মাত্র দুটি আসন ছাড়া হয়েছিল, সেখানে এবার তাদের জন্য ১৪-১৫ টি আসনও ছেড়ে দিতে পারে সপা-বসপা। কিন্তু তাতে কংগ্রেস রাজি হবে কিনা, সেটাই এখন দেখার।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং