১১ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  রবিবার ২৮ নভেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

১১ ঘণ্টা ক্লাস, একগাদা হোমওয়ার্কের প্রতিবাদে ধরনায় পড়ুয়ারা

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: November 12, 2017 5:55 am|    Updated: September 24, 2019 5:40 pm

Students of a private school in Hyderabad staged a protest against the long class hours

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলিতে পড়াশোনার পরিবেশ নিয়ে অভিযোগের শেষ নেই। মাঝেমধ্যেই খবর পাওয়া যায় স্কুলে নেই পর্যাপ্ত সংখ্যক শিক্ষক। আর তাই পড়াশোনা বা ক্লাস ঠিক মতো হচ্ছে না। কিন্তু কখনও কি শোনা যায়, অতিরিক্ত সময় ক্লাস করানোর জন্য স্কুলের সামনে ধরনায় বসেছে খোদ পড়ুয়ারা। অবিশ্বাস্য মনে হলেও এমনই কারণে বিতর্কে জড়িয়েছে হায়দরাবাদের গোথাম মডেল স্কুল। চৈতন্যপুরিতে অবস্থিত এই স্কুল সাক্ষী থাকল এক অভিনব বিক্ষোভের। স্কুলে অতিরিক্ত সময় পড়ানো হচ্ছে, এই অভিযোগে শনিবার স্কুলের সামনেই  ধরনায় বসল পড়ুয়াদের একাংশ। স্কুলের সময় কমাতে হবে, এই দাবিতে স্কুল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ দেখাতে থাকে তারা।

[ইন্টারনেটে জঙ্গি মতাদর্শ প্রচার রুখতে কেন্দ্রের দুটি নতুন বিভাগ]

জানা গিয়েছে, সকাল সাড়ে ৬ টা থেকে শুরু করে সন্ধ্যে সাড়ে ৬ টা পর্যন্ত স্কুল চলে। এখানেই শেষ নয়, এরপর থাকে হোমওয়ার্কের বোঝা। যার জেরে দৈনন্দিন ঘুমের সময়টুকুও পায় না পড়ুয়ারা। অভিযোগ, দীর্ঘদিন ধরে স্কুলের সময়সীমা কমানোর কথা বললেও তাতে কর্ণপাত করেনি স্কুল কর্তৃপক্ষ। আর তাই বিক্ষোভের পথই বেছে নেয় পড়ুয়ারা। ঘটনার কথা প্রকাশ্যে আসার পরই ছড়িয়েছে উত্তেজনা।

[পরমাণু যুদ্ধের জন্য ব্যাকুল ট্রাম্প, কটাক্ষ কিমের]

রোহিত নামে স্কুলের এক পড়ুয়া সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছে, জোর করে তাদের ১১ ঘণ্টা ক্লাস করানো হয়। পাশাপাশি দেওয়া হয় একগাদা হোমওয়ার্ক। তার কথায়, ‘আমাদের ভোর সাড়ে পাঁচটায় উঠতে হয়। স্কুল শুরু হয় সাড়ে ছ’টায়। অন্যান্য স্কুল যেখানে সকাল ৮ টা থেকে বিকেল ৪.৩০-৫টা পর্যন্ত ক্লাস করায়, সেখানে আমাদের সন্ধ্যে সাড়ে ৬টা পর্যন্ত ক্লাস করতে হয়। এরপর আমাদের পড়তে যেতে হয়। তারপর একগাদা হোমওয়ার্ক থাকে। যার জন্য রাত সাড়ে ১১ টার আগে ঘুমাতে পারি না। ঠিকমতো ঘুমটুকুও হয় না। তাই আমরা চাই স্কুল কর্তৃপক্ষ স্কুলের সময় কমিয়ে দিক।’ এখানেই শেষ নয়, স্কুলের বিরুদ্ধে অতিরিক্ত টিউশন ফি বাবদ অতিরিক্ত অর্থ নেওয়ার অভিযোগও উঠেছে। যদিও স্কুল কর্তৃপক্ষ এই কোনও অভিযোগ নিয়েই মুখ খোলেনি।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে