BREAKING NEWS

১০  আশ্বিন  ১৪২৯  শনিবার ১ অক্টোবর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

কাঁওর যাত্রার ‘শাস্তি’, মসজিদের মধ্যে পেটানো হল মুসলিম যুবককে

Published by: Bishakha Pal |    Posted: August 13, 2018 9:12 pm|    Updated: August 13, 2018 9:12 pm

UP: Muslim man attacked in mosque for bringing kanwar

ছবি: প্রতীকী

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মসজিদের মধ্যে পেটানো হল এক মুসলিম যুবককে। শুক্রবার যখন তিনি নমাজ পড়তে যান, তখন তাঁকে পেটানো হয় বলে অভিযোগ। অপরাধ তাঁর একটাই। তিনি হরিদ্বারে কাঁওর যাত্রায় অংশ নিয়েছিলেন। আর সেখান থেকে গঙ্গাজলও নিয়ে এসেছিলেন তিনি।

ঘটনাটি ঘটেছে মেরঠের বিনাউলি থানার রানচাঁদ গ্রামে। সেই গ্রামের কৃষক বাবু খান কাঁওর যাত্রায় অংশ নেন। বৃহস্পতিবার তিনি নিজের গ্রামে ফিরে আসেন। তখন থেকেই তিনি বুঝতে পারেন গ্রামের কয়েকজন তাঁর উপর ক্ষুব্ধ। তবু সেদিনটা নিরুপদ্রবেই কাটে। কিন্তু দুর্ঘটনা ঘটে পরের দিন। শুক্রবার তিনি যখন মসজিদে নমাজ পড়তে যান, তাঁকে হেনস্তা করা হয় ও তাঁর উপর হামলা হয়।

সুখবর, এবার রেলে আরপিএফ নিয়োগে ৫০ শতাংশ সংরক্ষণের আওতায় মহিলারা ]

খান জানিয়েছেন, তিনি শুধু অভিজ্ঞতা সঞ্চয় করার জন্যই কাঁওর যাত্রায় অংশ নিয়েছিলেন। আর কোনও অভিপ্রায় তাঁর ছিল না। হরিদ্বার থেকে জল নিয়ে সারা রাস্তা হাঁটার অভিজ্ঞতা কেমন, তা তিনি জানতে চেয়েছিলেন। তিনি তো বাঘপতের পুরা মহাদেব মন্দিরেও গিয়েছিলেন। সেখানেও তাঁকে গঙ্গাজল নেওয়ার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল। এর মধ্যে তিনি কোনও ভুল দেখতে পান না। তিনি একজন ধর্মপ্রাণ মুসলিম। কিন্তু এবারের অভিজ্ঞতা ভয়ঙ্কর। শুক্রবার রাতে তাঁর উপর হামলা চালানো হয় বলে অভিযোগ জানান তিনি। সৌভাগ্যক্রমে তিনি পালিয়ে বাঁচেন।

শুক্রবার বাবু খান যখন মসজিদে প্রবেশ করেন তার বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ ওঠে। গ্রামবাসী হারুন আহমেদ বলেছেন, বাবু যা করেছেন, তা তাঁরা সমর্থন করতে পারেন না। বাবু খানকে হেনস্তার কথা অস্বীকার করেননি তাঁরা। তবে তাদের বক্তব্য অন্য। তাঁদের বক্তব্য, কাঁওর যাত্রায় অংশ নেওয়ার জন্য বাবুকে পেটানো হয়নি। তিনি নাকি মদ্যপ ছিলেন। সেই অবস্থায় মসজিদে এসেছিলেন। সেই কারণে তাঁকে পেটানো হয়। বাবু যাত্রার কথা তুলেছেন শুধু সমবেদনা পাওয়ার জন্য। এর পিছনে আর কোনও কারণ নেই।

সংসদীয় গণতন্ত্রকে সমৃদ্ধ করেছেন সোমনাথ, টুইটারে শোকপ্রকাশ মোদি-মমতার ]

গ্রামের প্রধান শর্মিলী দেবীর স্বামী দেবেন্দ্র সিং বলেছেন, তিনি বাবু খান ও তাঁর সম্প্রদায়ের বিক্ষুব্ধ লোকেদের মধ্যে সমস্যা মিটিয়ে ফেলার চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু বিষয়টি একান্তই ধর্মীয়। বাবু খান মন্দিরে যান ও কাঁওর যাত্রায় অংশ নিয়েছিলেন। তাই তাঁর সম্প্রদায়ের অন্যরা তাঁর উপর ক্ষুব্ধ হন। ঘটনাটি নিয়ে বিনোলি থানায় অভিযোগ দায়ের হয়েছে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।    

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে