২ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

বরদাস্ত করা হবে না ‘ড্রাগনের’ আস্ফালন, সাফ কথা মোদির

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: January 10, 2018 4:37 am|    Updated: January 10, 2018 4:37 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: খুব শীঘ্রই অরুণাচল প্রদেশ সফরে যাবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এর আগে ২০১৫-য় তিনি প্রথমবার অরুণাচলে গিয়েছিলেন। যা নিয়ে কড়া আপত্তি জানিয়েছিল চিন। শুধু মোদির আমলেই নয়, ইউপিএ জমানাতেও কেন্দ্রীয় নেতা-মন্ত্রীরা অরুণাচলে গেলেই চিনের তরফে আপত্তি উঠত। তাই এবার আপত্তি তোলার আগেই চিনকে কড়া বার্তা দিলেন প্রধানমন্ত্রী। জানিয়ে দিলেন, ভারত কখনও অন্যের ভূখণ্ডে নজর দেয় না। নাম করলেন না ঠিকই, কিন্তু তাঁর এই বার্তা যে চিনকে লক্ষ্য করেই, তা বলার অপেক্ষা রাখে না।

[মোদি সরকারের প্রশংসায় বিশ্ব ব্যাঙ্ক, আর্থিক বৃদ্ধি বাড়ার পূর্বাভাস]

চিন যতই দাবি করুক, অরুণাচল প্রদেশকে ভারতেরই অবিচ্ছেদ্য অংশ বলেই নয়াদিল্লি মনে করে। সেই বার্তা বহুবারই নানাভাবে চিনকে দিয়ে এসেছে মোদি সরকার৷ তাতেও খুব একটা লাভ হয়নি। তাই অরুণাচল সফরে যাওয়ার আগে ফের চিনকে নিজমুখেই বার্তা দেওয়ার কাজ সেরে রাখলেন মোদি। অরুণাচল নিয়ে চিনের আচরণ ভারত যে মোটেই বরদাস্ত করবে না, প্রয়োজনে বিষয়টি তারা বিশ্বের দরবারেও তুলে ধরতে পারে সেই ইঙ্গিতও মঙ্গলবার মোদি ভালোভাবে দিয়েছেন বলে মনে করছেন কূটনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

ভারত কখনও অন্যের ভূখণ্ডে নজর দেয় না বলে মন্তব্য করে মোদি কার্যত এদিন চিনকে অরুণাচল থেকে নজর সরানোর পরামর্শ দিয়েছেন। দিল্লিতে প্রথম প্রবাসী ভারতীয় সাংসদদের সম্মেলনে বলেন, “অন্য দেশের সম্পদ ও ভূখণ্ডে নজর দেওয়ার কোনও উদ্দেশ্য নেই ভারতের। সম্পর্কের ভিতের ক্ষেত্রে লাভ-ক্ষতি নয় বরং মানবিকতাকেই প্রাধান্য দেওয়া হয়। ভারত সবসময়ই বিশ্বের দরবারে গঠনমূলক ভূমিকা পালন করেছে।” বিশ্বের প্রায় ২৩টি দেশের প্রতিনিধিদের সামনে প্রধানমন্ত্রীর এহেন বক্তব্য তাত্পর্যপূর্ণ বলেই মনে করছেন সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞরা।

সম্প্রতি অরুণাচল প্রদেশে সীমান্তের ভিতর দশ থেকে বারো কিলোমিটার ঢুকে পড়েছিল চিন। তা নিয়ে চাপানউতোর চলার পরে চিনা সৈন্যরা সরে গিয়েছে। চলতি সপ্তাহেই সেনাপ্রধান বিপিন রাওয়াত সীমান্তবিবাদ মিটে গিয়েছে বলে জানিয়েছেন। তবে পরিস্হিতি যে একেবারে স্বাভাবিক হয়ে গিয়েছে, তা বলার সময় এখনও আসেনি বলেই মনে করা হচ্ছে। চিন ফের অরুণাচল নিয়ে যাতে কোনও বিতর্ক সৃষ্টি না করে, তাই আগেভাগেই এই বার্তা দেওয়া হল বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞ মহল। এদিনের সম্মেলনে মোদি প্রবাসী ভারতীয় সাংসদদের প্রভূত প্রশংসা করেন। বিশ্বব্যাপী ভারতের ক্রমবর্ধমান শক্তি নিয়ে প্রবাসী সাংসদরাও গর্ব অনুভব করতে পারেন বলে তিনি মন্তব্য করেন। ভারতের উন্নতিতে তাঁদের সকলকে অনুঘটক হিসাবে কাজ করার জন্য মোদী আহ্বান জানান।

[পার্লামেন্টের মধ্যে নীলছবিতে মগ্ন ব্রিটিশ সাংসদরা, বিড়ম্বনায় প্রধানমন্ত্রী টেরেসা মে]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement