৩ ভাদ্র  ১৪২৬  বুধবার ২১ আগস্ট ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: প্রতিবেশীর সঙ্গে মন দেওয়া-নেওয়া নতুন ঘটনা নয়। কিন্তু তা যদি আপত্তিকর পরিস্থিতিতে পৌঁছে যায়, তখনই ঘটে বিপত্তি। আর সেই যুবতী যদি বিবাহিত হন, তাহলে তো কথাই নেই। তেমনই ঘটনায় শাস্তি পেল যুবক। শালীনতার মাত্রা ছাড়িয়ে বিবাহিত মহিলাকে ফ্লায়িং কিস দিয়েছিল সেই যুবক। পরিণতি যে এমন মারাত্মক হবে, তা হয়তো আন্দাজও করতে পারেনি সে। হেনস্তার অভিযোগে সোজা শ্রীঘরে যেতে হল তাকে।

[আরও পড়ুন: উন্নাও ধর্ষণকাণ্ডে নির্যাতিতার বাবাকে খুনের অভিযোগ, চার্জ গঠন কুলদীপের বিরুদ্ধে]

ঘটনা মোহালির ফেজ এগারোর। পুলিশ সূত্রে খবর, অভিযুক্ত যুবকের নাম বিনোদ। সে যে আবাসনে থাকে, সেই আবাসনেই বাস অভিযোগকারিনীর। স্বামীর সঙ্গে একটি ফ্ল্যাটে থাকেন তিনি। বিল্ডিংয়ের একেবারে উপরের তলায় ফ্ল্যাট বিনোদের। অভিযোগ, যেতে আসতে মাঝেমধ্যেই যুবতীকে দেখে আপত্তিকর মন্তব্য করত সে। স্বামীর চোখ এড়িয়ে অশালীন ইঙ্গিতও করত। এমনকী বিবাহিত মহিলাকে দূর থেকে চুমুও দেয় বিনোদ। তার এমন আচরণে বিরক্ত হয়ে গোটা ঘটনা স্বামীকে জানান যুবতী। তারপর দু’জনে ফেজ ১১ থানায় বিনোদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগের ভিত্তিতে যুবককে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। মোহালির একটি আদালতে তোলা হলে তাকে তিন বছরের জেল এবং তিন হাজার টাকা জরিমানার নির্দেশ দেন বিচারক।

যদিও গোটা ঘটনা অস্বীকার করেছে ওই যুবক। তার পালটা দাবি, ওই দম্পতি তাকে মারধর করেছেন। এনিয়ে থানায় অভিযোগও জানায় সে। কিন্তু যুবকের অভিযোগের পক্ষে কোনও প্রমাণ পায়নি পুলিশ। নিজেকে শাস্তির হাত থেকে রক্ষা করতেই এমনটা করে থাকতে পারে সে বলে মনে করা হচ্ছে।

[আরও পড়ুন: স্বাধীনতা দিবসের আগেই এনআইএ’র জালে খাগড়াগড়ের মূল চক্রী, মধ্যপ্রদেশ থেকে গ্রেপ্তার]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং