২৪  মাঘ  ১৪২৯  বুধবার ৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ 

READ IN APP

Advertisement

ছেলেধরা সন্দেহে শহরে জোড়া গণপিটুনি, উদ্বিগ্ন প্রশাসন

Published by: Tanumoy Ghosal |    Posted: February 18, 2019 12:27 pm|    Updated: February 18, 2019 12:29 pm

2 incidents of lynching in City

কলহার মুখোপাধ্যায় ও অর্ণব আইচ: এক রাতে শহরে দুটি গণপিটুনির ঘটনা ঘটল। একটি টালিগঞ্জে, অপরটি আনন্দপুরের পশ্চিম চৌবাগায়। শিশুচুরির অভিযোগে গণপিটুনির শিকার হলেন এক যুবক ও এক যুবতী। দু’জনেই ভরতি হাসপাতালে।

[পুলিশ ভ্যান থেকে বোমারু মিজানকে ছিনিয়ে নেওয়ার ছক বানচাল করল STF ]

শিশুচুরির গুজবে আতঙ্ক ছড়িয়েছে দক্ষিণ ২৪ পরগনায়। বারুইপুর, লক্ষ্মীকান্তপুর, মগরা, আমতলা, বিষ্ণুপুরে গণপিটুনির ঘটনা ঘটেছে। আর এবার সেই ঘটনার আঁচ পৌঁছল খাস কলকাতায়। শহর জুড়ে একের এক গণপিটুনির ঘটনা উদ্বেগ বাড়ছে প্রশাসনের। দিন কয়েক আগে ট্যাংরায় গণপিটুনির শিকার হয়েছিলেন ভিন রাজ্যের দুই ব্যক্তি। আর রবিবার রাতে একই ঘটনা ঘটল টালিগঞ্জ ও আনন্দপুরের পশ্চিম চৌবাগায়।

টালিগঞ্জের ঘটনার সূত্রপাত রাত সাড়ে ন’টা নাগাদ। শ্রীমোহন লেনে বাড়ির সামনেই খেলা করছিল বছর সাতেকের এক বালিকা। পরিবারের লোকেদের অভিযোগ, এক অচেনা মহিলা ইশারায় ওই বালিকাকে ডেকে সঙ্গে নিয়ে পালানোর চেষ্টা করে। ঘটনার নজরে আসতেই ওই তরুণীকে আটকানো হয়। ল্যাম্পপোস্টে বেঁধে তাকে স্থানীয় বাসিন্দারা বেধড়ক মারধর করেন বলে অভিযোগ। স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি, আক্রান্ত তরুণীর মাথা ও শরীরের বিভিন্ন অংশে ব্লেড ও কাঁটা লাগানো ছিল। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় টালিগঞ্জ থানার পুলিশ। আক্রান্তকে উদ্ধার করে নিয়ে যাওয়া হয় থানায়। পুলিশ জানিয়েছে, ওই তরুণী কড়েয়া এলাকার বাসিন্দা। এদিকে আনন্দপুরের পশ্চিম চৌবাগায় এলাকায়ও রবিবার রাতে গণপিটুনি শিকার হয়েছেন এক যুবক। স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি, রাতে ধারালো অস্ত্র নিয়ে এলাকার সন্দেহজনকভাবে ঘোরাফেরা করছিল তিনজন যুবক। ধাওয়া করলে দুই পালিয়ে যায়, একজন ধরা পড়ে যায়। ছেলেধরা সন্দেহে তাঁকে বেধড়ক মারধর করতে শুরু করেন স্থানীয় বাসিন্দারা। কিন্তু সময়মতো পুলিশ চলে আসায় প্রাণে বেঁচে যান আক্রান্ত যুবক। তিনি ভরতি হাসপাতালে। পরপর এমন অযাচিত ঘটনা উদ্বেগ বাড়ছে  প্রশাসনের। পুলিশকে যথাযথ নজরদারির নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

[ কলকাতায় ছড়িয়ে জইশের জাল! কোথায় গেল শিয়ালদহের ‘চাচা’?]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে