BREAKING NEWS

২৮ আশ্বিন  ১৪২৭  শুক্রবার ২৩ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

বলবিন্দর সিংয়ের সঙ্গে ‘অমানবিক’ আচরণ করেছে রাজ্য পুলিশ, ফের টুইট ধনকড়ের

Published by: Sayani Sen |    Posted: October 12, 2020 12:54 pm|    Updated: October 12, 2020 12:54 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দিনভর তাণ্ডবের পরেও নবান্নে পৌঁছতে পারেনি বিজেপির মিছিল। যদিও গেরুয়া শিবিরের দাবি, তাদের অভিযান যথেষ্ট সফল। হাওড়া ময়দানের সেই মিছিল থেকে উদ্ধার হয়েছে আগ্নেয়াস্ত্র। যা নিয়ে আপাতত সরগরম রাজ্য রাজনীতি। এই ইস্যুতেই এবার রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে একহাত নিলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড় (Jagdeep Dhankhar)।

সোমবার ফের দু’টি টুইট করেন রাজ্যপাল। রাজ্য পুলিশ এবং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ট্যাগ করা ওই টুইটে বলবিন্দর সিংয়ের (Balwinder Singh) প্রসঙ্গ উল্লেখ করেন তিনি। তার সঙ্গে কার্যত অমানবিক আচরণ করা হয়েছে বলেও তোপ দাগেন ধনকড়। এছাড়া আরেকটি টুইটে জালিয়ানওয়ালাবাগ হত্যাকাণ্ড এবং রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের নাইট উপাধি ত্যাগের প্রসঙ্গ টেনে আনেন রাজ্যের সাংবিধানিক প্রধান। বিশ্বকবির কথা অনুযায়ী মাথা তুলে চলার কথাও উল্লেখ করেন তিনি। নিজেকে বদলানোর সময় এসেছে বলেও টুইটে খোঁচা জগদীপ ধনকড়ের।

[আরও পড়ুন: হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে রোগীর আত্মীয়দের হাতাহাতি, রণক্ষেত্র নার্সিংহোম, লাঠিচার্জ পুলিশের]

বলবিন্দর সিংয়ের গ্রেপ্তারি নিয়ে রাজ্য প্রশাসনের সঙ্গে গেরুয়া শিবিরের তরজা লেগেই রয়েছে। বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh) দিনদুয়েক আগে দাবি করেন শিখ সম্প্রদায়ের মানুষ বলেই বলবিন্দরকে হেনস্তা করতে পেরেছে পুলিশ। তবে ‘গোল টুপি’ পরা কারোর সঙ্গে এ কাজ করতে পারতেন না উর্দিধারীরা। যদিও রবিবার রাজ্যের স্বরাষ্ট্রদপ্তরের তরফে টুইটে এই ঘটনার সমালোচনার পালটা জবাব দেওয়া হয়। অভিযোগ, ঘটনাকে সাম্প্রদায়িকতার রং দিয়ে একটা নির্দিষ্ট রাজনৈতিক দল রাজ্যের শান্তি বিঘ্নিত করার চেষ্টা করছে। এদিকে, রবিবারই বলবিন্দরের সঙ্গে পুলিশের এই আচরণের প্রতিবাদে রাজ্যপালের দ্বারস্থ হয় শিখ গুরুদ্বার ম্যানেজমেন্ট কমিটি। তাঁদের সঙ্গে কথা বলেন রাজ্যপাল ধনকড়। এরপর বিষয়টি নিয়ে টুইট করে তিনি তীব্র প্রতিবাদ জানান। টুইটারে লেখেন, এমনটা কোনও সভ্য দেশে হয় না। সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ অমান্য করা হয়েছে বলেও অভিযোগ তাঁর। রবিবারের পর সোমবারও বলবিন্দর ইস্যুতে টুইটে রাজ্য পুলিশ এবং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কটাক্ষ করেন ধনকড়।

[আরও পড়ুন: কোভিডকে হারিয়ে সুস্থতার পর কেমন হবে দৈনন্দিন জীবন? বিনামূল্যে পরামর্শ দিলেন চিকিৎসকরা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement