BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

বাড়ি থেকে উধাও করোনা আক্রান্ত যুবক, পরিজন ও প্রতিবেশীদের সংঘর্ষে রণক্ষেত্র চিৎপুর

Published by: Sayani Sen |    Posted: July 9, 2020 8:51 am|    Updated: July 9, 2020 8:56 am

An Images

অর্ণব আইচ: বাড়ি থেকে পালালেন করোনা (Coronavirus) রোগী। আর তা নিয়েই হুলুস্থুল এলাকায়। কোথায় পালিয়েছেন যুবক, তা জানেন না কেউই। এমনকী, বাড়ির লোকেরাও প্রতিবেশীদের জানিয়েছেন, তাঁরাও কিছু জানেন না। আর তা নিয়েই গণ্ডগোল। শেষ পর্যন্ত বিষয়টি নিয়ে প্রতিবেশীদের মধ্যে মারপিট ও সংঘর্ষ হয়। এই ঘটনায় কয়েকজন আহত হয়েছেন। তাঁদের মধ্যে একজনের অবস্থা গুরুতর। তাঁকে আরজি কর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর কলকাতার দমদম রোডে। চিৎপুর (Chitpur) থানার পুলিশ চারজনকে আটক করেছে।

পুলিশ জানিয়েছে, দমদম রোডের উপর একটি বসতির বাসিন্দা ওই যুবক। তিনি এক চিকিৎসকের গাড়ির চালক। গত সোমবার পরীক্ষায় তাঁর করোনা ধরা পড়ে। প্রতিবেশীদের অভিযোগ, এরপরও ওই যুবক এলাকায় ঘোরাঘুরি করছিলেন। অন্যদের সঙ্গে কথাও বলেছিলেন। প্রতিবেশীরা তাঁকে বোঝাতে শুরু করেন। কিন্তু তাতেও কর্ণপাত করেননি যুবক। তখন এলাকার পুরকর্মীরা তাঁকে বলেন, তাঁরাই তাকে ভরতির ব্যবস্থা করে দিচ্ছেন। তিনি যেন এভাবে বাড়িতে না থাকেন। তাঁর থেকে এলাকায় আরও বহু মানুষের সংক্রমণ হতে পারে। বুধবার যুবকের হাসপাতালে ভরতি হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু এদিন সকালে হঠাৎ এলাকা থেকে উধাও হয়ে যান যুবক। সকাল থেকেই প্রতিবেশীরা তাঁকে দেখতে না পেয়ে তাঁর মা-বাবাকে জিজ্ঞাসা করেন। কিন্তু মা-বাবা জানান, তাঁরা কিছুই জানেন না।

[আরও পড়ুন: অক্সফোর্ড ইউনিয়নে বক্তৃতা দেওয়ার জন্য আমন্ত্রণ পেলেন মমতা]

বিষয়টি নিয়ে এলাকায় ব্যাপক উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। উত্তেজিত কয়েকজন প্রতিবেশী যুবকের বাড়িতে চড়াও হন। তাঁর মা-বাবা রিপোর্ট দেখিয়ে বলেন, তাঁরা করোনামুক্ত। ফলে তাঁদের উপর চড়াও হয়ে কোনও লাভ নেই। এর মধ্যেই এলাকার কিছু বাসিন্দা যুবকের পরিবারকে সমর্থন করে পাশে গিয়ে দাঁড়ান। তাতেই এলাকার বাসিন্দাদের মধ্যে মারপিট শুরু হয়। লাঠি নিয়ে একে অন্যকে আক্রমণ করেন বলে অভিযোগ। একজনের মাথা ফেটে যায়। তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে তাঁর চিকিৎসা চলছে। আরও কয়েকজন আহত হয়েছেন। এই খবর পেয়ে এদিন ঘটনাস্থলে যায় চিৎপুর থানার পুলিশ। পুলিশের হস্তক্ষেপে অবস্থা আয়ত্তে আসে। সংঘর্ষে জড়ানোর অভিযোগে চারজনকে আটক করা হয়েছে। তাদের জেরা করা হচ্ছে। একইসঙ্গে করোনা আক্রান্ত ওই যুবকের সন্ধান চলছে। তাঁকে পাওয়া গেলে চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

[আরও পড়ুন: সিলেবাস থেকে বাদ ধর্মনিরপেক্ষতা-নাগরিকত্বের পাঠ, CBSE’র সিদ্ধান্তে স্তম্ভিত মমতা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement