২৬  শ্রাবণ  ১৪২৯  সোমবার ১৫ আগস্ট ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

বাড়ছে ‘সাইবার যুদ্ধে’র আশঙ্কা, নয়া এজেন্সি গঠন করতে চলেছে সেনা

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: January 15, 2019 11:41 am|    Updated: January 15, 2019 11:41 am

India to have cyber agency

অর্ণব আইচ: প্রথম বিশ্বযুদ্ধের ‘ট্রেঞ্চ ওয়ার’ থেকে নাৎসি জার্মানির ‘ব্লিৎসক্রেগ’। সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে পালটেছে রণকৌশল।রাইফেল হাতে সন্মুখ সমর থেকে ঠান্ডাঘরে বসে বোতাম টিপে ড্রোন হামলা। প্রযুক্তির দ্রুত উন্নতিতে আরও শক্তিশালী হয়েছে যুদ্ধাস্ত্র। এই পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে তৈরি হয়েছে ‘ভার্চুয়াল ওয়ার’ বা সাইবার যুদ্ধের আশঙ্কা। ফলে এবার আর মাটিতে নয়, যুদ্ধ হতে পারে ইন্টারনেটের দুনিয়ায়। তাই শত্রুর থেকে এক কদম এগিয়ে থাকতে এবার ‘সাইবার এজেন্সি’ গঠন করতে চলেছে ভারতীয় সেনা। এমনটাই জানিয়েছেন লেফটেন্যান্ট জেনারেল এম এম নারাভান।

[২৬/১১ চক্রী তাহাউর রানাকে হেফাজতে পেতে চলেছে ভারত]

মঙ্গলবার দেশজুড়ে পালিত হচ্ছে সেনা দিবস (আর্মি ডে)। কলকাতার ফোর্ট উইলিয়ামে চলছে অনুষ্ঠান। বিজয় স্মারকে মাল্যদান করেন জিওসি-ইন-সি ইস্টার্ন কমান্ড মনোজ মুকুন্দ নারাভান। অনুষ্ঠানে উপস্থিতি ছিলেন প্রাক্তন সেনাপ্রধান শংকর রায়চৌধুরি। উল্লেখ্য, দেশের প্রতিরক্ষার খাতিরে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ইস্টার্ন কমান্ড। ভারত-চিন সীমান্ত এই কমান্ডের আওতায় আসছে। এদিন লেফটেন্যান্ট জেনারেল নারাভান জানান, সাইবার হামলা ঠেকাতে ও পালটা মার দিতে প্রস্তুতি নিচ্ছে ভারত। এর জন্য বিশেষ ‘সাইবার এজেন্সি’ গঠন করছে ভারতীয় সেনা। এই এজেন্সির শীর্ষে থাকবেন একজন মেজর জেনারেল পদমর্যাদার অফিসার। এই ইন্টার সার্ভিস এজেন্সি স্থলসেনা, বায়ুসেনা ও নৌসেনার মধ্যে সমন্বয় বজায় রেখে কাজ করবে। প্রাথমিকভাবে ২০০ জন অফিসারের একটি টিম তৈরি করা হচ্ছে। দেশের বিভিন্ন জায়গায় এই এজেন্সির ইউনিট মোতায়েন থাকবে। এর জন্য গোটা দেশ থেকে কম্পিউটার বিশেষজ্ঞদের বিশেষ প্রক্রিয়ার মাধ্যমে নিয়োগ করা হবে। জানা গিয়েছে,  রাশিয়া ও চিনের আদলে একটি  ‘সাইবার কমান্ড’ গড়ে তোলার দিকে প্রথম পদক্ষেপ সাইবার এজেন্সি। 

উল্লেখ্য, গোলা-বারুদ নয়, আজকাল একটি কম্পিউটার ও ইন্টারনেট কানেকশনই হচ্ছে যুদ্ধাস্ত্র। যে কোনও দেশের ব্যাংকিং পরিষেবা, যান চলাচল, এমনকি মিসাইল সিস্টেম তছনছ করে দিতে অহরহ চেষ্টা চালাচ্ছে হ্যাকাররা। গতবছর, সেনা ও হ্যাল-এর ওয়েবসাইটে হামলা চালায় পাকিস্তানি হ্যাকাররা। অভিযোগ, একইভাবে আমেরিকার প্রেসিডেন্ট নির্বাচন প্রভাবিত করেছিল রাশিয়া। তাই সবসময় চোখের আড়ালে সাইবার যুদ্ধের আশঙ্কা প্রবল। এই দিশায় অনেকটাই এগিয়ে গিয়েছে চিন ও উত্তর কোরিয়া। প্রতিরক্ষা বিশেষজ্ঞদের দাবি, একটি ডেডিকেটেড সাইবার কমান্ড রয়েছে চিনের। ভারতের প্রতিরক্ষা ও ব্যাংকিং সেক্টরে প্রায়ই হানা দিচ্ছে চিনা হ্যাকাররা। ফলে বাড়ছে বিপদের আশঙ্কা। তাই এবার শত্রুর বিরুদ্ধে ভার্চুয়াল যুদ্ধের জন্য তৈরি হচ্ছে দেশ। আর এই দিশায় প্রথম পদক্ষেপ হচ্ছে ‘সাইবার এজেন্সি’।        

               [মাত্র ১৫৪ টাকায় দেখতে পাবেন একশোটি বাছাই করা চ্যানেল, নয়া নির্দেশ TRI-এর]                                                                   

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে