BREAKING NEWS

৫ মাঘ  ১৪২৮  বুধবার ১৯ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

শহরে ফের ‘স্কিমার’ আতঙ্ক, লক্ষাধিক টাকা খোয়ালেন যুবক

Published by: Shammi Ara Huda |    Posted: September 4, 2018 8:55 am|    Updated: September 4, 2018 8:55 am

Kolkata: Man lost more than one lakhs rupees from his account

অর্ণব আইচ: শহরে ফের ‘স্কিমার’ আতঙ্ক। তিন হাজার তুলে লক্ষাধিক টাকা খোয়ালেন যুবক। এই ঘটনায় শহরে রোমানিয়ান বা নাইজেরীয় গ্যাং কলকাতায় সক্রিয় হয়ে উঠেছে, এমন সম্ভাবনা গোয়েন্দারা উড়িয়ে দিচ্ছেন না। এর আগে গোলপার্ক ও মল্লিকবাজারের দু’টি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কের এটিএমে ‘স্কিমার’ বসিয়ে লক্ষ লক্ষ টাকার জালিয়াতি হয়। তিলজলার ওই যুবক ছাড়া আরও কোনও গ্রাহকের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা উধাও হয়েছে কি না, তা জানার চেষ্টা হচ্ছে।

ফের শহরে ফিরে এসেছে ‘স্কিমার জালিয়াত’। তিলজলার বাসিন্দা ওই যুবকের কাছ থেকে অভিযোগ পাওয়ার পর এই সন্দেহ পুলিশের। এই ঘটনায় ফের সিঁদুরে মেঘ দেখছেন লালবাজারের গোয়েন্দারাও। মাস দু’য়েক আগেই এটিএম জালিয়াতরা ত্রাস ছড়িয়েছিল শহরে। কলকাতার শতাধিক মানুষের এটিএম থেকে উধাও হয়ে গিয়েছিল অন্তত লাখ পঞ্চাশেক টাকা। এর পর তল্লাশি চালিয়ে দিল্লি থেকে লালবাজারের গোয়েন্দাদের হাতে ধরা পড়েছে একের পর এক রোমানিয়ান এটিএম জালিয়াত। গ্রেপ্তার হয়েছে মহারাষ্ট্রের তিন এটিএম জালিয়াতও। কিন্তু ফের লালবাজারের গোয়েন্দাদের কাছে এই একই পদ্ধতিতে ‘স্কিমার’ বসিয়ে এটিএম জালিয়াতির অভিযোগ উঠেছে। এই অভিযোগটি যাচাই করে দেখছেন গোয়েন্দারা।

[অবৈধ পার্কিং নিয়ে বচসা, শহরে ফের আক্রান্ত পুলিশ]

জানা গিয়েছে, অভিযোগকারী যুবকের বাড়ি  তপসিয়া সেকেন্ড লেনে। তিনি তিলজলা থানায় অভিযোগ জানান,  গত চলতি মাসের এক তারিখে সকাল ন’টা নাগাদ তাঁর রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকের তপসিয়া রোড (সাউথ) শাখার অ্যাকাউন্ট থেকে উধাও হয়ে গিয়েছে এক লক্ষ ১৮ হাজার ৫৭ টাকা। অথচ তিনি কাউকে ডেবিট কার্ডের নম্বর দেননি। কার্ডও বেহাত হয়নি। কিন্তু এই ঘটনার  একদিন আগেই একটি এটিএম থেকে তিন হাজার টাকা তুলেছিলেন তিনি। তার একদিনের মধ্যেই অ্যাকাউন্ট থেকে তুলে নেওয়া হয়েছে টাকা। লালবাজারের গোয়েন্দাদের ধারণা, যে এটিএম থেকে তিনি টাকা তুলেছিলেন, তাতে ফের ‘স্কিমার’ লাগিয়েছিল ব্যাংক জালিয়াতরা। লাগিয়ে রেখেছিল গোপন ক্যামেরাও। তার সাহায্যেই জালিয়াতরা জেনে যায় পিন নম্বর। যদিও তারও আগে তিনি অন্য কোনও এটিএম থেকে টাকা তুলেছিলেন কি না, তা-ও খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

উল্লেখ্য, এর আগে ‘স্কিমার’ ও গোপন ক্যামেরা বসিয়ে এটিএম জালিয়াতির অভিযোগে মোট ১২ জনকে গ্রেপ্তার করেছিলেন গোয়েন্দারা। ধৃতদের মধ্যে আটজনই রোমানিয়ান। এছাড়া একজন নাইজেরিয়ান ও মহারাষ্ট্রের তিন বাসিন্দা গোয়েন্দাদের হাতে ধরা  পড়েছে। ফের রোমানিয়ান বা নাইজেরীয় গ্যাং কলকাতায় সক্রিয় হয়ে উঠেছে, এমন সম্ভাবনা গোয়েন্দারা উড়িয়ে দিচ্ছেন না। এর আগে গোলপার্ক ও মল্লিকবাজারের দু’টি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকের এটিএমে ‘স্কিমার’ বসিয়ে লক্ষ লক্ষ টাকার জালিয়াতি হয়। তিলজলার ওই যুবক ছাড়া আরও কোনও গ্রাহকের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা উধাও হয়েছে কি না,  তা জানার চেষ্টা হচ্ছে।  জালিয়াতদের ধরতে ওই এলাকার বেশ কয়েকটি এটিএমের সিসিটিভি পরীক্ষা করা হচ্ছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

[হরিদেবপুর কাণ্ডে ফরেনসিক ল্যাবে পাঠানো হচ্ছে ‘মেডিক্যাল বর্জ্য’]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে