BREAKING NEWS

১৭  মাঘ  ১৪২৯  বৃহস্পতিবার ২ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ 

READ IN APP

Advertisement

বড় গণেশ থেকে হতে পারে মারাত্মক বিপদ, ফের সতর্ক করল পুলিশ

Published by: Bishakha Pal |    Posted: September 11, 2018 11:15 am|    Updated: September 11, 2018 11:47 am

Kolkata Police urges caution against mammoth Ganesha idols

অর্ণব আইচ: গণেশপুজো হোক। কিন্তু ‘বড় গণেশ’ নয়। শহরে গণেশপুজো শুরু হওয়ার আগেই সতর্ক করল পুলিশ। একই সতর্কতা জারি হচ্ছে গণেশপুজোর পর বিশ্বকর্মা পুজোর ক্ষেত্রেও।

গত বছর বিপদ হয়েছিল নিউ মার্কেটের ২৫ ফুট উঁচু গণেশ প্রতিমা নিয়ে। বিসর্জনের সময় বিদ্যুতের তারে সেই গণেশ প্রতিমার ছোঁয়া লাগতেই ধরে গিয়েছিল আগুন। বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মৃত্যু হয়েছিল তিনজনের। আহত হয়েছিল সাতজন। এই বছর আর ঝুঁকি নিতে চায়নি লালবাজার। প্রত্যেক থানার আধিকারিকরা খোঁজ নিয়েছেন, ক’টি গণেশ পুজো কোন এলাকায় হচ্ছে। সেই অনুযায়ী পুজো উদ্যোক্তাদের কয়েকদিন আগেই পুলিশ সতর্ক করে দেয়, যেন ১৮ ফুটের বেশি উঁচু প্রতিমা কোনওমতেই মণ্ডপে না নিয়ে যাওয়া হয়। উদ্যোক্তারাও পুলিশকে আশ্বস্ত করেছেন।

‘বান্টি বাবলি’র হানা, গভীর রাতে সুকৌশলে শহরে লুট অ্যাপ ক্যাব ]

গণেশপুজোর মণ্ডপ তৈরি হতে শুরু করেছে। এবার মণ্ডপগুলিতে প্রতিমা প্রবেশ করানো হবে। মুম্বইয়ের বাসিন্দারা ‘বড় গণেশ’ পুজো করতে অভ্যস্ত। সেখানে আকছার ২০ ফুটের উপর গণপতি প্রতিমা মণ্ডপে পূজিত হয়। যদিও সেই প্রতিমা চলবে না কলকাতায়। এমনকী, এই বছর ভবানীপুরের রাখাল মুখার্জি রোডের গণেশপুজো উদ্যোক্তারা মুম্বই থেকে নিয়ে আসা বিনায়ক মূর্তিপুজো করলেও তার উচ্চতাও ১৪ ফুটের বেশি রাখছেন না। পুলিশের সূত্র জানিয়েছে, কলকাতায় গণেশ পুজোর সংখ্যা বাড়ছে। বিশেষ করে মধ্য ও দক্ষিণ কলকাতায় বেশি সংখ্যক গণেশপুজো হয়। তাই পুজোর আগে এবার প্রত্যেকটি মণ্ডপও ঘুরে দেখছেন পুলিশ আধিকারিকরা। কোন মণ্ডপে কত উঁচু গণেশ প্রতিমা পুজো হচ্ছে, তাও পুলিশ খতিয়ে দেখছে।

লালবাজার সূত্রে জানা গিয়েছে, গত বছরের মতো যাতে দুর্ঘটনা না ঘটে, তাই এই বছর এত সতর্কতা। গত বছর আগস্টে মধ্য কলকাতার নিউ মার্কেট থানা এলাকার উমা দাস লেনে একটি ক্লাব গণেশ পুজোর আয়োজন করেছিল। ২৫ ফুট উঁচু গণেশ প্রতিমা বিসর্জনের সময়ই সমস্যা হয়। বিশাল মালবাহী গাড়ি গঙ্গার ঘাটের দিকে এগিয়ে যেতেই বড় গণেশ প্রতিমা চক্ররেলের তার স্পর্শ করতেই প্রতিমায় আগুন ধরে যায়। তার জড়িয়ে যায় পুজোর আয়োজক ও মৎস্য ব্যবসায়ী বিমল সাহানির হাতে। তিনি ও মালবাহী গাড়ির উপর থাকা বিতান মণ্ডল ও জিতেন্দ্র সাহানি  সম্পূর্ণ ঝলসে যান। এ ছাড়াও আহত হন আরও সাতজন। এর পর এই বছর বিশেষ সতর্কতা নেয় পুলিশ। জানা গিয়েছে, এই বছর গণেশপুজোর বিসর্জনের সময় যাতে চক্ররেলের তারে বিদু্যৎ সংযোগ না থাকে, সেই বিষয়ে রেলকে পুলিশের পক্ষ থেকে অনুরোধ করা হতে পারে। এদিকে, গণেশপুজোর পরই বিশ্বকর্মা পুজো। বিশ্বকর্মা প্রতিমাও যাতে ১৮ ফুটের বেশি না হয়, সেই দিকেও নজর রাখা হচ্ছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

মাঝেরহাট সেতু বিপর্যয়ের জের, পড়ুয়াদের সময়মতো স্কুলে পৌঁছে দেবে পুলিশ ]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে