০২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

দ্বিতীয় হুগলি সেতুতে টোলট্যাক্স মকুব বাইক চালকদের, যানজট কমাতে সিদ্ধান্ত প্রশাসনের

Published by: Sayani Sen |    Posted: September 13, 2018 6:41 pm|    Updated: September 13, 2018 6:59 pm

Mamata Banerjee abolishes toll tax on 2nd  Hooghly bridge

তরুণকান্তি দাস: পুজোর মুখে বাইক চালকদের জন্য সুখবর৷ এবার থেকে আর দ্বিতীয় হুগলি সেতুতে টোল দিতে হবে না তাঁদের৷ ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের৷ ১ অক্টোবর থেকে এই সিদ্ধান্ত কার্যকর হবে৷

[বিশ্বকর্মা পুজোয় অর্ধদিবস ছুটি ঘোষণা রাজ্য সরকারের]

হাওড়া আর কলকাতায় সংযোগ রক্ষা করে দ্বিতীয় হুগলি সেতু৷ রাজ্য সরকারের তথ্য অনুযায়ী, ওই ব্রিজ দিয়ে প্রতিদিন কয়েক কোটিরও বেশি গাড়ি যাতায়াত করে৷  বাইক ও স্কুটি  চলে কমপক্ষে ৮৪ লক্ষ৷ অফিস টাইমেই সাধারণত বেশীরভাগ বাইক ও স্কুটি যাতায়াত করে৷ টোল দেওয়ার জন্য প্লাজার সামনে লম্বা লাইন পড়ে চার চাকা গাড়ি, বাস ও বাইকের৷  ফলে ব্যস্ত সময়ে  দ্বিতীয় হুগলি সেতুতে  ব্যাপক যানজট হয়৷ গন্তব্যে পৌঁছাতে কালঘাম ছোটে নিত্যযাত্রীদের৷ নির্দিষ্ট সময়ে গন্তব্যে পৌঁছাতে না পেরে ভোগান্তির শিকার হন তাঁরা৷  

[১২ দিনের ইউরোপ সফরে মুখ্যমন্ত্রী, প্রশাসনিক কাজে সমস্যা এড়াতে নয়া টিম মমতার]

দ্বিতীয় হুগলি সেতুতে যানজটের সমস্যা মেটাতে উদ্যোগ নিল রাজ্য সরকার৷ বৃহস্পতিবার বাইক চালকদের টোল মকুবের সিদ্ধান্তের কথা ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ ১ অক্টোবর থেকে আর পাঁচ টাকা করে টোল ট্যাক্স দিতে হবে না তাঁদের৷ মুখ্যমন্ত্রী জানান, এর ফলে রাজ্যের পাঁচ-ছয় কোটি টাকা রাজস্ব ক্ষতি হবে৷ তবে সাধারণ মানুষকে সেতুতে যানজটের হাত থেকে  রেহাই দিতেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে৷  

[কোন ইস্যুতে বাংলা দাপাবে বিজেপি? রাজ্য কমিটির বৈঠকে শুরু প্রস্তুতি]

২০১৩-য় উল্টোডাঙা৷ ২০১৬-য় গিরিশ পার্ক৷ এরপর ২০১৮-য় হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়ে মাঝেরহাট ব্রিজ৷ এখনও পর্যন্ত মাঝেরহাট সেতু বিপর্যয়ে প্রাণ হারিয়েছেন ৩ জন৷ সেতু বিপর্যয়ের পরই নড়েচড়ে বসেছে রাজ্য সরকার৷ রাজ্য জুড়ে ২০ চাকার লরি চলাচলের ক্ষেত্রে জারি করা হয়েছে নিষেধাজ্ঞা৷ রাজ্যে ২০ চাকা লরি ঢুকতে না দেওয়ার সিদ্ধান্তকে হাতিয়ার করেই নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দাম বাড়ছে ক্রমাগত৷ এ বিষয়ে বৃহস্পতিবার টাস্ক ফোর্সের বৈঠক ডেকেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ দ্রব্য মূল্য নিয়ন্ত্রণে কড়া অবস্থানের কথাই জানান তিনি৷ ২০চাকা লরি ছাড়াই অন্য কোনও লরি রাজ্যে ঢোকার ক্ষেত্রে যেন কোনওরকম বাধার চেষ্টা পুলিশ না করে, সে কথা কড়া ভাষায় জানান মুখ্যমন্ত্রী৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে