BREAKING NEWS

১৯  আষাঢ়  ১৪২৯  সোমবার ৪ জুলাই ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

তাপ্পি দেওয়া টায়ারে পরপর ব্রেকডাউন গাড়ি, যানজট সরাতে নাজেহাল পুলিশ

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: June 22, 2018 1:32 pm|    Updated: June 22, 2018 1:32 pm

Parched tyres causing traffic snarls in Kolkata

অর্ণব আইচ: কখনও মা ফ্লাইওভার, কখনও বা এজেসি রোড ফ্লাইওভার আবার কখনও ডায়মন্ডহারবার রোড। শহরে একের পর এক গাড়ি ব্রেকডাউনে সৃষ্টি হচ্ছে যানজট। আর তাতেই নাজেহাল ট্রাফিক পুলিশ। এই সমস্যার বিষয়টি স্বীকার করছেন লালবাজারের কর্তারাও। তাঁদের মতে, ব্রেকডাউনের একটি মূল কারণ ‘রি সোলড’ বা তাপ্পি দেওয়া টায়ার। গরমের মধ্যে সেই টায়ার ফেটে বা লিক করে বসে যাচ্ছে গাড়ি। আবার ব্রেকডাউনের পিছনে রয়েছে গাড়ির বেশ কিছু যান্ত্রিক ত্রুটিও।

[জল খাওয়ার অছিলায় বাড়িতে ঢুকে নাবালিকাকে ধর্ষণ, গ্রেপ্তার আত্মীয়]

এই বিষয়ে ডিসি (ট্রাফিক) সুমিত কুমার জানান, বেশিরভাগ ক্ষেত্রে দেখা যাচ্ছে বেসরকারি গাড়ি ব্রেকডাউন হচ্ছে। টায়ার ‘রি সোলিং’ করার পর গাড়ি রাস্তায় নামানো হচ্ছে। সমীক্ষা করে দেখা গিয়েছে, যে গাড়িতে ‘রি সোলড’ টায়ার রয়েছে, সেই গাড়িগুলিই তাড়াতাড়ি বসে পড়ছে। এ ছাড়াও অনেক সময়ই গাড়ির মালিক ও চালকরা গাড়ির উপর বিশেষ নজর দেন না ও গাড়ির রক্ষণাবেক্ষণ ভাল করে হয় না। সেই কারণেও সমস্যার সৃষ্টি হচ্ছে। তাপ্পি দেওয়া টায়ার ব্যবহার করলে ট্রাফিক পুলিশের পক্ষ থেকে গাড়ির মালিকের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়। প্রত্যেক মাসেই টায়ার নিয়ে প্রচুর মামলা দায়ের হচ্ছে। কিন্তু তাতেও অনেক সময় লাভ হচ্ছে না। তাপ্পি দেওয়া টায়ার ব্যবহার করলে ব্রেকডাউন ছাড়াও দুর্ঘটনার সম্ভাবনা থেকে যায়। এবার এই সমস্যা আয়ত্তে আনতে ট্রাফিক পুলিশের পক্ষ থেকে প্রচারের পরিকল্পনা করা হচ্ছে। সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে এই বিষয়ে সচেতনতা বাড়ানো হবে।

[বান্ধবীকে নিয়ে থাকবে বলে মাকে মারছে ছেলে, অভিযোগ শুনে তাজ্জব পুলিশ]

পুলিশ জানিয়েছে, ট্রাফিক কন্ট্রোল রুমে দিনে এই মেসেজ আসে দিনে বেশ কয়েকবার। রাস্তার উপর ব্রেকডাউন হওয়ায় গাড়ি দাঁড়িয়ে পড়েছে। সেই গাড়ি উদ্ধারের করতে হবে। ট্রাফিক পুলিশের এক কর্তা জানিয়েছেন, ইতিমধ্যে দেখা গিয়েছে, বিশেষ কয়েকটি রাস্তায় গাড়ি ব্রেকডাউন হচ্ছে বেশি। এর মধ্যে রয়েছে মা ফ্লাইওভার, এজেসি বোস রোড ফ্লাইওভার, তারাতলা ফ্লাইওভার, বালিগঞ্জ, ডায়মন্ডহারবার রোড-সহ শহরের কয়েকটি জায়গা। রাস্তা বা ফ্লাইওভারের উপর গাড়ি দাঁড়িয়ে পড়লে একদিকের লেনের একটি অংশ সম্পূর্ণ বন্ধ হয়ে যায়। তার ফলে সেই রাস্তায় শুরু হয় যানজট। যতক্ষণ না গাড়িটিকে উদ্ধার করা হচ্ছে, ততক্ষণ এই যানজট থেকেই যায়। তার ফলে গরমের মধ্যে নাজেহাল অবস্থা হয় ট্রাফিক পুলিশের। গত কয়েকদিনে দেখা গিয়েছে, মা ফ্লাইওভার, এজেসি বোস রোড ফ্লাইওভার-সহ বিভিন্ন রাস্তায় একাধিকবার বসে গিয়েছে গাড়ি। আর ওই গাড়ির পিছনে একের পর এক যান দাঁড়িয়ে পড়েছে। সৃষ্টি হচ্ছে যানজট। এমনকী, গাড়িটি সরিয়ে নিয়ে যাওয়ার পরেও যানজট থেকে যাচ্ছে। এতে সমস্যায় পড়ছেন যাত্রীরাও। তাই তাপ্পি দেওয়া টায়ার নিয়ে এবার ট্রাফিক পুলিশ আরও কড়া হচ্ছে। যে গাড়িগুলি ব্রেকডাউন হচ্ছে, সেগুলির টায়ার পরীক্ষার পর সন্তুষ্ট না হলে গাড়ির বিরুদ্ধে মামলা করা হচ্ছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে