৫ মাঘ  ১৪২৫  রবিবার ২০ জানুয়ারি ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফিরে দেখা ২০১৮ ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বনধে রাস্তায় দাঁড়িয়ে সরাসরি পুলিশকে হুমকি দিলেন বাম নেতা শতরূপ ঘোষ। বনধ কর্মসূচি চালানো নিয়ে মহিলা কর্মীদের সঙ্গে কসবায় এদিন ধস্তাধস্তি হয় পুলিশের। ওই পুলিশকর্মীকে কসবায় দাঁড়িয়ে কান ধরে ওঠবোস করানোর হুমকি দিলেন। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে শতরূপের হুঁশিয়ারি, ‘দুদিন ছুটি নিয়ে ঘুরে আসুন। বাকি সব সামলে নেব।’ পুলিশকর্মীকে হুমকি দিয়ে বললেন, ‘মমতা সরকার যাওয়ার পর চাকরি থাকলে আপনার কপালে দুঃখ আছে।’

সকাল থেকেই শহরে বিক্ষিপ্ত অশান্তি ছড়ায়। ধর্মঘটে গন্ডগোল হয় যাদবপুর, বেলগাছিয়া, শোভাবাজারে। গ্রেপ্তার হন সুজন চক্রবর্তী, অনাদি সাউয়ের মতো নেতা। এদিন কসবায় মহিলা কর্মীদের সঙ্গে ধস্তাধস্তি হওয়ার দাবি করেন শতরূপ। তিনি বলেন, “এখানে একজন পুলিশ অফিসারকে দেখছিলাম একটু আগে। আমাদের মহিলা কমরেডদের ধাক্কা দিচ্ছিল। কোনও অশান্তি না করে সকাল থেকে আমরা আমাদের কর্মসূচি পালন করছি। আপনাকে বেশ কয়েকবছর চাকরি করতে হবে। নবান্ন থেকে মমতা ব্যানার্জি যাওয়ার আগে যদি আপনার অবসর হয়ে যায়, তো বেঁচে গেলেন। কিন্তু তারপরেও যদি আপনাকে চাকরি করতে হয়, তাহলে জানবেন কপালে দুঃখ আছে।” শুধু তাই নয়, পুলিশ অফিসারকে কসবায় এনে কানধরে ওঠবোস করানোর হুমকিও দিলেন শতরূপ। তাঁর দাবি, “মমতা যাওয়ার পর ওই পুলিশ অফিসারের যেখানে পোস্টিং হোক, কসবায় এনে ওকে কানধরে ওঠবোস না করাতে পারলে আমার নাম নেই।”

[শহরে বনধ সমর্থকদের তাণ্ডব, যাদবপুরে আটক বাম নেতা সুজন চক্রবর্তী]

শতরূপ ঘোষ সরাসরি শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসকে গুন্ডা বলে আক্রমণ করেন। তিনি বলেন, “সকাল থেকে আমাদের দলের অনেক কর্মী রাস্তায় আছে। সুধীর সেনগুপ্ত, তরুণ বন্দ্যোপাধ্যায়, সুজন চক্রবর্তী, সবাই রাস্তায় নেমেছেন। সকাল থেকে রাত পর্যন্ত রাস্তায় আছি। এর মধ্যে গ্রেপ্তার হতে হলে হব। থানার বাইরে আসলে আবার গ্রেপ্তার হব। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নাকি হুমকি দিয়েছেন, সরকারি কর্মচারিরা ছুটি নিতে পারবেন না। আমি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে বলছি, কর্মচারীদের ছুটি নিয়ে আপনাকে ভাবতে হবে না। দুদিন ছুটি নিয়ে আপনি কোথাও বেড়াতে চলে যান। কিন্তু নবান্নে বসে আপনি রাজ্য চালাবেন না। এই দুদিন বাংলার খেটে খাওয়া মানুষ রাজ্য চালাবে। রাজ্যে দুধরনের গুন্ডা আছে। ইউনিফর্ম ছাড়া গুন্ডাদের তৃণমূল বলে। ইউনিফর্ম পরা গুন্ডা পুলিশ। এদের আমরা বুঝে নেব।”

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং