১ কার্তিক  ১৪২৬  শনিবার ১৯ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

১ কার্তিক  ১৪২৬  শনিবার ১৯ অক্টোবর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

ধ্রুবজ্যোতি বন্দ্যোপাধ্যায়: কথাটা শুনেই চমক লেগেছিল। এত কম সময়ে এতসব হবে কী করে? কলকাতায় নাকি চন্দ্রযান অভিযানের পরিকল্পনা নেওয়া হচ্ছে! দুর্গা পুজোয় এবার এখনও পর্যন্ত বোধহয় এটাই সবচেয়ে বড় চমক।
কোনও হেঁয়ালি নয়। বিষয়টা খোলসা করি। শ্রীভূমির সুজিত বসু এবার তাঁর পুজোয় এমনই আলোকসজ্জা বানানোর পরিকল্পনা করেছেন। যা তৈরি হচ্ছে চন্দননগরে।

[আরও পড়ুন: সল্টলেকের পুজোয় এবার লোকসংস্কৃতির ছোঁয়া, ছৌ মুখোশে সাজবে মণ্ডপ]

প্রতিবারই নানা আশ্চর্য বিষয় নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করেন সুজিতবাবু। এবারও চমক ছিল। প্রথমে ঠিক হয়েছিল এখনও পর্যন্ত সবচেয়ে উঁচু বাড়ি আরবের বুর্জ খলিফাকে আলোকসজ্জায় ধরা হবে শ্রীভূমির পুজোয়। বরাতও দেওয়া হয়ে গিয়েছিল। কিন্তু চমক দেওয়ায় তিনি শেষ রাতের ওস্তাদ। চারিদিকে যখন চন্দ্রযান নিয়ে মানুষের মধ্যে ধুম জ্বর, তখনই তাঁর মাথায় আসে চন্দ্রযানের আইডিয়া। প্রথম দিকে জিজ্ঞাসা করলেই বলতেন, “আগে সবটা শেষ করি। পুরোটা সাজাই। ঠিক জানতে পারবে সকলে।” এতদিনে এসে বিষয়টা খোলসা করলেন। শ্রীভূমির চন্দ্রযানের অভিযান কিন্তু অসম্পূর্ণ থাকবে না। চাঁদে নেমে যে ‘চাঁদের পাহাড়’ দেখানোর পরিকল্পনা করেছিল বাস্তবের বিক্রম, তা-ও দেখানো হবে। বিভূতিভূষণের গল্প চাঁদের পাহাড় আর দেবের ছবিতে আমাজনের জঙ্গলের আবহকে সামনে রেখে তৈরি হচ্ছে সেই আলোকসজ্জা।

খেলাধুলোর প্রতি সুজিতবাবুর আগ্রহ সকলের জানা। তাঁর আহ্বানে মহালয়ার পর দিন তাই এ পুজোর উদ্বোধনে আসছেন ভারতীয় মহিলা ক্রিকেট দলের ক্যাপ্টেন মিতালি রাজ। থাকবেন প্রাক্তন ক্যাপ্টেন ঝুলন গোস্বামীও। ২ অক্টোবর চমক দিতে আসছেন সোনা জয়ী ব্যাডমিন্টন খেলোয়াড় পি ভি সিন্ধু ও তাঁর কোচ ও প্রাক্তন খেলোয়াড় পি গোপিচাঁদ। কখনও বাহুবলী, কখনও পদ্মাবতের সেট গড়ে দিয়ে মণ্ডপসজ্জায় পরপর চমক দিয়েছে শ্রীভূমি। কখনও সোনার গয়না, কখনও হীরের গয়নায় সেজেছে প্রতিমা। শহরের পূর্বপ্রান্তের একটা বড় ভিড় টেনে নিয়েছে শ্রীভূমি। উত্তরের শ্রীভূমি বড়, নাকি দক্ষিণের অন্য পুজোর ধার বেশি? এ নিয়ে প্রতি বছর লড়াই চলে। সুজিত বসুর কথায়, “আমাদের পুজোয় কেন মানুষ আসেন, সেটা তাঁরাই বলবেন।” এবারও চমকের পালা তৈরি ছিল।

ঠিক ছিল মৌর্য সাম্রাজ্যের বিস্তারিত রাজপাট নিয়ে কাজ হবে শ্রীভূমিতে। সেখানে অবশ্য কোনও বদল আসেনি। মণ্ডপসজ্জায় হচ্ছেও তাই। কাজ প্রায় অনেকটাই সারা। মৌর্য স্থাপত্য-শিল্পের একটা বড় অংশ উঠে আসছে এবার শ্রীভূমির মণ্ডপে। কিন্তু এই মুহূর্তে সব আকর্ষণ কেড়ে নিয়েছে ইসরোর চন্দ্রযান ২। তাকে সামনে রেখেই আলোর রোশনাইয়ে সেই চন্দ্রযানের উড়ান ধরবেন সুজিত বসু। সঙ্গে সোনার গয়না তো থাকছেই। প্রতিমার মাপমতো সেসব তৈরি হয়ে সামনে আসবে ঠিক সময়।

[আরও পড়ুন: পরিবেশ রক্ষায় বৃক্ষরোপণে ব্যস্ত দুর্গার পরিবার, দেখা মিলবে এই মণ্ডপে]

চন্দননগরের আলোয় শ্রীভূমির আলোকসজ্জার কথা কে না জানে? এবারও তাই হচ্ছে। সেখানেই বানানো হচ্ছে বাহুবলীতে চড়ে চন্দ্রযানের চাঁদে পৌঁছনোর পর্ব। সত্যি বলতে, এ খবর কলকাতার আগে চন্দননগরের মানুষ জেনে গিয়েছেন। সুজিতবাবুর মুখে তখনও কুলুপ। শুধু বলছেন, “প্রত্যেকদিন নতুন ভাবনা-চিন্তা জুড়ছে। যত দিন যাবে আপডেট হবে।” একেবারে শেষ পাতে আরও একটি চমকের কথা শুনিয়ে রেখেছেন সুজিতবাবু। এবারই প্রথম পুজোর থিম সং তৈরি হচ্ছে শ্রীভূমির জন্য। গানটি হল, “পুজো এল এল পুজো উৎসবেরই দিন, শ্রীভূমির এই পুজোর গানে ঠাকুর দেখার দিন।” যা গেয়েছেন সদ্য শেষ হওয়া গানের লড়াই খ্যাত স্নিগ্ধজিৎ ও গুরজিৎ। সঙ্গে দ্বিপাণ্বীতা। তৈরি হচ্ছে ভিডিও অ্যালবামও। যেখানে প্রথমবারের জন্য অভিনয় করবেন মন্ত্রী সুজিত বসু স্বয়ং। তাঁর সহ-অভিনেত্রী দলীয় সাংসদ নুসরত জাহান।

দেখুন ভিডিও: 

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং