১৪ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

তারাতলা গণধর্ষণ কাণ্ডে নয়া মোড়, ধৃতদের মোবাইলে মিলল অত্যাচারের ফুটেজ

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: January 21, 2018 5:43 am|    Updated: January 21, 2018 5:45 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: তারাতলা গণধর্ষণ কাণ্ডে নয়া মোড়। ধৃতদের থেকে উদ্ধার হওয়া তিনটি মোবাইল থেকে মিলেছে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য। পুলিশ সূত্রে খবর, মোবাইল থাকা কিছু ফুটেজ দেখিয়ে নির্যাতিতাকে ব্ল্যাকমেলিংয়ের চেষ্টা হয়েছিল।

[পিকনিকে গিয়ে গঙ্গায় নিখোঁজ ফ্লোটেলের কর্তা, দানা বাঁধছে রহস্য]

পুলিশ এই ঘটনায় এক নাবালক অভিযুক্তকে ধরে। তার কথার ভিত্তিতে আরও দুজনকে জালে তোলা হয়। এরপরই ধৃতদের তল্লাশি চালিয়ে তিনটি মোবাইলে বাজেয়াপ্ত করে পুলিশ। সূত্রের খবর তিনটি মোবাইলে নির্যাতনের ফুটেজ মিলেছে। জানা গিয়েছে ছবি তুলে নির্যাতিতাকে ব্ল্যাকমেল করার ছক কষা হয়েছিল। ধৃতরা প্রথমে ওই তরুণীকে জানিয়েছিল কাউকে জানালে আপত্তিকর ছবি সোশ্যাল সাইটে ছড়িয়ে দেওয়া হবে। এরপরও সে পুলিশকে খবর দিলে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দেওয়া হয়েছিল। তদন্তকারীরা তিনটি মোবাইলের গ্যালারি খতিয়ে দেখেছেন। এই নিয়ে পোর্ট ট্রাস্ট আধিকারিকদের সঙ্গে কথা বলেছে পুলিশ। পোর্টট্রাস্টের কোয়ার্টারে নিজের আত্মীয়র বাড়িতে বেড়াতে এসে গণধর্ষণের শিকার হন ওই তরুণী। পুলিশ সূত্রে জানা যায় শুক্রবার বেলা সাড়ে বারোটা নাগাদ ঘটনাটি ঘটে। স্থানীয় এক দোকানে মাংস কিনতে গিয়েছিলেন ওই তরুণী। সেই দোকানেই কাজ করত এক অভিযুক্ত। দোকানটি বন্ধ থাকায় অভিযুক্ত এগিয়ে এসে তরুণীকে সাহায্যের কথা বলে। এরপর ওই তরুণীকে এলাকারই এক পরিত্যক্ত বাড়িতে নিয়ে যায় সে। সেখানে বাকিরাও চলে আসে। সকলে মিলে তরুণীকে ধর্ষণ করে। আর এই নারকীয় ঘটনার ছবি ও ভিডিও তুলে রাখা হয়। বাঁচার জন্য তরুণী চিৎকারও করেন। কিন্তু পরিত্যক্ত বাড়ির দেওয়াল ভেদ করে সে আওয়াজ বাইরে পৌঁছায়নি। পরে তরুণীকে হুমকি দেওয়া হয়, এ বিষয়ে যেন তিনি কাউকে কিছু না বলেন। যদি বলেন, তাহলে ছবি ও ভিডিওগুলি প্রকাশ্যে ছড়িয়ে দেওয়া হবে।

[পোর্ট ট্রাস্টের পরিত্যক্ত কোয়ার্টারে গণধর্ষণ তরুণীর, গ্রেপ্তার তিন নাবালক-সহ ৬]

চরম অত্যাচার মেনে নেননি তরুণী। আত্মীয়র বাড়িতে কোনওরকমে পৌঁছে বিষয়টি জানান। তারাতলা থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়। তরুণীর অভিযোগের ভিত্তিতে ওই ছয় অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। ধৃতদের মধ্যে তিনজন নাবালক। তবে ধৃত নাবালকদের বিরুদ্ধেও গণধর্ষণ মামলা দায়ের। নির্ভয়া কাণ্ডের পর নয়া আইন চালু হয়। অপরাধের গুরুত্ব বিচার করে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে পুলিশ। প্রত্যেকের বিরুদ্ধে ৩৭৬ ডি ধারায় মামলা রুজু হয়েছে। তিন নাবালককে জুভেনাইল হোমে রাখা হয়েছে। বাকি তিন সাবালকের তিন ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত জেলা হেপাজত হয়েছে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement