১২ আষাঢ়  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ২৭ জুন ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার
বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ

১২ আষাঢ়  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ২৭ জুন ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দশটা-পাঁচটার জাঁতাকলে ব্যস্ত সকলেই৷ এরই মাঝে অনেক প্রেমিকারই অভিযোগ, তাঁর পুরুষসঙ্গী নাকি সেরকমভাবে সময় দেন না তাঁকে৷ আবার কারও কারও অভিযোগ, অন্য মহিলাদের প্রতিই নাকি বেশি আকর্ষণ তাঁর৷ সম্পর্ক নিয়ে পুরুষসঙ্গীর কোনও মাথাব্যথা নেই ভেবে মরমে মরে যান অনেকেই৷ অভিযোগ জমা হতে হতে পাহাড়ের রূপ নেয়৷ আবার অনেক সময় বিচ্ছেদের মতো মর্মান্তিক পরিণতিও হয় সম্পর্কের৷ সে তো নয় গেল, কিন্তু বিচ্ছেদই তো আর সমাধান নয়৷ বরং তার চেয়ে ভাল ভেবে দেখুন আপনার সঙ্গীকে নিয়ে আপনি বেশি পজেসিভ নন তো৷ নিজের কাজের থেকে কী প্রেমিককে নিয়েই বেশি চিন্তাভাবনা করছেন আপনি? মনে রাখবেন ভালবাসার প্রকাশ পাওয়ার বদলে, এই পজেসিভনেস কিন্তু হতে পারে মানসিক অসুস্থতারও কারণ৷

[জানেন সঙ্গমকালে কোন শব্দ পার্টনারের উত্তেজনা বাড়িয়ে তোলে?]

সমীক্ষা বলছে, সাধারণত যে মহিলা বা পুরুষরা নিরাপত্তাহীনতায় ভোগেন, তাঁদের মধ্যেই পজেসিভনেস সবচেয়ে বেশি থাকে৷ বিপরীতের মানুষটির প্রতি অতিরিক্ত দুর্বল হয়ে পড়ার মূল কারণও কিন্তু এই নিরাপত্তাহীনতাই৷  বিশেষজ্ঞদের দাবি, নিজের থেকে অতিরিক্ত যদি কেউ বিপরীতের মানুষটিকে ভালবাসেন তাও কিন্তু পজেসিভনেসের কারণ হতে পারে৷ তবে সমীক্ষা বলছে, এটি কারও জন্য মোটেই ভাল লক্ষ্মণ নয়৷

কিন্তু প্রশ্ন হল, কীভাবে বুঝবেন যে ভালবাসা আর পজেসিভনেস সীমারেখা কোনটি?  লক্ষ্য রাখুন,

  • প্রেমিক বা প্রেমিকা আপনার ফেসবুক ও হোয়াটস অ্যাপ অ্যাকাউন্টের প্রতি বেশি নজরদারি চালাচ্ছে কী না৷ কোনও মহিলার সঙ্গে কথা বললে কী খুঁতখুঁত করছেন আপনার প্রেমিকা? এ নিয়েই কী তিক্ত হচ্ছে দুজনের সম্পর্ক?
  • যে মহিলা বা যে পুরুষকে নিয়ে সমস্যা, তাঁর সঙ্গে সম্পর্ক শেষ না হলে কী প্রেমিক বা প্রেমিকা আপনাকে হুমকি দিচ্ছেন?  
  • না জানিয়ে কী বন্ধু বা সহকর্মীদের কাছে ফোন করে গতিবিধি জানার চেষ্টা করছেন আপনার প্রেমিক-প্রেমিকা?
  • অন্য কোনও বন্ধুবান্ধব বা পরিবারের কারও সঙ্গে  বেড়াতে বা খেতে যাওয়ার পরিকল্পনা  ভাল চোখে দেখেন না আপনার সঙ্গী বা সঙ্গিনী?

[মিলনের সময় এই কাজগুলি করলেই বাড়তি আমেজ পাবে সঙ্গী]

উপরের এই প্রতিটি প্রশ্নের উত্তর যদি হ্যাঁ হয়, তবে মনে রাখবেন ভালবাসা বা পজেসিভনেস নয়, আপনার কাছের মানুষটি ভুগছেন মানসিক রোগে৷ দেরি না করে তাড়াতাড়ি কোনও মানসিক চিকিৎসকের সঙ্গে যোগাযোগ করুন৷ মিলতে পারে, সমস্যা থেকে রেহাই পাওয়ার উপায়৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং