১ মাঘ  ১৪২৫  বুধবার ১৬ জানুয়ারি ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফিরে দেখা ২০১৮ ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বর্তমানে এ দেশের একটি বড় চিন্তার বিষয় হল ক্রমশ বাড়তে থাকা শিশু পর্নোগ্রাফির নেশা। যা অনেকের জীবনেই খারাপ প্রভাব ফেলছে। এর থেকেই জন্ম নিচ্ছে নানা ধরনের হিংসাত্মক প্রবৃত্তি। প্রায়শই শিরোনামে উঠে আসছে শিশুর যৌন হেনস্তার ঘটনা। তাই এবার শিশু পর্নোগ্রাফিতে লাগাম টানতে নয়া পদক্ষেপ করল গুগল, মাইক্রোসফট, ফেসবুক এবং ইয়াহুর মতো বড় টেক সংস্থাগুলি। যেসব কিওয়ার্ড অর্থাৎ শব্দ লিখে শিশু পর্ন ও যৌন হিংসার ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়, সেই সমস্ত শব্দ ব্লক করা শুরু করেছে তারা।

[PUBG Mobile ভিকেন্ডি স্নো-ম্যাপ নিয়ে যুবপ্রজন্মের উন্মাদনা তুঙ্গে]

বিদ্যুৎ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রক এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের তরফে বেশ কিছু শব্দ জোগাড় করেছে এই প্ল্যাটফর্মগুলি। সেই তালিকার ভিত্তিতেই শব্দগুলি ব্লক করতে শুরু করেছে গুগল, ফেসবুক-সহ অন্যান্য টেক জায়ান্টরা। তাদের আশা, এই শব্দগুলি ব্লক করে দিলে তা লিখে সার্চ করলে আর শিশু পর্ন খুঁজে পাওয়া যাবে না। ফলে এ দেশে সেসব পর্ন ভিডিও ছড়িয়ে পড়ার মাত্রা অনেকটাই কমানো সম্ভব হবে। কী কী শব্দ ব্লক করে দেওয়া হচ্ছে, সে বিষয়ে চূড়ান্ত গোপনীয়তা বজায় রাখা হচ্ছে। যাতে কোনওভাবে অন্য কোনও উপায়ে তা খুঁজে বের করা সম্ভব না হয়। যে শব্দগুলি ব্লক করে দেওয়া হবে, তা দিয়ে কেউ সার্চ করলে স্ক্রিনে ভেসে উঠবে একটি সতর্কতা বাণী। টেক জায়ান্টগুলির তরফে জানানো হয়েছে, ইংরাজির পাশাপাশি হিন্দি ও বেশ কয়েকটি আঞ্চলিক ভাষার শব্দও ব্লক করা হচ্ছে।

[ছবি তোলার চরম অভিজ্ঞতা দিতে বাজারে এল OPPO R17 Pro]

সম্প্রতি হায়দরাবাদের একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা শিশু পর্নোগ্রাফি বন্ধের আবেদন করে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিল। এরপরই টেক জায়ান্ট এবং সোশ্যাল সাইটগুলিকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল তারা যেন শক্ত হাতে শিশু পর্নোগ্রাফি বন্ধের দায়িত্ব নেয়। কিন্তু শীর্ষ আদালতের নির্দেশ সত্ত্বেও এতদিন সেভাবে কোনও উদ্যোগ নেওয়া হয়নি। অবশেষে কাজে নেমেছে গুগল, ফেসবুক, ইয়াহু। একটি জনপ্রিয় ইন্টারনেট কোম্পানির কর্মী জানিয়েছেন, শিশু পর্নোগ্রাফি সম্পূর্ণ রূপে বন্ধ করা একটি ধারাবাহিক প্রক্রিয়া। তবে কিওয়ার্ড ব্লক করলে এই কাজে অনেকটাই সাফল্য মিলবে। এখনও পর্যন্ত একশোটিরও বেশি শব্দ ব্লক করে দেওয়া হয়েছে বলে খবর।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং