৪ আশ্বিন  ১৪২৬  রবিবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আপনার বাড়ির ছোট বাচ্চাটি কি মোবাইলে আসক্ত? উঠতে বসতে সবেতেই মোবাইল গেম কিংবা ইন্টারনেট ছাড়া চলছে না? দিনরাত স্মার্ট ফোনে মুখ গুজে বসে থাকে। সোশ্যাল মিডিয়ায় এই আসক্তি আধুনিক প্রজন্মের একটি অন্যতম বড় সমস্যা। প্রতিদিন, প্রতিনিয়ত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলিতে গোটা দুনিয়ার খবরাখবর না রাখলে অনেকটা পেটের ভাত হজম না হওয়ার মতো ব্যাপার। ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে সোশ্যাল মিডিয়ার এই আসক্তি রীতিমতো সমস্যার। পড়াশোনার ক্ষতি তো বটেই, ফোনে এই আসক্তির জন্য ক্ষতি হচ্ছে স্বাস্থ্যেরও। কিন্তু এবার হয়তো অভিভাবকরা কিছুটা নিশ্চিন্ত হতে পারেন।

[ফের ধামাকা, এবার পাঁচ বছর বিনামূল্যে এই পরিষেবা দেবে Jio]

কারণ, গুগল প্লে নিয়ে এসেছে একটা দুর্দান্ত ফিচার। এই ফিচারের মাধ্যমে ফোনের কাছে না থেকেও বাচ্চাদের স্মার্টফোনটি লক করে দিতে পারবেন অভিভাবকরা। গুগল ফ্যামিলি লিংক নামে ফিচারটির মাধ্যমে এখন খুদেদের মোবাইলে ডেটা লিমিট, লক হওয়ার সময় অ্যাপ ব্লক বা অপ্রুভ সবই করা যাবে দূর থেকেই। গুগল প্লে স্টোর থেকে কোন কোন অ্যাপ ডাউনলোড করছে আপনার শিশু তাও নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন গুগল ফ্যামিলি লিংকের মাধ্যমে। ফ্যামিলি লিংকের মাধ্যমে আপনার শিশুটি বা তাঁর ফোনটি কোথায় আছে তাও আপনি বুঝতে পারবেন।

[পুজোর আগে নয়া চমক, এবার ইনস্টাগ্রামেই করা যাবে দেদার শপিং]

আপাতত অ্যাপটি আসছে অ্যান্ড্রয়েড ইউজারদের জন্য। যে কোনও অ্যান্ড্রয়েড ইউজারের গুগল অ্যাকাউন্ট থাকলেই অ্যাপটি ডাউনলোড করা যাবে। মূলত ১৩ বছরের নিচের শিশুদের মোবাইলে গতিবিধিই নিয়ন্ত্রণ করা যাবে গুগল ফ্যামিলি লিংকের মাধ্যমে। ১৩ বছরের বেশি বয়সের কিশোরদের ক্ষেত্রেও গুগল ফ্যামিলি লিংক ব্যবহার করলে ওই কিশোরের অনুমতি প্রয়োজন। অভিভাবক ও শিশুর মোবাইলকে একে অপরের সঙ্গে লিংক করাতে হবে, এবং দুজনকেই একটি পাসওয়ার্ড দেওয়া হবে। ওই পাসওয়ার্ড দিয়েই খুদেদের মোবাইল নিয়ন্ত্রণ করা যাবে। শিশুটি যদি গুগল ফ্যামিলি লিংক থেকে বেরিয়ে আসতে চায় সেক্ষেত্রে তাঁকে পাসওয়ার্ড বদলাতে হবে। পাসওয়ার্ড বদলালেই নোটিফিকেশন চলে যাবে অভিভাবকের কাছে।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং