৫ আশ্বিন  ১৪২৬  সোমবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: স্বচ্ছতা ও বিশ্বাসযোগ্যতা বজায় রাখতে আরও তৎপর ইউটিউব। এপ্রিল থেকে জুন, এই তিন মাসে প্রায় এক লক্ষ ভিডিও ডিলিট করে দিয়েছে এই সোশ্যাল সাইট।

সন্ত্রাস ও হিংসা দমনে এর আগেও এমন উদ্যোগ নিয়েছিল ইউটিউব। তবে এবার আরও বেশি সতর্ক তারা। আর তাই আগের তুলনায় পাঁচগুণ বেশি অপ্রীতিকর-হিংসাত্মক ভিডিও নামিয়ে নিয়েছে ইউটিউব। বহু ইউটিউব চ্যানেলও ডিলিট করে দেওয়া হয়েছে। দ্বিগুণ পরিমাণ আপত্তিকর, বর্ণবিদ্বেষমূলক কমেন্টও মুছে ফেলা হয়েছে। কোম্পানির তরফে জানানো হয়েছে, তারা মোট এক লক্ষ এমন ভিডিও খুঁজে পেয়েছে, যেখানে উসকানিমূলক কথা বার্তা রয়েছে। যা সমাজে সম্প্রীতির ব্যাঘাত ঘটাতে পারে। সাধারণ মানুষকে ভুল পথে চালিত করতে পারে এইসব ভিডিও। সেই কারণেই তা সরিয়ে ফেলা হয়েছে। ১৭ হাজার এমন চ্যানেলও পাওয়া গিয়েছে, যা সন্ত্রাস ছড়িয়ে দেওয়ায় প্রত্যক্ষ এবং পরোক্ষভাবে মদত দেয়। ইউটিউবে আর তাদের কোনও অস্তিত্ব নেই। ৫০০ মিলিয়ন কমেন্টও ডিলিট করে দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে সংস্থা।

[আরও পড়ুন: চলে এসেছে জিও ফাইবার, বেছে নিন সুবিধামতো প্ল্যান]

বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়ার ভূমিকা আকাশছোঁয়া। একটি ভাইরাল ভিডিও রাতারাতি একজনকে যেমন সেলিব্রিটি বানিয়ে দিতে পারে, তেমনই একটি উসকানিমূলক ভিডিও কারও প্রাণহানির কারণ হয়েও দাঁড়াতে পারে। এমন পরিস্থিতিতে সমস্ত সোশ্যাল সাইটগুলিই নিজেদের বিশ্বাসযোগ্যতা ধরে রাখার কাজ করছে কড়া হাতে। সোশ্যাল মিডিয়া জায়ান্ট ফেসবুক যেমন অনেক ভুয়ো প্রোফাইল এবং ভুয়ো খবরের মাধ্যমে হিংসা ছড়াতে পারে এমন পেজ সরিয়ে দিয়েছে। এবার একই পথে হেঁটে আরও কঠোর হয়েছে ইউটিউব। সে সমস্ত ভিডিও এবং কমেন্ট কোম্পানির পলিসি ভেঙেছে, সেগুলিকেই মুছে ফেলা হচ্ছে। ইউটিউব জানিয়েছে, এই ধরনের ভুয়ো এবং উসকানিমূলক ভিডিও খুঁজে বের করতে একটি ইন্টেলিজেন্স ডেস্ক তৈরি করা হয়েছে। তারাই আপত্তিকর ভিডিও ডিলিট করার দায়িত্ব নিয়েছে। সেই সঙ্গে ইউটিউব চ্যানেলগুলিকে সতর্কও করা হচ্ছে যাতে ভবিষ্যতে তারা আর এ ঘটনা না ঘটায়। শিশু নিগ্রহ থেকে যৌন হেনস্তার ভিডিওর উপরও নানা নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।

[আরও পড়ুন: ফেসবুক থেকে চুরি প্রায় ৪২ লক্ষ ফোন নম্বর, আপনারটা নিরাপদ তো?]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং