BREAKING NEWS

২৩ শ্রাবণ  ১৪২৭  রবিবার ৯ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

খয়েরবাড়িতে বিশ্বমানের লেপার্ড সাফারি, শুরু তোড়জোড়

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 12, 2018 10:51 am|    Updated: July 12, 2018 10:51 am

An Images

রাজকুমার কর্মকার, আলিপুরদুয়ার: জলদাপাড়া জাতীয় উদ্যানের দক্ষিণ খয়েরবাড়ি ব্যাঘ্র পুনর্বাসন কেন্দ্রে বিশ্বমানের লেপার্ড সাফারি চালু করতে চায় রাজ্য বনদপ্তর। শিলিগুড়ির বেঙ্গল সাফারি ২০ হেক্টর জমির উপর গড়ে উঠেছে। আর দক্ষিণ খয়েরবাড়িতে ২৩ হেক্টর জমিতে লেপার্ড সাফারি চালু করতে চাইছে রাজ্য বনদপ্তর। ইতিমধ্যেই ন্যাশনাল জু অথরিটির কাছে সেই প্রস্তাব পাঠিয়েছে রাজ্য বনদপ্তর। সেখান থেকে অনুমোদন মিললেই এই লেপার্ড সাফারি চালুর কাজ শুরু করা হবে। এছাড়া জলদাপাড়া জাতীয় উদ্যানের খয়েরবাড়িতে একটি ডিয়ার পার্ক চালু করার সিদ্ধান্তও নেওয়া হয়েছে। ৪ হেক্ট্রর জমির উপর এই ডিয়ার পার্ক চালু করতে চায় বনদপ্তর। ডিয়ারপার্ক চালুর বিষয়ে যেহেতু কেন্দ্রীয় কোনও অনুমোদনের বিষয় নেই সেই কারণে লেপার্ড সাফারির আগে ডিয়ার পার্ক চালু করতে চাইছে রাজ্য।

[OMG! দেশের বুকে রয়েছে এমন অদ্ভুত মন্দিরও!]

রাজ্যের বনমন্ত্রী বিনয় কৃষ্ণ বর্মন এই খবর জানান। তিনি বলেন, “৪ হেক্টর জমিতে ডিয়ার পার্ক তৈরি করা হবে। এছাড়া ২৩ হেক্টর জমিতে দক্ষিণ খয়েরবাড়িতে লেপার্ড সাফারি তৈরি করা হবে। এই সংক্রান্ত যাবতীয় মাপজোপের কাজ শেষ করেছে রাজ্য বনদপ্তর। ন্যাশনাল জু অথরিটির কাছে এই প্রকল্পের অনুমোদনের জন্য পাঠানো হয়েছে। অনুমোদন পেলেই কাজ শুরু করা হবে। ডিয়ার পার্ক যেহেতু সম্পূর্ণ রাজ্য বনদপ্তরের বিষয় সেই কারণে লেপার্ড সাফারির আগেই ডিয়ার পার্ক চালু হচ্ছে।” উল্লেখ্য সম্প্রতি দক্ষিণ খয়েরবাড়ি থেকে সম্প্রতি শচীন ও সৌরভ নামে দুটো চিতাবাঘকে শিলিগুড়ির বেঙ্গল সাফারিতে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এর পরেই দক্ষিণ খয়েরবাড়ির গুরুত্ব দিন দিন কমিয়ে দেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ তুলে রাস্তায় নেমে আন্দোলন শুরু করে বিভিন্ন সংগঠন।

গনজাগরণ মঞ্চ নামে একটি সংগঠন এই অভিযোগ নিয়ে রাজ্য বনকর্তাদের দ্বারস্থ হয়েছিলেন। প্রতিবাদের বার্তা নিয়ে এলাকার সাধারণ নাগরিকদের মধ্যেও গিয়েছিল এই সংগঠন। এর পর বনমন্ত্রীর এই ঘোষণায় স্বাভাবিকভাবেই আশার আলো দেখছে বিভিন্ন সংগঠন। আলিপুরদুয়ার গণজাগরণ মঞ্চের সম্পাদক বাবুন দাস বলেন, “আমরা বনমন্ত্রীর ঘোষণায় খুশি। কিন্তু বাস্তবে দ্রুত এই সব প্রকল্পের কাজ শুরু করতে হবে। নাহলে ভবিষ্যতে সাধারণ নাগরিকদের নিয়ে আমরা তীব্র থেকে তীব্রতর আন্দোলন শুরু করব। বিষয়টি নিয়ে পর্যটনের জেলা আলিপুরদুয়ারে তুমুল ক্ষোভ রয়েছে।” দক্ষিণ খয়েরবাড়ি ব্যাঘ্র পুনর্বাসন কেন্দ্রে বর্তমানে ৭টি চিতাবাঘ ও একটি রয়াল বেঙ্গল টাইগার রয়েছে।

[শচীন রাজি হলেও নারাজ সৌরভ, বিপাকে সাফারি পার্ক কর্তৃপক্ষ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement