BREAKING NEWS

১৭ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৭  রবিবার ৩১ মে ২০২০ 

Advertisement

পর্যটক টানতে এবার বেঙ্গল সাফারি পার্কে ‘শচীন-সৌরভ’ যুগলবন্দি

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: June 19, 2018 1:33 pm|    Updated: June 19, 2018 1:33 pm

An Images

স্টাফ রিপোর্টার, শিলিগুড়ি: এবার বেঙ্গল সাফারি পার্কে দর্শক মনোরঞ্জনে হাজির শচীন-সৌরভ। রবিবারই এই জুটিকে স্থায়ীভাবে আনা হয়েছে পার্কে। এখন থেকে এখানেই থাকবে তারা। খুব দ্রুত দর্শকদের জন্য তাদের ছেড়ে দেওয়া হবে পার্কের খোলা এনক্লোজারে। তবে ব্যাট-প্যাড নয়, এদের ইউএসপি এদের নামই। বেঙ্গল সাফারি পার্কের নতুন অতিথি দুই পুরুষ চিতাবাঘ।

[ব্যাগের লিচুতে পড়ছে টান, গো-বাহিনীর তাণ্ডবে ত্রস্ত কাটোয়া রেলস্টেশন]

নতুন অতিথিকে স্থায়ী আস্তানা দিতে পেরে খুশি বনমন্ত্রী বিনয়কৃষ্ণ বর্মন। তিনি বলেন, “চিতা দু’টিকে খয়েরবাড়ি জঙ্গল থেকে শিলিগুড়ির বেঙ্গল সাফারি পার্কে পাঠানো হল। আরও দু’টি চিতা আনা হবে। সেগুলিকে অন্য কোনও জায়গা থেকে আনার বন্দোবস্ত করা হবে।”  সাফারিও অল্প দিনের মধ্যেই শুরু করা হবে বলে জানানো হয়েছে। চিতা আসার বিষয়টি পার্কের আকর্ষণ আরও বাড়াবে বলে মনে করেন পর্যটনমন্ত্রী গৌতম দেব। তিনি বলেন, “চিতা সাফারি আমাদের পরিকল্পনায় অনেকদিন ধরে ছিল। বাঘগুলি এসে যাওয়ায় তা দ্রুত চালু করা হবে। ইতিমধ্যে র‌য়্যাল বেঙ্গল, ভাল্লুক, হাতি সাফারি বিপুল জনপ্রিয় হয়েছে। চিতা সাফারি শুরু হলে ষোলকলা সম্পূর্ণ হবে।” এছাড়াও জিরাফ আনার পরিকল্পনা রয়েছে। একটি টানেল অ্যাকোরিয়াম আর প্রজাপতি পার্ক তৈরির পরিকল্পনা রয়েছে পার্কে বলেও জানিয়েছেন গৌতমবাবু।

সাফারি পার্কের অধিকর্তা অরুণ মুখোপাধ্যায় বলেন, “চিতা দু’টি এখনও ধাতস্থ হয়ে উঠতে পারেনি। ওদের কয়েকদিন সময় দিতে হবে। তারপরই আস্তানার খাঁচায় ছাড়া হবে। আপাতত পর্যবেক্ষণে রয়েছে। তবে সুস্থ রয়েছে।” বনদপ্তর সূত্রে জানানো হয়েছে ওই দু’টি চিতার বয়সই পাঁচ বছর। পনেরো দিন বয়সে চিতা দু’টিকে উদ্ধার করা হয় জলদাপাড়া থেকে। তারপরই জলদাপাড়ার দক্ষিণ খয়েরবাড়ি পুনর্বাসন কেন্দ্রেই ছিল চিতা দু’টি। তবে সুস্থ এবং স্বাভাবিক রয়েছে তারা। পার্কের চিকিৎসক আদিত্য মিত্র জানিয়েছেন, প্রথম দিন সাড়ে তিন কেজি গোমাংস দেওয়া হয়েছে। ঠিক মতোই খাওয়া দাওয়া করেছে তারা। ফলে স্বস্তিতে পার্ক কর্তারাও। ইতিমধ্যেই পার্কের আকর্ষণে শিলিগুড়িতে রাজ্যের বাইরে থেকে লোকজন আসছেন। বিশেষ করে দিল্লি, তামিলনাড়ু, হায়দারাবাদ, কর্ণাটকের পর্যটনকদের সংখ্যা বেশি। আশপাশের দেশ এমনকী নেপাল ও ভুটানের পর্যটক প্রায়ই ভিড় জমাচ্ছেন পার্কে বিনোদনের স্বাদ নিতে। বাংলাদেশের পর্যটকদেরও উপস্থিতি নজরে পড়ছে। জার্মানি, শ্রীলঙ্কা এবং সিঙ্গাপুরের কয়েকটি দলও ঘুরে গিয়েছে বলে পার্ক সূত্রে জানা গিয়েছে। ফলে পার্ককে ঘিরে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের যে আশা ছিল, তা পূরণ করতে পারছে এই পার্ক।

[নাবালিকা মেয়ের বিয়ে দিতে গিয়ে পুলিশের জালে তান্ত্রিক বাবা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement