BREAKING NEWS

১৫ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  মঙ্গলবার ১ ডিসেম্বর ২০২০ 

Advertisement

পদবি ‘‌করোনা’‌, অন্যদের বিশ্বাস করাতে সঙ্গে পাসপোর্ট নিয়ে ঘুরছেন এই ব্যক্তি

Published by: Abhisek Rakshit |    Posted: October 23, 2020 7:00 pm|    Updated: October 23, 2020 7:00 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:‌ উইলিয়াম শেক্সপিয়ারের মহান উক্তি– What’s in a name? অর্থাৎ নামে কী এসে যায়?‌ কিন্তু পদবি যদি ‘‌করোনা’‌ হয়?‌ তাহলে বর্তমান সময়ে সত্যিই তাতে সমস্যা হতে পারে!‌ আর সেরকই সমস্যার সম্মুখীন হয়েছেন ব্রিটেনেরই (United Kingdom) এক ব্যক্তি। পরিস্থিতি এতটাই জটিল লোকজনকে বোঝাতে নিজের পাসপোর্ট এবং ব্যাংকের আইডি সঙ্গে নিয়েই সবসময় ঘুরে বেড়াচ্ছেন। শুনতে অবাক লাগলেও এটাই সত্যি।

জানা গিয়েছে, ৩৮ বছর বয়সি ওই ব্যক্তির নাম জিমি করোনা। ‌পেশায় নির্মাণকর্মী। তাঁদের পারিবারিক পদবিই করোনা (‌Korona)‌। জিমির পূর্বপুরুষ আবার ব্রিটিশ সেনাবাহিনীর সদস্যও ছিলেন। তাঁর দাদু যোগ দিয়েছিলেন দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে। বহুদিন বন্দি ছিলেন নাৎসি ক্যাম্পেও। এহেন পরিবারের সদস্যকেই পদবির জন্যই কার্যত বিপাকে পড়তে হয়েছে।

[আরও পড়ুন: করোনার ঢাল হেলমেট! অভিনব ‘আইডিয়া’য় চমকে দিলেন বর্ধমানের যুবক]

ঘটনার সূত্রপাত গোটা বিশ্বে মারণ করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের পর থেকেই। বিশ্বের ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলোর মধ্যে ব্রিটেন অন্যতম। এদিকে, সেসময়ের পর থেকে কাউকে নিজের নাম বললেই অস্বস্তিতে পড়তে হচ্ছিল জিমিকে। ”সত্যিই কি তোমার পদবি করোনা?” কেউ সোজাসুজি প্রশ্ন করে, তো কেউ আবার এই নিয়ে মজা করতে থাকেন। এর মধ্যে আবার ছেলের চিকিৎসা করাতে গিয়েও বিপাকে পড়েন। তাও এই পদবির কারণেই। শেষপর্যন্ত দেখাতে হয় ছেলের জন্ম শংসাপত্র। বর্তমানে নিরুপায় হয়ে নিজের পাসপোর্ট এবং ব্যাংকের আইডি সঙ্গে রাখতে শুরু করেছেন জিমি। এক সাক্ষাৎকারে নিজেই সেকথা জানান।

জিমির কথায়, ‘‌‘‌করোনা মহামারীর (Corona Pandemic) পর থেকে কেউই আমাকে যেন বিশ্বাস করত না। যেখানেই যেতাম সবাই আমাকে নিয়ে মজা করত। বিশ্বাস করতে চাইত না করোনা আমার পদবি। তবে বহুদিন ধরে যাঁরা আমায় চিনত, তাঁরা এই নিয়ে কেউ মজা করেননি। তাই আমি এখন পাসপোর্ট এবং ব্যাংকের আইডি সঙ্গে রাখি। কেউ বিশ্বাস না করলে তাঁকে দেখিয়ে দিই সেটা। সবসময় এভাবে নিজের নাম শুনতে কারোরই ভাল লাগে না।’‌’‌

[আরও পড়ুন: প্রেমিকার সঙ্গে প্রথম সাক্ষাতেই খসল লাখ টাকা! জানুন চিনা প্রেমিকের দুঃখের কাহিনি]

 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement