BREAKING NEWS

১৯  মাঘ  ১৪২৯  শুক্রবার ৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ 

READ IN APP

Advertisement

খাবার টেবিলে চরম বচসা, বিয়ের পরক্ষণেই বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নবদম্পতির

Published by: Tanujit Das |    Posted: January 31, 2019 8:46 pm|    Updated: January 31, 2019 8:57 pm

Couple breaks marriage over food

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: রাগ, ঝগড়া, খুনসুটি বৈবাহিক সম্পর্কে এগুলি অত্যন্ত স্বাভাবিক বিষয়৷ কথায় বলে, ভালবাসায় একটু মান-অভিমান, বিরহ না থাকলে, সেই ভালবাসা ঠিক জমে ওঠে না৷ এগুলিই নাকি মশলার মতো কাজ করে৷ সম্পর্কে আরও বেশি সুস্বাদু করে তোলে৷ কিন্তু আহমেদাবাদের এই নবদম্পতি যে কীর্তি করল, তারপর বোধ হয় এই সমস্ত প্রবাদ বাক্যে ইতি পড়তে চলেছে৷ সামান্য খাবারের জন্য, এত বড় সিদ্ধান্ত? বিয়ের কিছুক্ষণের মধ্যেই, বিয়ে ভেঙে দিলেন! এখনও বিশ্বাস করতে পারছেন না অনেকে৷ কিন্তু এমনটা সত্যিই ঘটেছে৷

[বদলাচ্ছে ‘অর্ধেক আকাশ’, কনকাঞ্জলিতে নিয়ম ভাঙলেন নববধূ]

ভারতের ইতিহাসে এটাই হয়তো সবচেয়ে তাড়াতাড়ি বিবাহবিচ্ছেদের ঘটনা৷ বিয়ের কয়ের ঘণ্টার মধ্যে বিচ্ছেদ, এমন নজির নাকি ইতিহাসে আর একটাও নেই৷ পরিসংখ্যান ঘেঁটেও এমন একটা উদাহরণ খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না৷ ঠিক কী ঘটেছিল ওই দিন? জানা গিয়েছে, বিয়ে করতে গুজরাটের খেদা থেকে গোণ্ডলে এসেছিলেন বর ও তাঁর পরিবারের সদস্যরা৷ সবকিছু ঠিকঠাক চলছিল৷ বিয়েও হয় শান্তিপূর্ণভাবে৷ কিন্তু গোল বাধে বিয়ের পর খাবার টেবিলে বসে৷ খাবার নিয়ে সেখানে বাদানুবাদে জড়িয়ে পড়েন নবদম্পতি৷ পরস্পরের মধ্যে চরম বচসা বাধে৷ পরিস্থিতি এতটাই অস্বাভাবিক হয়ে ওঠে যে, বরযাত্রী ও কনেযাত্রীরাও পরস্পরের দিকে থালা-গ্লাস ছুঁড়তে থাকেন। তাঁদের মধ্যে লেগে যায় হাতাহাতি৷

[পুরুষের নজর এড়াতে তরুণীদের স্তনে গরম পাথরের ছেঁকা!]

পরিস্থিতি সামাল দিতে ঘটনাস্থলে আসে পুলিশ। উন্মত্ত বিয়ের বাড়িকে থামানোর চেষ্টা করেন৷ কিন্তু কোনও লাভ হয় না৷ বচসা থামার নয় দেখে, পিছিয়ে আসেন পুলিশ কর্মীরা৷ নীরবে দু’পক্ষের মধ্যে হাতাহাতি দেখতে থাকেন৷ শেষপর্যন্ত বিচ্ছেদের সিদ্ধান্তেই ঝামেলায় ইতি টানেন নবদম্পতি৷ আইনজীবী ডেকে বিচ্ছেদের পথে হাঁটেন তাঁরা৷ আজীবন একসঙ্গে থাকার যে প্রতিশ্রুতি দিয়ে সাতপাঁকে বাঁধা পড়েছিলেন, কয়েক ঘণ্টার মধ্যে ভাঙলেন সেই প্রতিশ্রুতি৷ যাতে সম্মতি জানিয়েছে ওই দম্পতির পরিবারের সদস্যরাও৷ এই ঘটনা দেখে অবাক আমন্ত্রিত অতিথিরাও৷ এমন বিয়ে বাড়ি জীবনে কখনও দেখেননি বলে জানাচ্ছেন তাঁরা৷ 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে