×

৮ ফাল্গুন  ১৪২৫  বৃহস্পতিবার ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার
নিউজলেটার

৮ ফাল্গুন  ১৪২৫  বৃহস্পতিবার ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: রাতের অন্ধকারে শ্মশানের এক কোণে বসে রয়েছে বছর চল্লিশের এক ব্যক্তি৷ ‘ওখানে কী করছে ও?’ প্রশ্ন জাগে স্থানীয়দের মনে৷ ধীরে ধীরে সন্দেহভাজনের কাছে যান তাঁরা৷ খুব কাছে পৌঁছাতেই, তাঁদের চোখের সামনে ভেসে ওঠে ভয়ংকর এক দৃশ্য৷ তাঁরা দেখেন, ওই ব্যক্তির মুখে লেগে রয়েছে রক্ত৷ শ্মশানের আধপোড়া লাশের মাংস তৃপ্তি ভরে খাচ্ছে সে৷ এবং ওই ব্যক্তি আর কেউ নয়, তাঁদের অতি পরিচিত মুরুগেসন৷

[চিটফান্ড তদন্তে সিবিআইয়ের ‘স্পেশ্যাল ১০’ টিম আসছে শহরে ]

চলতি সপ্তাহে এই ভয়ংকর ঘটনাটি ঘটেছে তামিলনাড়ুর বাসুদেবভানাল্লুরের একটি প্রত্যন্ত গ্রামে৷ স্থানীয়রা জানিয়েছেন, ওই ব্যক্তি তাঁদের গ্রামেরই বাসিন্দা৷ পেশায় ঠিকা কর্মী সে৷ তার বিরুদ্ধে আগেও এই ধরনের অভিযোগ উঠেছে৷ ফলে স্ত্রী-সন্তানরা তার সঙ্গে থাকে না৷ অদ্ভুত, আতঙ্কময় স্বভাব দেখে ছেড়ে চলে গিয়েছেন তাঁরা৷ কিন্তু তারপরেও স্বভাব পরিবর্তন হয়নি মুরুগেসনের৷ জানা গিয়েছে, বেশ কয়েক মাস ধরেই গ্রামের শ্মশানে কিছু সন্দেহজনক গতিবিধি লক্ষ্য করছিলেন গ্রামবাসীরা৷ তাঁরা দেখেন, অনেক লাশ আধপোড়া অবস্থায় রয়েছে৷ লাশের আধপোড়া মাংস শ্মশানের বিভিন্ন স্থানে ছড়িয়ে রয়েছে৷ এরপরই রাত পাহারায় বসেন গ্রামের কয়েকজন যুবক৷ সেই পাহারার সময়ই হাতেনাতে ধরা পড়ে মুরুগেসন৷

[‘বন্দেমাতরম’ গাইতে চাননি, শিক্ষককে গণধোলাই স্থানীয়দের]

অভিযুক্তকে পাকড়াও করে ইতিমধ্যে স্থানীয় পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে৷ ধৃত মানসিকভাবে বিপর্যস্ত কিনা, তা জানতে মনোবিদদের সাহায্য নিচ্ছেন পুলিশ কর্তারা৷ ঘটনার দু’দিন পরেও ওই রাতের কথা ভেবে আতঙ্কে ভুগছেন স্থানীয়রা৷ যাঁরা অভিযুক্তকে পাকড়াও করেছেন, সেই গ্রামবাসীরাও ওই সময়কার বর্ণনা দিতে গিয়ে আঁতকে উঠছেন৷ মুরুগেসন কোনও ভাবে তন্ত্র সাধনার সঙ্গে যুক্ত কি না, তা খোঁজার চেষ্টা করেছে পুলিশ৷

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং