৩০ কার্তিক  ১৪২৬  রবিবার ১৭ নভেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: প্রতি বছরের মতো এবারও শীত শুরুর আগে বায়ু দূষণে জেরবার দিল্লি। শুরু হয়ে গিয়েছে একে অপরকে দোষারোপের পালাও। বিগত কয়েক বছর ধরে দেশের রাজধানীর দূষণের পরিমাণ বাড়ছে। কিন্তু, এবার আগের সমস্ত রেকর্ড ভেঙে সর্বাধিক দূষণের সাক্ষী হয়েছে দিল্লি। শুক্রবার ভোরে পরিস্থিতি এতটাই খারাপ হয়েছে যে চারিদিক ধোঁয়ার ভরে গিয়েছে। এদিকে শহরের এই পরিস্থিতির জন্য পাঞ্জাব ও হরিয়ানার দিকেই অভিযোগের আঙুল তুলেছেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। সেখানকার কৃষকরা ফসলের বাতিল অংশ পুড়িয়ে দেওয়ার ফলেই দূষণ বেড়েছে বলেই উল্লেখ করেন তিনি।

[আরও পড়ুন: “কংগ্রেস-এনসিপির সঙ্গেও যোগাযোগ করছি”, বিজেপিকে হুমকি শিব সেনার]

এই দুটি রাজ্যের জন্য দেশের রাজধানী গ্যাস চেম্বারে পরিণত হয়েছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি। আর এই দূষণের হাত থেকে রাজ্যবাসীকে বাঁচাতে সরকারের তরফে মাস্ক দেওয়ার কথাও ঘোষণা করেন তিনি। সেই অনুযায়ী শুক্রবার সকালে দিল্লির স্কুল পড়ুয়াদের মাস্ক বিলি করেন তিনি। এর জন্য সরকার ৫০ লক্ষ মাস্ক কিনেছে বলেও জানান। এরপরই স্কুল পড়ুয়াদের দূষণ রোধের জন্য পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী ক্যাপ্টেন অমরিন্দার সিং ও হরিয়ানার মুখ্যমন্ত্রী মনোহরলাল খাট্টারকে চিঠি পাঠানোর আবেদন করেন কেজরিওয়াল। পরে পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত স্কুলগুলি বন্ধ রাখা হবে বলেও ঘোষণা করেন তিনি।

পড়ুয়াদের হাতে মাস্ক তুলে দেওয়ার ফাঁকে এপ্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘দয়া করে ক্যাপ্টেন আঙ্কেল ও খাট্টার আঙ্কেলকে চিঠি লিখে তোমাদের স্বাস্থ্যের কথা খেয়াল করতে বলো।’

[আরও পড়ুন: ‘পরিবেশ বাঁচানোর লড়াই পুরস্কারের জন্য নয়’, অর্থমূল্য ফেরাল গ্রেটা থুনবার্গ]

পরে এই বিষয়ে টুইট করেন, ‘প্রতিবেশী রাজ্যগুলিতে ফসল পোড়ানোর ফলে দিল্লি গ্যাস চেম্বারে পরিণত হয়েছে। এই বিষাক্ত পরিবেশ থেকে নিজেদের রক্ষা করাটা এখন সবচেয়ে বেশি জরুরি। তাই সরকারি ও বেসরকারি স্কুলের পড়ুয়াদের জন্য আমরা আজ থেকে মাস্ক বিতরণ করছি। এর জন্য মোট ৫০ লক্ষ মাস্ক কেনা হয়েছে। দিল্লিবাসীর কাছে অনুরোধ করব যখনই দরকার পড়বে তখনই এই মাস্ক ব্যবহার করুন।’

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং