৫ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  শুক্রবার ২২ নভেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: চন্দ্রযান ২ পুরোপুরি সফল হয়নি। ল্যান্ডার বিক্রম ইসরোর নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গিয়েছে। তার সঙ্গে কোনও যোগাযোগ নেই। কিন্তু তাতেও দমে থাকতে রাজি নয় ইসরো। ভারতীয় মহাকাশ গবেষণা সংস্থার চেয়ারম্যান কে শিবন জানিয়ে দিলেন, ফের চন্দ্রাভিযানের পরিকল্পনা করছে ইসরো। এর জন্য রীতিমতো অ্যাকশন প্ল্যান তৈরি শুরু হচ্ছে। তিনি বলেন, “আমরা গোটা পৃথিবীকে দেখিয়ে দিতে চাই, আমরাও সফলভাবে চাঁদের মাটিতে অবতরণ করতে পারি। আমাদের বিজ্ঞানীরা পরিকল্পনা শুরু করেছেন কীভাবে চাঁদের মাটিতে পা রাখা যায়।”


শুধু তাই নয়, শনিবার শিবন জানিয়েছেন, চন্দ্রযানের পাশাপাশি সোলার মিশন, এবং গগণযান প্রকল্পেও সমানভাবে এগিয়ে চলেছে ইসরো। তিনি বলেন, “আমাদের পরিকল্পনা মতো আদিত্য এল ১ সোলার মিশনের কাজ খুব সুচারুভাবে চলছে। মহাকাশে মানুষ পাঠানোর পরিকল্পনাও সফলভাবে এগোচ্ছে। আগামী কয়েক মাসে বেশ কয়েকটি অত্যাধুনিক স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের পরিকল্পনা আমরা করেছি। ” চন্দ্রযান সম্পর্কে ইসরোর চেয়ারম্যান বলেন, “চন্দ্রযান ২-এর অরবিটার এখনও সফলভাবে কাজ করছে। আমরা বেশ কিছু অতি মূল্যবান তথ্য পেয়েছি। যা আমাদের আগামীদিনে চাঁদের মাটিতে সফট ল্যান্ডিংয়ে সহযোগিতা করবে।”

[আরও পড়ুন: পথ দেখিয়েছে ‘প্রজ্ঞান’, চন্দ্রপৃষ্ঠে জলের খোঁজে নাসার রোবট ‘ভাইপার’]


উল্লেখ্য, ইসরোর বহুপ্রতীক্ষিত চন্দ্রযান মিশন শুরু হয় এবছর ২২ জুলাই। সেদিন দুপুরে অন্ধ্রপ্রদেশের শ্রীহরিকোটা সতীশ ধাওয়ান স্পেস সেন্টার থেকে চন্দ্রযানকে নিয়ে উড়ান শুরু করে বাহুবলী জিওসিঙ্ক্রোনাস রকেট। ২৩ দিন পৃথিবীকে প্রদক্ষিণ করে ১৪ আগস্ট ভোর রাতে চন্দ্রযান লাফ দেয় চাঁদের দিকে। ২৫ দিন চাঁদকে পাক খেয়ে অবশেষে অবতরণের পরিকল্পনা করা হয়। ৬ সেপ্টেম্বর মাঝরাতে চাঁদের পিঠে নামতে গিয়েই হারিয়ে গিয়েছিল বিক্রম। যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গিয়েছিল চন্দ্রপৃষ্ঠ থেকে ২.১ কিলোমিটার দূরে। বিক্রমের সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যাওয়ায়, গোটা দেশ হতাশায় ডুবে যায়। আবারও দেশবাসীকে আশার গল্প শোনালেন ইসরো প্রধান। জানিয়ে দিলেন, দ্রুত চাঁদের মাটিতে পা রাখবে ভারতের পরবর্তী চন্দ্রযান।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং