২৮ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২০ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

আইপিএলে একটি বিশেষ দলকে সুবিধা পাইয়ে দিচ্ছে বিসিসিআই, বোর্ডের উপর ক্ষুব্ধ ফ্র‌্যাঞ্চাইজিরা‌

Published by: Abhisek Rakshit |    Posted: September 21, 2020 9:58 pm|    Updated: September 21, 2020 9:59 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:‌ শুরুতেই বিতর্কে IPL!‌ করোনা (Covid-19) আবহে দেশে নয়, এবারের টুর্নামেন্ট হচ্ছে সংযুক্ত আরব আমিরশাহীতে (United Arab Emirates)। আর সেখানে সংক্রমণ রুখতে খেলোয়াড়দের যেমন জৈব সুরক্ষা (Bio-Bubble) বলয়ে থাকতে হচ্ছে, তেমনই জারি করা হয়েছে একাধিক বিধিনিষেধ। টুর্নামেন্ট শুরুর আগেই ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোকে এই ব্যাপারে স্পষ্ট নির্দেশিকা দিয়েছিল ভারতীয় বোর্ড। কিন্তু এর মধ্যেই বোর্ডের বিরুদ্ধে নিজেদেরই নির্দেশিকা না মানার জন্য এবং কয়েকটি ফ্র‌্যাঞ্চাইজিকে বাড়তি সুবিধা দেওয়ার অভিযোগ উঠল।

[আরও পড়ুন: দৃষ্টিহীনদের দৃষ্টি ফেরাবে O‌rCam–এর বিশেষ ক্যামেরা, ১১ জনকে উপহার দিলেন মেসি]

কয়েকজন বিদেশি খেলোয়াড়ের জন্য কোভিড সংক্রান্ত জারি করা নির্দেশিকা নিজেরাই মানছে না বোর্ড। এমনই অভিযোগ কয়েকটি ফ্র‌্যাঞ্চাইজির। সরকারিভাবে অভিযোগ না জানালেও ভিতরে ভিতরে তাঁরা ক্ষুব্ধ। একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমে গোটা বিষয়টির সঙ্গে যুক্ত এক আধিকারিককে উদ্ধৃত করে একথা জানানো হয়েছে। মূলত চেন্নাই সুপার কিংসের (Chennai Super Kings) দুই বিদেশি ক্রিকেটার স্যাম কুরান এবং জোস হ্যাজেলউডের বিরুদ্ধে নিয়মমাফিক ৩৬ ঘণ্টা কোয়ারেন্টাইনে না থাকার অভিযোগ তুলেছেন তিনি। ওই আধিকারিক জানিয়েছেন, ‘‌‘জৈব সুরক্ষা বলয়ে নিজেদের খেলোয়াড় এবং সাপোর্ট স্টাফদের রাখা‌র জন্য আমরা অনেক টাকা খরচ করেছি। কিন্তু ইংল্যান্ড–অস্ট্রেলিয়া সিরিজ খেলে এখানে আসা চেন্নাইয়ের হ্যাজেলউড এবং কুরান–দু’‌জনেই কোয়ারেন্টাইনের নিয়ম না মেনে বাসে করে আবু ধাবি আসেন। যদি তাঁদের শরীরে করোনার ভাইরাস থাকত, তাহলে বাকিদেরও জীবনসংশয় দেখা দিতে পারত। বাকিরাও সংক্রমিত হতে পারতেন।’‌’

[আরও পড়ুন: চলতি আইপিএলের মাঝপথেই কার্তিককে সরিয়ে কেকেআরের অধিনায়ক হতে পারেন মর্গ্যান!]

এর সঙ্গেই তিনি যোগ করে জানান, আসলে ৩৬ ঘণ্টা কোয়ারেন্টাইনে থাকার কথা থাকলেও দু’‌জনের কেউই পুরো সময় কোয়ারেন্টাইনে ছিলেন না। কারণ নিয়মানুযায়ী কোনও ম্যাচের চার ঘণ্টা আগে স্টেডিয়ামে পৌঁছতে হয়। আর তাই হিসেবমতো দু’‌জনেই নিয়ম ভেঙেছেন। এরপরই বিস্ফোরক অভিযোগটি করে ওই আধিকারিক বলেন, ‘‌‘‌এখানেই BCCI-এর দ্বিচারিতা স্পষ্ট। একটি ফ্র‌্যাঞ্চাইজির বিদেশি খেলোয়াড়দের কোয়ারেন্টাইনের পুরো নিয়ম পালন করতে হচ্ছে। অন্যদিকে, আরেকটি দলের খেলোয়াড়দের জন্য সেই সময়সীমা কমিয়ে ৩৬ ঘণ্টা করে দেওয়া হচ্ছে। তা সত্ত্বেও সে দলের খেলোয়াড়রা ওই নিয়মটুকুও মানছেন না।’‌’

তবে এই প্রথম নয়, এর আগেও করোনা সংক্রান্ত বিধিনিষেধ মানার ব্যাপারে গা ছাড়া মনোভাব দেখানোর অভিযোগ উঠেছিল মহেন্দ্র সিং ধোনির (Mahendra Singh Dhoni) চেন্নাই সুপার কিংসের বিরুদ্ধে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement