১১ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  শুক্রবার ২৭ নভেম্বর ২০২০ 

Advertisement

নাইটদের বিদায়, ওয়ার্নার–ঋদ্ধির ব্যাটে মুম্বই বধ করে প্লে–অফে গেল হায়দরাবাদ

Published by: Abhisek Rakshit |    Posted: November 3, 2020 11:01 pm|    Updated: November 3, 2020 11:31 pm

An Images

মুম্বই ইন্ডিয়ান্স:‌ ২০ ওভারে ১৪৯/‌৮ (‌পোলার্ড ৪১, সন্দীপ ৩/‌৩৪)‌
সানরাইজার্স হায়দরাবাদ:‌ ১৭.‌১ ওভারে ১৫১/‌০ (‌ওয়ার্নার ৮৫*‌, কুলটার নাইল ০/‌২৭)‌
সানরাইজার্স হায়দরাবাদ দশ উইকেটে জয়ী।

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ম্যাচের আগে অঙ্কটা সবার কাছেই পরিষ্কার হয়ে গিয়েছিল। মুম্বইয়ের বিরুদ্ধে হায়দরবাদ জিতলে তাঁরা চতুর্থ দল হিসেবে প্লে–অফে যাবে। আর হারলে ভাগ্য খুলবে কলকাতা নাইট রাইডার্সের (Kolkata Knight Riders)। শেষপর্যন্ত অবশ্য শেষ হাসি হাসলেন ডেভিড ওয়ার্নাররাই (David Warner)। ‘‌ডু ‌অর ডাই’‌ ম্যাচে অধিনায়কের মতোই খেললেন ওয়ার্নার। তাঁকে যোগ্যসঙ্গত দিলেন বাংলার ঋদ্ধিমান সাহা। আর দু’‌জনের ব্যাটে ভর দিয়ে ১০ উইকেটে এবারের টুর্নামেন্টের অন্যতম সেরা দল মুম্বইকে হারাল হায়দরাবাদ। আর সমান পয়েন্ট থাকলেও নেট রানরেট কম থাকায় স্বপ্নভঙ্গ হল নাইটদের।

‌এদিন টসের সময়ই কার্যত সবাই চমকে যান। BCCI প্রেসিডেন্ট সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় (Sourav Ganguly) যেখানে জানান, রোহিত শর্মার (Rohit Sharma) চোট। সেখানে মুম্বইয়ের হয়ে টস করতে নামেন ‘‌হিটম্যান’। যা দেখে অবাক হয়ে যান ক্রিকেটপ্রেমীরাও। অনেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায় আবার সেই নিয়ে টুইটও করেন। যদিও টস হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই আউট হয়ে যান রোহিত। ৪ রান করে সন্দীপ শর্মার বলে আউট হন। কিন্তু কুইন্টন ডি’‌কক–সূর্যকুমার যাদব দলের হাল ধরেন। ডি’‌কক ২৫ রানে আউট হওয়ার পর ক্রিজে আসেন ইশান কিষান। তিনি করেন ৩৩ রান। সূর্যের সংগ্রহ ৩৬ রান। এরপর আচমকাই ধস নামে মুম্বই ইনিংসে। তবে শেষপর্যন্ত পোলার্ডের ৪১ রানের সৌজন্য নির্ধারিত ২০ ওভারে আট উইকেটে ১৪৯ রান তোলে মুম্বই।

[আরও পড়ুন: ইমরান ‘ড্রাগখোর’, কোকেন নিতেন! বিস্ফোরক দাবি পাক প্রধানমন্ত্রীর একসময়ের সতীর্থের]

জবাবে ব্যাট করতে নেমে অনবদ্য ব্যাটিং করেন দুই হায়দরাবাদ ওপেনার ঋদ্ধিমান সাহা এবং ডেভিড ওয়ার্নার। তবে মুম্বই এদিন দলের দুই সেরা অস্ত্র জসপ্রীত বুমরাহ এবং বোল্টকে ছাড়াই মাঠে নেমেছিল। ছিলেন না হার্দিক পাণ্ডিয়াও। আর তাই কিছুটা খোলামনেই ব্যাট করেন ওয়ার্নার–ঋদ্ধিমান। দু’‌জনেই অর্ধ–শতরানও পূর্ণ করেন। ওয়ার্নার করেন অপরাজিত ৮৫ রান। তাও আবার মাত্র ৫৮ বলে। মারেন ১০টি চার ও একটি ছয়। অন্যদিকে, ৪৫ বলে ৫৮ রান করে অপরাজিত থাকেন ঋদ্ধি। আর বুমরাহ–বোল্ট ছাড়া মুম্বইয়ের কোনও বোলারই তেমন দাগ কাটতে পারলেন না। মাত্র ১৭.‌১ ওভারেই জয়ের জন্য প্রয়োজনীয় ১৫০ রানের লক্ষ্যমাত্রাই পৌঁছে যায় হায়দরাবাদ।

 

প্লে–অফে এবার কোয়ালিফায়ার ওয়ানে মুখোমুখি হবে মুম্বই ইন্ডিয়ান্স (Mumbai Indians) এবং দিল্লি ক্যাপিটালস (Delhi Capitals)। অন্যদিকে, এলিমিনেটরে খেলবে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ (Sunrisers Hyderabad) এবং রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর (Royal Challengers Bangalore)।

IPL Final Round matches

[আরও পড়ুন: বিপাকে বিরাট–সৌরভ, অনলাইন ফ্যান্টাসি লিগের বিজ্ঞাপন করায় নোটিস আদালতের]

 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement