৫ মাঘ  ১৪২৫  রবিবার ২০ জানুয়ারি ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফিরে দেখা ২০১৮ ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কদিন আগে একটি জনপ্রিয় টিভি শোতে গিয়ে একাধিক আপত্তিকর মন্তব্য করেন টিম ইন্ডিয়ার তারকা অলরাউন্ডার হার্দিক পাণ্ডিয়া। এর মধ্যে একাধিক মন্তব্য ছিল নিজের যৌনজীবন নিয়ে। যা মোটেই পছন্দ হয়নি নেটিজেনদের। সমালোচকরা তো বটেই, সমর্থকরাও হার্দিকের মন্তব্যের জন্য তাঁকে তুলোধোনা করেন। শেষপর্যন্ত চাপে পড়ে ক্ষমা চাইলেন পাণ্ডিয়া। এদিকে, হার্দিক ক্ষমা চাইলেও তাঁর মন্তব্য ক্ষুব্ধ বিসিবিআই। ইতিমধ্যেই ক্রিকেটারকে শোকজ করেছে বোর্ড। 

[বুমরাহকে বিশ্রাম বোর্ডের, অস্ট্রেলিয়ায় সিরাজ ও নিউজিল্যান্ডে খেলবেন সিদ্ধার্থ]

কী বলেছিলেন টিম ইন্ডিয়ার তারকা ক্রিকেটার? ‘কফি উইথ করণ’নামের জনপ্রিয় টিভি শো-তে গিয়ে হার্দিক বলেন, ” কোনও ক্লাবে গেলে আমি মেয়েদের নামও দেখি না। একটি মেয়েকে যে মেসেজ পাঠাই, সেই মেসেজই অন্য মেয়েদের পাঠিয়ে দিই।” নিজের যৌনজীবন নিয়ে বলতে গিয়ে হার্দিক জানান তাঁর বাবা-মা তাঁর কাছে বন্ধুর মতো। নিজের প্রথম শারীরিক সম্পর্কের কথাও মাকে জানিয়েছিলেন তিনি। প্রথমবার শারীরিক সম্পর্কের পর টিম ইন্ডিয়ার তারকা অলরাউন্ডার নাকি তাঁর মাকে এসে বলেছিলেন, “মা আজ ম্যায় কার কে আয়া…।” (আজ আমি শারীরিকভাবে মিলিত হয়েছি।) হার্দিকের এই মন্তব্য ভালভাবে নেননি নেটিজেনরা। বিশেষ করে মহিলারা, তার মানসিকতা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন।

[এই জয় সবচেয়ে বড় প্রাপ্তি, অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়ে তৃপ্ত বিরাট]

শেষপর্যন্ত বাধ্য হয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় ক্ষমা চেয়েছেন হার্দিক। একটি পোস্টে তিনি লিখেছেন, “কফি উইথ করণ-এ আমার মন্তব্যে যাঁরা আঘাত পেয়েছেন তাদের কাছে আমি ক্ষমাপ্রার্থী। ওই শো-তে গিয়ে আমি নিজের উপর নিয়ন্ত্রণ হারিয়েছিলাম। আমি কাউকে আঘাত করতে চাইনি।” উল্লেখ্য, এই শো-তে গিয়েই শচীন এবং বিরাটের মধ্যে তুলনায় বিরাটকে এগিয়ে রেখেছিলেন হার্দিক এবং লোকেশ রাহুল। যা নিয়ে বিস্তর বিতর্ক হয়। এই বিতর্কের জেরেই লোকেশ রাহুল এবং হার্দিককে শোকজ করা হয়েছে। দুই ক্রিকেটারকেই সতর্ক করা হয়েছে। টিভি শোতে ক্রিকেটারদের উপস্থিতিতেও নিষেধাজ্ঞা জারি করা হতে পারে বলে সূত্রের খবর। 

 

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং