BREAKING NEWS

২৮ আষাঢ়  ১৪২৭  মঙ্গলবার ১৪ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

দল থেকে বাদ, গুন্ডা দিয়ে নির্বাচক প্রধানকে পেটালেন ক্রিকেটার

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: February 12, 2019 8:44 am|    Updated: February 12, 2019 8:44 am

An Images

স্টাফ রিপোর্টার: দিল্লিতে ক্রিকেট আর বিদঘুটে ঘটনা, যত দিন যাচ্ছে যেন সমার্থক হয়ে যাচ্ছে। বছর দেড়েক আগে দিল্লিতেই রঞ্জি ট্রফি ম্যাচ চলাকালীন এক ব্যক্তি গাড়ি চালিয়ে মাঠে ঢুকে পড়েছিলেন! পিচে উঠে চক্কর দিতে শুরু করেছিলেন। তীব্র আতঙ্কে ক্রিকেটাররা সে দিন প্রশ্ন তুলে দিয়েছিলেন নিজেদের নিরাপত্তা নিয়ে। কে জানত, বছর দেড়েকের মধ্যে দিল্লি ক্রিকেটার-কোচদের নিরাপত্তা সত্যি সত্যি চরম সঙ্কটে পড়ে যাবে? দিল্লির সিনিয়র নির্বাচক কমিটি প্রধান তথা ভারতের প্রাক্তন পেসার অমিত ভান্ডারীকে সোমবার মাঠেই বেধড়ক পিটিয়ে চলে গেল গুণ্ডারা! শুধু তাই নয়, নীতীশ রানা-ধ্রুব শোরের মতো দিল্লি রঞ্জি ক্রিকেটাররা প্রতিবাদ করতে গেলে তাঁদের হুমকি দেওয়া হল, চুপচাপ সরে না গেলে গুলি চালিয়ে দেওয়া হবে!

[ঘূর্ণিতে বাজিমাত, কেরিয়ারের সর্বোচ্চ ব়়্যাঙ্কিংয়ে কুলদীপ]

পুরো ঘটনাটা কী? নয়াদিল্লির সেন্ট স্টিফেনসের মাঠে এ দিন আসন্ন সৈয়দ মুস্তাক আলি টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টের জন্য প্রস্তুতি চলছিল। প্রাথমিক টিমটা ট্রায়াল ম্যাচ খেলছিল নিজেদের মধ্যে। দিল্লির নির্বাচক প্রধান অমিত ভান্ডারীও ছিলেন সেখানে। আচমকাই অনুজ দেড়া নামের দিল্লির এক অনূর্ধ্ব ২৩ ক্রিকেটার এসে নির্বাচক প্রধানের কাছে উষ্মা দেখিয়ে জানতে চান, কোন যুক্তিতে তাঁকে অনূর্ধ্ব ২৩ টিম থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে? জুনিয়র ক্রিকেটারের ঔদ্ধত্য দেখে মেজাজ হারান অমিত। কিন্তু, অনুজ নামক সেই ক্রিকেটার তাতে তো চুপ করে যানইনি, উলটে হুমকি দেন তিনি কিছুক্ষণের মধ্যেই শোধ নেবেন! এবং কিছুক্ষণের মধ্যেই জনা পনেরো ছেলে নিয়ে ফের মাঠে উপস্থিত হন অনুজ। প্রত্যেকের হাতেই লাঠিসোঁটা থেকে হকি স্টিক সবই ছিল। পুরো হিন্দি সিনেমার কায়দায় নির্বাচক প্রধানকে পেটানোর তোড়জোড় শুরু হয়ে যায়। অমিত ভান্ডারীর অবস্থা দেখে তাঁকে বাঁচাতে ছুটে আসেন নীতিশ রানারা। শোনা গেল, তাঁরাও পাল্টা ব্যাট, উইকেট নিয়ে সার বেঁধে দাঁড়িয়ে যান! কিন্তু অনুজের সঙ্গে থাকা গুণ্ডাবাহিনী থেকে শাসানো হয়, ক্রিকেটাররা সরে না গেলে তাঁদের কপালে প্রচণ্ড দুঃখ আছে। প্রয়োজনে গুলি চালানোর ব্যাপারে দু’বার ভাবা হবে না!

[জাতীয় পতাকাকে এভাবেই মর্যাদা দিতে হয়, শেখালেন ধোনি]

প্রাণভয়ে ভীত ক্রিকেটাররা এরপর পিছু হঠে যান। এবং গুণ্ডাবাহিনী প্রবল উদ্যমে তাড়া করে অমিতকে। যা খবর, তার হাঁটু এবং মাথা, দু’জায়গাতেই হকি স্টিক দিয়ে প্রচণ্ড জোরে আঘাত করা হয়। পরে হাসপাতালে নিয়ে গেলে মাথায় চারটে সেলাই করতে হয় তাঁর। পুরো ঘটনায় প্রবল কেঁপে গিয়েছে দিল্লি ক্রিকেটমহল। প্রাক্তন ভারত তথা দিল্লি ক্রিকেটার গৌতম গম্ভীর অপরাধী ক্রিকেটারের আজীবনের নির্বাসন চেয়েছেন। ‘ভাবতেই পারছি না, দেশের রাজধানীতে এই জিনিস হয়েছে। আমি ব্যক্তিগত ভাবে দেখব, যাতে এটা ধামাচাপা না পড়ে। যে ক্রিকেটার এই কাণ্ড ঘটিয়েছে, গুন্ডা নিয়ে এসেছে তার আজীবন নির্বাসন হওয়া দরকার,’ টুইট করেছেন গম্ভীর। পুরো ঘটনার তদন্তে নেমে পড়েছে দিল্লি পুলিশও। দিল্লির ডেপুটি কমিশনার অব পুলিশ (উত্তর) নুপুর প্রসাদ বলে দিয়েছেন, “আহতের সঙ্গে কথা বলে অভিযোগ জমা করা হবে।” দিল্লি ক্রিকেট সংস্থা (ডিডিসিএ) থেকেও এফআইআর করা হচ্ছে অভিযুক্ত ক্রিকেটার অনুজের বিরুদ্ধে। যা খবর, তাতে তাঁর গ্রেফতার হওয়ার প্রবল সম্ভাবনা।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement