৫ মাঘ  ১৪২৫  রবিবার ২০ জানুয়ারি ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফিরে দেখা ২০১৮ ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: হার্দিক পাণ্ডিয়া ও লোকেশ রাহুলকে দু’টি ম্যাচে নির্বাসন দেওয়া হোক। মেল করে এই প্রস্তাব দিলেন অ্যাডমিনিস্ট্রেশন কমিটির প্রধান বিনোদ রাই। বিসিসিআই-এর সিইও রাহুল জোহরিকে একটি মেল করেন তিনি। সেখানে লেখেন, হার্দিক ও লোকেশের মন্তব্য অত্যন্ত নিম্নরুচির। গোটা ঘটনাটি তিনি কাগজে পড়েছেন। ক্ষমার অযোগ্য অপরাধ। অ্যাডমিনিস্ট্রেশন কমিটির সদস্য ডায়না এডুলজিকে পরামর্শ দেন, দুই ক্রিকেটারকে যাতে দুই ম্যাচের জন্য বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

এদিন রাহুল জোহরিকে একটি ই-মেলে বিনোদ রাই লেখেন, “একটি শোয়ে গিয়ে রাহুল ও হার্দিকের মন্তব্য করার ঘটনা আমি কাগজে পড়েছি। খুবই নিম্নরুচির মন্তব্য। এটি ক্ষমার অযোগ্য অপরাধ। আমি ডায়নাকে বলেছি কারণ আমি নিজে এই ভিডিও দেখিনি। আমার মনে হয় দুই ক্রিকেটারকে দুই ম্যাচ বহিষ্কার করা উচিত। ডায়না রাজি থাকলে আজই নির্দেশ দাও। আর বোর্ডের চুক্তিবদ্ধ সব ক্রিকেটার ও সাপোর্ট স্টাফদের জন্য একটি নির্দেশিকা তৈরি করে ফেলো।” বিনোদ রাইয়ের মেল প্রসঙ্গে ডায়না এডুলজি বলেন, “এ বিষয়ে দেরি করার মানেই নেই। চিঠি পাঠিয়ে এখনই বোর্ডের নিয়মকানুনের মধ্যে এগুলো অন্তর্ভুক্ত করতে হবে।।” কফি উইথ করণ নামক একটি শোয়ে গিয়ে নারীবিদ্বেষমূলক মন্তব্য করেন হার্দিক ও রাহুল। যার ফলে সঙ্গে সঙ্গে শো-কজ করা হয় দুই ক্রিকেটারকে। জবাবে সঙ্গে সঙ্গে নিজের আচরণের জন্য ক্ষমাও চেয়ে নিয়েছেন হার্দিক। কিন্তু বিষয়টি এখানে থেমে থাকল না। জল গড়াল আরও অনেক দূর। বিনোদ রাই এদিন বলেন, “হার্দিকের জবাবে আমি খুশি হতে পারিনি। আমার মনে হয় দুই ক্রিকেটারকে দুই ম্যাচের নির্বাসন দেওয়া হোক। ডায়নার সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হবে এক্ষেত্রে।”

[বিশ্বকাপের আগে ফের অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে সিরিজ খেলবে ভারত]

কফি উইথ করণ শো-তে এসে হার্দিক জানান, তিনি বহুগামী। আর বাবা-মায়ের কাছেও সেসব লুকোন না তিনি। এই মন্তব্যে নারীজাতিকে চরম অপমান করেছেন হার্দিক। ২৪ ঘণ্টার মধ্যে দুই ক্রিকেটারকে শো-কজ করে জবাব চাওয়া হয়। করণ জোহর কেন এই ঘটনায় ক্রিকেটারদের কিছু বলেননি, তা নিয়ে প্রশ্ন ওঠে সোশ্যাল মিডিয়ায়। এই ঘটনা নিয়ে করণ জোহর যদিও মুখ খোলেননি। বিনোদ রাই জানান, ‘দুই ক্রিকেটারকে কীভাবে নির্বাসনে পাঠানো যায়, আইনি পদ্ধতি ডায়না জানেন। তাঁর সম্মতি নিয়েই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। আমার মনে হয়েছে ওদের মন্তব্য খুব নিম্মরুচির। কোনও ভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়।’

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং