৫ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৬  রবিবার ১৯ মে ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo নির্বাচন ‘১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও #IPL12 ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার
নির্বাচন ‘১৯

৫ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৬  রবিবার ১৯ মে ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিশ্বকাপ সেমিফাইনাল পর্যন্ত কোনও অসুবিধে নেই। বিশ্বযুদ্ধের শেষচারে তিনি ভারতকে দেখছেন। কিন্তু তারপর এগোতে গেলে বিরাট কোহলিদের ভাগ্যের প্রয়োজন। বক্তার নাম? কপিল দেব নিখাঞ্জ। ভারতের প্রথম বিশ্বজয়ী অধিনায়ক।

“ভারতীয় টিমে তারুণ্য আর অভিজ্ঞতার মিশেল দারুণ। বিশ্বকাপে খেলা বাদবাকি টিমের চেয়ে অভিজ্ঞতাতেও অনেক এগিয়ে ভারত। প্লাস, ব্যালান্স। সেটা ভারতীয় টিমের জন্য খুব ভাল। চারজন ফাস্ট বোলার আছে, তিন স্পিনার আছে। আর আছে বিরাট কোহলি আর মহেন্দ্র সিং ধোনির মতো দু’জন।” বুধবার এক অনুষ্ঠানে বলেন কপিল। সঙ্গে যোগ করেন, “ধোনি আর বিরাট, দু’জনই ভারতের জন্য খুব ভাল করেছে। কারও পক্ষে ওদের ধরা সম্ভব নয়।” ভারতের প্রবাদপ্রতিম অলরাউন্ডার এখানেই থামেননি। তাঁর কথায়, “বিশ্বকাপ সেমিফাইনাল পর্যন্ত ভারত যেতেই পারে। কিন্তু তারপর এগোতে গেলে একটু ভাগ্যের প্রয়োজন। কারণ তার পরের পর্বটা সত্যিই বেশ কঠিন। সেখানে টিমের পারফরম্যান্স যেমন লাগবে, তেমনই প্রয়োজন ভাগ্যের। আমাদের যে চারজন ফাস্ট বোলার রয়েছে, তারা প্রত্যেকে দুর্ধর্ষ। আর ইংল্যান্ডের সিমিং পরিবেশে ওরা সুবিধেও পাবে। কারণ ওরা বল সুইং করাতে পারে। তারপর ধরুন, শামি আর বুমরাহ। ওরা দু’জনেই ঘণ্টায় ১৪৫ কিলোমিটারে বল করতে পারে। বুমরাহ-শামির বলে যেমন গতি আছে, তেমনই ওরা বল সুইং করাতে পারে।”

[আরও পড়ুন: রূদ্ধশ্বাস ম্যাচে সানরাইজার্স বধ, ফাইনাল থেকে এক কদম দূরে দাদার দিল্লি]

শুধু তাই নয়, আসন্ন বিশ্বকাপে সেরা তিন টিমও বেছে দিয়েছেন কপিল। ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া এবং ভারত। “আমার মতে নিউজিল্যান্ড আর ওয়েস্ট ইন্ডিজ সবাইকে চমকে দেবে। সারপ্রাইজ প্যাকেজ হিসেবে উদয় হবে। কিন্তু ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া কিংবা ভারতের মতো শক্তি বাকি টিমগুলোর নেই,” মত কপিলের। হালফিলে প্রচুর কথাবার্তা চলছে বিশ্বকাপে ভারতীয় ব্যাটিং অর্ডারে চার নম্বরে কে নামবেন, এ নিয়ে? কপিলের মতে, পুরোটাই ক্রিকেটারের মানসিকতার ব্যাপার। একমাত্র ওপেনার বাদে যে কেউ যে কোনও পজিশনে খেলতে পারে। “টি-টোয়েন্টি আসার পরে বলা মুশকিল কে ওপেনার আর কে চার নম্বর। এভাবে কাউকে বেছে নেওয়া খুব কঠিন। এটা নির্ভর করে প্লেয়ারের মাইন্ডসেটের উপর,” বলে দিয়েছেন কপিল। “ধোনিও তো ২০১১ বিশ্বকাপ ফাইনালে যুবরাজের আগে ব্যাট করতে চলে গিয়েছিল। গত দশ বছরে ক্রিকেট অনেক পালটে গিয়েছে। তাই ওপেনারদের বাদ দিলে যে কেউ চারে খেলতে পারে।”

হার্দিক পান্ডিয়া নিয়েও জিজ্ঞাসা করা হয় কপিলকে। এক সময় হঠাৎই কপিলের সঙ্গে তুলনা করা হচ্ছিল হার্দিককে। কপিলের মতে, হার্দিকের উপর এভাবে চাপ দেওয়াটা ঠিক নয়। তাঁকে নিজের খেলাটা খেলতে দেওয়া হোক।

[আরও পড়ুন: অতিরিক্ত জনপ্রিয়তার জের, ধোনির মেয়েকে অপহরণের হুমকি অভিনেত্রীর!]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং