BREAKING NEWS

২১ চৈত্র  ১৪২৬  শনিবার ৪ এপ্রিল ২০২০ 

Advertisement

‘বান্ধবী’র নগ্ন ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ফাঁস করার হুমকি, বিতর্কে পাক অলরাউন্ডার

Published by: Sulaya Singha |    Posted: February 12, 2020 11:48 am|    Updated: February 12, 2020 11:48 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মাঠের তুলনায় মাঠের বাইরে নানা বিষয়ে বিতর্কে জড়িয়েই বেশিরভাগ শিরোনামে উঠে আসতে দেখা যায় পাকিস্তানের ক্রিকেটারদের। এবারও তার ব্যক্তিক্রম হল না। এবার সংবাদে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি দলের নিয়মিত সদস্য শাদাব খান (Shadab Khan)। এক যুবতীকে নাকি তাঁর নগ্ন ছবি ফাঁস করে দেওয়ার হুমকি দিয়েছেন পাক অলরাউন্ডার।

দুবাইয়ের বাসিন্দা আশরিনা সাফিয়া নামের এক যুবতী শাদাবের বিরুদ্ধে এমনই বিস্ফোরণ অভিযোগ তুলেছেন। ইনস্টাগ্রামে গোটা ঘটনার বর্ণনা দিয়েছেন যুবতী। যেখানে নিজেকে শাদাবের গার্লফ্রেন্ড বলে দাবি করেছেন তিনি। সঙ্গে স্পষ্ট জানান, তাঁর নগ্ন ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করার হুমকি দিয়ে তাঁকে দিনের পর দিন ব্ল্যাকমেল করেন শাদাব। গোটা ঘটনায় পাক ক্রিকেটারকে নিয়ে শুরু হয়েছে তীব্র বিতর্ক।

Shadab

[আরও পড়ুন: ‘নিউজিল্যান্ডের কাছে সিরিজ হার এমন কিছু বড় ব্যাপার নয়’, চাহালের মন্তব্যে বিতর্কের ঝড়]

লম্বা ইনস্টাগ্রাম পোস্টে সাফিয়া জানান, গত বছর মার্চে ঘনিষ্ঠ এক বন্ধুর সূত্রে শাদাবের সঙ্গে তাঁর আলাপ হয়। ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে তাঁদের সম্পর্ক গভীর হয়। এরপর পাক ক্রিকেটারকে সঙ্গ দিতে একাধিক ক্রিকেট সফরে তাঁর সঙ্গী ছিলেন সাফিয়া। কিন্তু শাদাব-সাফিয়ার গোপন সম্পর্কের কথা ফাঁস করে দেন এক পাক সাংবাদিক। তাঁর তোলা যুগলের ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায়। আর ঠিক এর পর থেকেই সাফিয়াকে হুমকি দিতে শুরু করেন অলরাউন্ডার। তাঁদের সম্পর্কের ব্যাপারে কোনও কথা প্রকাশ্যে বলতে বারণ করে দেন তিনি। হুমকি দেন, এমনটা করলে যুবতীর নগ্ন-ব্যক্তিগত ছবি নেটদুনিয়ায় পোস্ট করে দেবেন। এমনকী সাফিয়া যে স্রেফ একজন ক্রিকেট ফ্যান, সেটাই যেন সকলকে বলা হয়। নিজের পোস্টে সাফিয়া লিখেছেন, “বিষয়টা অত্যন্ত ব্যক্তিগত। সকলের সঙ্গে শেয়ার করাটাও বেশ কঠিন। তবে সত্যিটা সামনে আনতেই হত। যে মহিলাদের এই ব্যক্তি এভাবেই ব্যবহার করে ঠকিয়েছে, তাদের জন্য আমার সহানুভূতি রইল। আমি বিশ্বাস করি এই মিথ্যের জন্য ও (শাদাব) ঠিক শাস্তি পাবে।”

 
 
 
 
 
View this post on Instagram
 
 
 
 
 
 
 
 
 

YES I see all the messages you guys send and it is very hard for me to accept but here we are. This is personal/vulnerable for me to share but I have a platform Alhamdulillah to do right. 🙏🏼 I’m sorry to all the girls who reached out for help when they were used and taken advantage of by the person I was with. Astaghfirullah that I believed his lies and unconsciously enabled his behavior. I have zero to gain from posting this but if I can help one girl become aware then I’m willing to jeopardize myself. I’ve been dealing with this since I moved to Dubai. Shadab is probably the first guy I’ve cared about so deeply and it’s hard to process this still. I cant address anything further for legal reasons so please respect my privacy. 🙏🏼

A post shared by Ashreena Safia M. (@ashreenasafia) on

এখানেই থামেননি সাফিয়া। জানান, ভবিষ্যতে যাতে আর কোনও মেয়ে এই ফাঁদে পা না দেয়, সেই কারণেই এই পোস্ট করছেন তিনি। লেখেন, “দুবাই চলে আসার পর থেকেই এই পরিস্থিতির সম্মুখীন হয়েছি। শাদাবকে ভীষণ ভালবেসে ফেলেছিলাম। ওর খেয়াল রাখতাম। তাই বিষয়টা মেনে নিতে কষ্ট হচ্ছে। আইনি কারণে এর চেয়ে বেশি বিস্তারিত কিছু জানাতে পারছি না।” লেখার পাশাপাশি তাঁদের কথপোকথনের স্ক্রিনশটও তুলে ধরেছেন সাফিয়া। যদিও এখনও পর্যন্ত এ বিষয়ে শাদাবের কোনও প্রতিক্রিয়া মেলেনি।

[আরও পড়ুন: যুব বিশ্বকাপের ফাইনালে কদর্য আচরণ, আইসিসির শাস্তির মুখে পাঁচ ক্রিকেটার]

Advertisement

Advertisement

Advertisement