৬ মাঘ  ১৪২৬  সোমবার ২০ জানুয়ারি ২০২০ 

BREAKING NEWS

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

৬ মাঘ  ১৪২৬  সোমবার ২০ জানুয়ারি ২০২০ 

BREAKING NEWS

চার্চিল: ৪ (প্লাজা ২, প্রিমাস, আবুবকর)

মোহনবাগান: ২ (গঞ্জালেস, শুভ ঘোষ)

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আই লিগ মরশুমের প্রথম হোম ম্যাচে লজ্জার হার মোহনবাগানের। রবিবাসরীয় লড়াইয়ে কল্যাণীতে চার্চিল ব্রাদার্সের কাছে ৪-২ গোলে পরাস্ত হল সবুজ মেরুন শিবির। জোড়া গোল করে চার্চিলের জয়ের কারিগর সেই উইলস প্লাজা। এদিনের হারের ফলে মরশুমের দ্বিতীয় ম্যাচে শূন্যহাতে ফিরতে হল সবুজ মেরুন শিবিরকে। ফলে দুই ম্যাচ খেলে তাঁদের পয়েন্ট সংখ্যা মোটে ১।


মরশুমের প্রথম ম্যাচে পাহাড়ে আইজল এফসির কাছে আটকে গিয়েছিল মোহনবাগান। তাই, সে অর্থে দেখতে গেলে আজকের ম্যাচ ছিল ঘুরে দাঁড়ানোর লড়াই। কিন্তু, কিবু ভিকুনার ছেলেদের মধ্যে সেই ঘুরে দাঁড়ানোর তাগিদ নজরে পড়ল না। হতশ্রী রক্ষণ এবং সেই সঙ্গে দেবজিৎ মজুমদারের বিশ্রী গোলকিপিংয়ের জেরে চার গোল খেতে হল সবুজ মেরুনকে।

[আরও পড়ুন: ত্রাতা হুয়ান মেরা, শেষলগ্নের গোলে পাঞ্জাবের বিরুদ্ধে মানরক্ষা ইস্টবেঙ্গলের]


এদিন, ম্যাচের একেবারে গোড়া থেকে জাঁকিয়ে বসে চার্চিল। ম্যাচের প্রথম মিনিটেই দুর্দান্ত হেডার দিয়ে গোল করেন চার্চিলের অধিনায়ক উইলস প্লাজা। সময় যত এগোতে থাকে, তত ম্যাচের উপর নিজেদের আধিপত্য বাড়াতে থাকে চার্চিল। ম্যাচের ২৮ মিনিটে দ্বিতীয় গোলটি পায় তাঁরা। এবারে গোল করেন প্রিমাস। এরপর অবশ্য পেনাল্টির সৌজন্যে গোল করে সবুজ মেরুনকে খানিক স্বস্তি দেন গঞ্জালেস। কিন্তু, মোহনহাবানের স্বস্তি বেশিক্ষণ স্থায়ী হয়নি। কিছুক্ষণ পরই চার্চিলের হয়ে তৃতীয় গোলটি করেন প্লাজা। প্রথমার্ধ শেষ হয় ৩-১ গোলে। মোহনবাগান সমর্থকরা হয়তো প্রত্যাশা করছিলেন, দ্বিতীয়ার্ধে দল কামব্যাক করবে। কিন্তু, তেমনটা হল না। দ্বিতীয়ার্ধে দুই দলই একটি করে গোল পেল। ম্যাচ শেষ হল ৪-২ গোলে।

[আরও পড়ুন: প্রথম ম্যাচেই হোঁচট, ঘরের মাঠে রিয়াল কাশ্মীরের কাছে আটকে গেল ইস্টবেঙ্গল ]

এই মরশুমের শুরু থেকেই গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচগুলিতে হতাশ করছেন কিবুর স্প্যানিশ ব্রিগেড। এদিনও তার ব্যতিক্রম হল না। তুলনামূলকভাবে ভাল করলেন দুই ভারতীয় ব্রিটো পিএম এবং শুভ ঘোষ। তবে, নিয়মিত স্প্যানিশ ব্রিগেডের বারবারের ব্যর্থতা, চাপে রাখবে কোচ কিবু ভিকুনা।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং