BREAKING NEWS

১৯ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২ জুন ২০২০ 

Advertisement

গ্যালারির আসন ভরাতে বসল যৌন পুতুল! বির্তকের মুখে পড়ে ক্ষমা চাইল ফুটবল ক্লাব

Published by: Sulaya Singha |    Posted: May 18, 2020 6:40 pm|    Updated: May 18, 2020 6:40 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা মহামারি যে কত নতুন নতুন ঘটনার সাক্ষী করছে বিশ্ববাসী, তার ইয়ত্তা নেই। লকডাউনের মধ্যে সাধারণের কল্পনাতীত সব কাণ্ডকারখানা ঘটে যাচ্ছে এদিক-সেদিক। ঠিক যেমনটা ঘটল দক্ষিণ কোরিয়ার সিওলে একটি ফুটবল ম্যাচে। দর্শকশূন্য মাঠে গ্যালারি ভরতে ব্যবহার করা হল সেক্স ডল! বুঝুন কাণ্ড।

করোনাকে উপেক্ষা করে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে ফিরেছে খেলা। মাঠে গড়িয়েছে বল। কিন্তু বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই মাঠে দর্শকদের প্রবেশের অনুমতি নেই। অর্থাৎ নিয়ম মেনে ম্যাচের আয়োজন করা গেলেও সে ম্যাচ দেখা যাবে কেবল টিভির পর্দাতেই। কিন্তু সমর্থকহীন মাঠে খেলতে যাতে ফুটবলারদের একাকীত্ব বোধ না হয়, তার জন্য ক্লাব ঠিক করেছিল, কৃত্রিম উপায়েই ভরা হবে গ্যালারি। এক্ষেত্রে সাধারণত ম্যানিকুইন কিংবা দর্শকদের ছবি দেওয়া কাটআউট ব্যবহার হয়ে থাকে। কিন্তু সিওল বিশ্বকাপ স্টেডিয়াম সাক্ষী রইল একেবারে অন্য দৃশ্যে। এফসি সিওল বনাম গুয়ানজু এসির ম্যাচে গ্যালারিজুড়ে বিরাজমান যৌন পুতুল! এক-একটি পুতুলের গায়ে এক-এক ধরনের জার্সি-টি-শার্ট। ফুটবলারদের উৎসাহ দেওয়ার ভঙ্গিতেই বসে তারা। রবিবার এ দৃশ্য সামনে আসতেই বিতর্কের ঝড় ওঠে। ঘরের দল জিতলেও খেলার মাঠে ক্লাবের তরফে এমন ‘অশালীন আয়োজন’ দেখে হতবাক ফুটবলপ্রেমীরা। বিতর্কের ঝড় উঠতেই ড্যামেজ কন্ট্রোলে নেমে ক্ষমা চায় এফসি সিওল।

[আরও পড়ুন: দুস্থদের পাশে দাঁড়াতে মানবিক উদ্যোগ, শখের ব্রেসলেট ৪২ লক্ষ টাকায় নিলাম মাশরাফির]

করোনার জেরে সে দেশেও অনেকদিন বন্ধ ছিল ফুটবল। গত ৮ মে থেকে দর্শকশূন্য স্টেডিয়ামে শুরু হয় কে-লিগ। তারও ক’দিন আগেই অবশ্য এই শর্ত মেনে সেখানে শুরু হয় বেসবল। বিভিন্ন ক্লাবই তাই গ্যালারি ভরাতে মাস্ক পরা দর্শকদের ছবি, কাটআউট এমনকী সবজিপাতি রেখেও আসন ভরানোর চেষ্টা করছে।

এফসি সিওলের দাবি, ফুটবলারদের উৎসাহ দিতেই তারা ম্যানিকুইনের ব্যবহার করেছিল। সেগুলি সেক্স ডল নয়। এমনকী তারা এও জানায়, যে কোম্পানির থেকে ম্যানিকুইনগুলি আনা হয়েছিল, তারা সেক্স ডল তৈরি করে না। কিন্তু সেই কোম্পানি আবার বলে, গ্যালারিতে সজ্জিত সমস্ত পুতুল তাদের কোম্পানির নয়। আর এতেই অভিযোগ জোড়াল হয়। তাছাড়া গোটা স্টেডিয়ামে কেন শুধুই মহিলা পুতুল, সে প্রশ্নও তুলেছেন অনেকে। তবে ক্লাব ক্ষমা চেয়ে নেওয়ায় আপাতত বিতর্ক থেমেছে।

[আরও পড়ুন: নিষেধাজ্ঞা উড়িয়ে গোলের সেলিব্রেশন বায়ার্নের ফুটবলারদের, আতঙ্কের ছবি বুন্দেশলিগায়]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement